মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ০৪:২৮ পূর্বাহ্ন

ঈশ্বরদীতে পৃথক অগ্নিকাণ্ডে ১১ বাড়ি ভস্মীভূত

স্টাফ রিপোর্টার : পাবনার ঈশ্বরদীতে পূর্ব শত্রুতাবশত পেট্রোল ঢেলে এবং বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের পৃথক দুই ঘটনায় ১১টি বসত ঘর ভস্মীভূত হয়েছে।

এই সময় অগ্নিদগ্ধ হয়ে চারটি গরু, ২ টি ছাগল, অর্ধশত হাঁস মুরগি মারা গেছে। আর গবাদি পশুকে রক্ষা করতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ হয়ে হাসপাতালে এক জনের ভর্তি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে ঈশ্বরদীর পাকশীর ফটু মার্কেট সংলগ্ন চররুপপুর নওদাপাড়ায় ও লক্ষ্মীকুণ্ডা ইউনিয়নের কৈকুণ্ডা ফকির মার্কেট সংলগ্ন উত্তর পাড়ায় অগ্নিকাণ্ডের এসব ঘটনা ঘটে।

আর চররুপপুর নওদাপাড়ার পেট্রোল ঢেলে অগ্নিসংযোগ করার সন্দেহজনক আসামি করে একই এলাকার মৃত দবির উদ্দিনের ছেলে শিপনের নামে থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

চররুপপুর নওদাপাড়ার ক্ষতিগ্রস্থ পলান মালিথা জানান, বুধবার রাত আনুমানিক একটার দিকে তাদের বসতঘরে আগুন জ্বলতে দেখেন। অগ্নিকাণ্ডে তার দুটি টিনের বসত ঘর, নগদ দুই লাখ টাকা, স্বর্ণালংকার, ফ্রিজ, টেলিভিশন, আসবাপত্রসহ যাবতীয় জিনিস ভস্মীভূত হয় যায়। এতে তার আনুমানিক ৭ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

তিনি আরো জানান, এই ঘটনার সময় তারা শিপন নামের একজনকে ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেন। তাকে দাঁড়িয়ে থাকার কারণ জিজ্ঞাসা করলে কোনো সদুত্তোর না দিয়ে চলে যান।

পরে প্রতিবেশী সামাদের বাড়ির বেড়াতেও আগুন জ্বলতে দেখে সবাই মিলে নিভিয়ে ফেলেন। সেখানে পেট্রোল ভর্তি বোতল পাওয়া যায়। এই জন্য শিপনের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে উপজেলার কৈকুণ্ডা ফকির মার্কেট সংলগ্ন উত্তরপাড়ায় বুধবার দিবাগত রাতে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে লাগা ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৯টি বসত বাড়ি, গবাদি পশু গরু, ছাগল, হাঁসমুরগি, ধান চাউল, মশুর, খেসারি, ফ্রিজ, টেলিভিশন, নগদ টাকা আসবাপত্র পুড়ে ভস্মীভূত হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও এলাকাবাসীদের দেওয়া তথ্য মতে, গভীর রাতে সবাই ঘুমিয়ে ছিল। মসলেম প্রামাণিকের গোয়াল ঘরে থাকা গরু ছাগলের গায়ে আগুন লাগলে ডাকাডাকি শুরু করে। এই সময় তারা ঘর থেকে বের হন।

তাদের ডাক চিৎকার ও আগুনের লেলিহান দেখে পার্শ্ববর্তী ইটভাটা থেকে লোকজন এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। ফায়ার সার্ভিসে খবর দেওয়া হয়।

ঈশ্বরদী শহর ও ইপিজেড ফায়ার সার্ভিস থেকে কর্মীরা আসার আগেই চারদিকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ঘন বসতিপূর্ণ এলাকা হওয়ায় আগুনে মসলেম প্রামাণিকের ২টি, স্বপন প্রামাণিকের ২টি, সাবান প্রামাণিকের ২টি, তসলিম প্রামাণিকের ২টি ও নফছার বিশ্বাসের ১টিসহ ৯টি বসতঘর, ঘরে থাকা আসবাবপত্র, খাদ্য, নগদ টাকা, স্বর্ণাংলকার ভস্মীভুত হয়ে যায়।

আর চারটি গরু, একটি ছাগল, অর্ধশত হাঁস মুরগি অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যায়। এই সময় নিজের গোয়াল ঘর থেকে গরু ছাগল বের করতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন মসলেম প্রামাণিক। এতে তাদের আনুমানিক ৭০ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

ঈশ্বরদী রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ এলাকা (ইপিজেড) ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের সিনিয়র অফিসার সাব্বির আহমেদ জানান, খবর পেয়ে আগুন লাগা দুটি স্থানেই যাওয়া হয়। রাস্তা খুবই খারাপ। দূর থেকে পানির পাইপ টেনে আগুন নেভানোর হয়। এই মধ্যেই সব কিছু পুড়ে ভস্মীভূত হয়ে যায়।

আহত মসলেম প্রামাণিককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় করা সম্ভব হয়নি বলে জানান এই কর্মকর্তা।

এই ঘটনায় খবর পেয়ে লক্ষ্মীকুণ্ডা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আনিসুল হক মোল্লা এবং বর্তমান চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান শরিফ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক সাহায্য করেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে শুকনা খাবার বিতরণ করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৩:৪৭
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:১৪
    যোহরদুপুর ১১:৫৫
    আছরবিকাল ১৬:৩৪
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:৩৬
    এশা রাত ২০:০৬

পাবনা এলাকার সেহেরি ও ইফতারের সময়সূচি

© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!