মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:১২ পূর্বাহ্ন

অনুশীলনে ফিরলেন সাকিব

দুঃসময়ের মধ্যে একটি ভালো খবর পেল বাংলাদেশের ক্রিকেট। চোট কাটিয়ে মাঠে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। অবশ্য পুরোপুরি মাঠে ফেরা বলতে যা বোঝায়, তা কিন্তু নয়। বৃহস্পতিবার থেকে ফিটনেস ট্রেনিং শুরু করেছেন তিনি। ব্যাটিং-বোলিং শুরু করতে আরও চার-পাঁচ দিন লাগবে। তাই ৬ মার্চ থেকে শ্রীলংকায় অনুষ্ঠেয় তিন জাতি নিদহাস ট্রফিতে তার খেলা নিয়ে শঙ্কা অনেকটাই কমে গেল। এমন দুর্দিনে এটাই বা কম কী!

সকাল ১১টার দিকে মিরপুর একাডেমি মাঠে ৩০ মিনিটের মতো রানিং করেন সাকিব। এরপর একাডেমি মাঠ সংলগ্ন জিমনেসিয়ামে দেড় ঘণ্টা জিম করেন। জিমনেসিয়াম থেকে বের হওয়ার সময় সাকিব জানালেন, এখন আঙুলের অবস্থা ভালো। ব্যথা কমে গেছে বলেই তিনি ফিটনেস ট্রেনিংয়ে নেমে পড়েছেন।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছেন, ৭০ শতাংশের মতো সুস্থ হয়ে উঠেছেন সাকিব। তিন-চার দিনের মধ্যে আঙুলের চোট থেকে শতভাগ সুস্থ হয়ে যাবেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

গত ২৭ জানুয়ারি ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের ফাইনালে ফিল্ডিং করার সময় বাঁ-হাতের কনিষ্ঠায় চোট পেয়েছিলেন সাকিব। এ চোটের কারণে টেস্ট সিরিজে খেলতে পারেননি। তবে টি২০ সিরিজে তাকে খেলানোর প্রত্যাশায় ছিলেন নির্বাচকরা। তাকে অধিনায়ক করে প্রথম টি২০র স্কোয়াডও ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু পরে আবার তাকে বাদ দিতে হয়।

সদ্য সমাপ্ত সিরিজে সাকিবের অনুপস্থিতি ভীষণভাবে অনুভব করেছে বাংলাদেশ দল। তিনি থাকলে টেস্ট-টি২০ ফল পাল্টে যেত বলেও মনে করেন অনেকে। তবে শ্রীলংকায় ত্রিদেশীয় সিরিজে তাকে পাওয়া যাবে বলে বৃহস্পতিবার আশ্বস্ত করেছেন বিসিবির প্রধান চিকিৎসক।

সাকিব অবশ্য নিজের ফেরা নিয়ে সংবাদমাধ্যমে কোনো কথা বলতে রাজি হননি। কেবল জানালেন, তবে ফেরাটা চিকিৎসকদের ওপর নির্ভর করছে।

চোটের পর সাকিবের বাঁ-হাতের কনিষ্ঠায় ৯টি সেলাই পড়েছে। ১০ ফেব্রুয়ারি সেলাই কাটা হলেও এখনও আঙুলের মাঝ অংশে কিছুটা ফোলা আছে। তবে এটা নিয়ে মোটেও চিন্তিত নন দেবাশীষ চৌধুরী, ‘সাকিব তুলনামূলক দ্রুতই সেরে উঠছে। আঙুলের ব্যথা ৭০ শতাংশ সেরে গেছে। চাইলে সে এখনই বোলিং করতে পারবে। কারণ বোলিংয়ের সময় তার চোটাক্রান্ত আঙুলটি ব্যবহূত হয় না। তবে ব্যাট করতে আরও চার-পাঁচ দিন লাগবে।’

শ্রীলংকায় ত্রিদেশীয় সিরিজে তার খেলা নিয়ে সংশয় নেই বলে জানালেন চিকিৎসক। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, ২৬ ফেব্রুয়ারি আবাহনী-মোহামেডান ঐতিহ্যের লড়াইয়েও নাকি তিনি খেলতে পারেন। সাদা-কালো শিবিরের অধিনায়ক তিনি।

দেবাশীষ চৌধুরী অবশ্য আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচে খেলাটা তার ওপরই ছেড়ে দিয়েছেন, ‘ত্রিদেশীয় সিরিজে নিশ্চিতভাবেই খেলতে পারছে সে। তবে প্রিমিয়ার লীগে আবাহনীর বিপক্ষে সে খেলতে পারবে কি-না সেটা এখনই বলা যাচ্ছে না। বিষয়টা নির্ভর করছে তার ওপর। সে যদি আত্মবিশ্বাসী থাকে তাহলে আমাদের কোনো সমস্যা নেই।’


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:২৭
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:৪৫
    যোহরদুপুর ১১:৫৩
    আছরবিকাল ১৬:১৮
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:০১
    এশা রাত ১৯:৩১
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!