সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:০০ অপরাহ্ন

অপটিক্যাল যুগে বাংলাদেশ

অপটিক্যাল ফাইবার হচ্ছে খুব সরু নমনীয় কাচ তন্তু। দুটি ভিন্ন ঘনত্বের কাচ সমন্বয়ে অপটিক্যাল ফাইবার তৈরী করা হয়। একসময় এই অপটিক্যাল ফাইবার শুধু উন্নত দেশের ব্যবহারের জন্য বলে ধারণা করা হতো। কারণ অপটিক্যাল ফাইবার কিছুটা ব্যয় সাপেক্ষ। কিন্ত বাংলাদেশও প্রবেশ করলো এই অপটিক্যাল যুগে।

দেশের ১০টি জেলার ৩০০টি ইউনিয়নকে অপটিক্যাল ফাইবার সংযোগের আওতায় আনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অপটিক্যাল ফাইবার কানেকটিভিটির উদ্বোধন করেন। এই অপটিক্যাল ফাইবারের মাধ্যমে জনগণ দ্রুত গতির ইন্টারনেট সুবিধা সহ প্রযুক্তিগত আরো অনেক সুবিধা পাবে। প্রতিটি প্রত্যন্ত এলাকায় যেখানে ক্যাবল বা অপটিক্যাল ফাইবার সংযোগ পৌঁছানো সম্ভব নয়, সেখানে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১-এর মাধ্যমে ইন্টারনেটের নেটওয়ার্ক পৌঁছে দিতে সরকার পদক্ষেপ নিচ্ছে। এই ১০টি জেলা হলো: কুড়িগ্রাম, নীলফামারী, বগুড়া, নেত্রকোনা, হবিগঞ্জ, পটুয়াখালী, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, রাজশাহী ও চাঁদপুর।

১০ জেলায় অপটিক্যাল ফাইবার কানেক্টিভিটি উদ্বোধন করার পর বাংলাদেশের রেলপথও অপটিক্যাল ফাইবার নেটওয়ার্কের আওতায় আনার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত রেলওয়ের টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন হবে। অপটিক্যাল ফাইবারের মাধ্যমে জনসাধারণের রেলপথের পরিসেবা বাড়বে। সেই সাথে বাড়বে অপারেশনাল ও বাণিজ্যিক কার্যক্রম। পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এক সূত্রে জানা যায় যে, বাংলাদেশ রেলওয়ের ৫৭৫ কিলোমিটার সেকেন্ডারি লাইনে অপটিক্যাল ফাইবারভিত্তিক টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপন এবং চালুকরণ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৮ কোটি ৭২ লাখ টাকা। এবং দেশের নিজস্ব অর্থায়নে এই প্রকল্পের ব্যয় করা হবে। বাংলাদেশ রেলওয়ের মাধ্যমে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগ সহ ১৬টি জেলায় এই প্রকলটি বাস্তবায়ন করা হবে।

মহাকাশ থেকে সমুদ্র সর্বত্র আজ বাংলাদেশের বিজয় দৃশ্যমান। মহাকাশে স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু – ১’ উৎক্ষেপণের পর এবার অপটিক্যাল যুগে প্রবেশ করলো বাংলাদেশ। এই দেশ এখন আর তলাবিহীন ঝুড়ি নয় এখন উপচে পড়া ঝুড়িতে পরিণত হয়েছে।


বিজয় নিশান উড়ছে ঐ…

© All rights reserved 2018 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!