রবিবার, ২৫ অগাস্ট ২০১৯, ০৩:০৮ অপরাহ্ন

ঈশ্বরদী থেকে বেনাপোল এক্সপ্রেস সাড়ে ৩ ঘন্টায় ঢাকা পৌছাবে

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, ঈশ্বরদী : স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর আজ থেকে এই প্রথম ঈশ্বরদী-ঢাকা রেলরুটে চালু হয়েছে ননস্টপ ৭৯৫নং‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’। এখন হতে ঈশ্বরদী থেকে মাত্র সাড়ে তিন ঘন্টায় ট্রেনটি ঢাকা পৌঁছাবে।

বুধবার (১৭ জুলাই) ৭৯৫নং ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি বেনাপোল থেকে ছেড়ে এসে ঈশ্বরদী জংশন ষ্টেশনে পৌছে ৪ টা ৫০ মিনিটে তারপর পুনরায় ৫ টায় ঢাকার উদ্দেশ্য ছেড়ে যায়। ঈশ্বরদীতে নির্ধারিত সময় ৪টা ২৫ মিনিট।

উদ্বোধনী দিনেই ট্রেনটি ২৫ মিনিট বিলম্বে চলাচল করেছে। তার আগে ওইদিন দুপুর ১২:২২ মিনিটে গনভবন থেকে সবুজ পতাকা উড়িয়ে বাঁশী বাজিয়ে ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় দপ্তরের রেলওয়ের প্রকৌশলী-২ আরিফুল ইসলাম টুটুল জানান, ঈশ্বরদী -ঢাকা রুটে ননস্টপ আন্তঃনগর ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস ‘ট্রেনে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা থাকবে। এই ট্রেনে বিমানের মতো বায়ো-টয়লেট সুবিধা রয়েছে। আসনগুলোও আধুনিক।

প্রতিদিন ৪:২৫ মিনিটে ট্রেনটি ঈশ্বরদী আসবে, ৪:৩৫ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। আবার রাত ১২:৪০ মিনিটে ঢাকা থেকে ছেড়ে ভোর ৪:০৫ মিনিটে ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে পৌঁছে আবার বেনাপোলের উদ্দেশে ছেড়ে সকাল ৮:৪৫ মিনিটে ট্রেনটি বেনাপোল বন্দরে পৌঁছে যাবে।

যেন ভারতগামী যাত্রীরা সকাল নয়টার মধ্যে বেনাপোল ইমিগ্রেশনে পৌঁছাতে পারেন। বেনাপোল থেকে ট্রেনটি ছেড়ে যশোর রেলওয়ে জংশনে পৌঁছে ১৫ মিনিটের বিরতি নেবে। এ সময়ের মধ্যে যাত্রী ওঠানো ও রেলের ইঞ্জিন ঢাকামুখী ঘোরানো হবে।

এরপর ঈশ্বরদী এসে ট্রেনের চালকসহ অপারেশনাল কর্মী বদলের জন্য আরও ১৫ মিনিটের বিরতি থাকবে। পরে ট্রেনটি ঢাকা কমলাপুর স্টেশনে শেষ গন্তব্যে ছেড়ে যাবে। তবে ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশনে কিছুক্ষণের জন্য ট্রেনটি থামানো হবে।

পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের পরিবহন কর্মকর্তা আবদুলাহ আল মামুন জানান, ৮৯৬ যাত্রী ধারণক্ষমতার আধুনিক এই ট্রেনটিতে রয়েছে ১২টি বগি বা কোচ। তার মধ্যে দুটি কেবিন, দুটি এসি ও বাঁকীগুলো চেয়ার কোচ, একটি পাওয়ার কার, একটি খাবার গাড়ি রয়েছে।

এসব বগি ইন্দোনেশিয়া থেকে আনা হয়েছে। বর্তমানে ঈশ্বরদী থেকে ঢাকার মধ্যে অন্য যে ট্রেন সার্ভিস চালু রয়েছে সেটি ১০ টি স্থানে যাত্রা বিরতি করে। এতে সাড়ে ৪ ঘন্টা থেকে ৫ ঘণ্টা সময় লেগে যায়। ননস্টপ এই ট্রেনটি মাত্র সাড়ে ৩ ঘন্টায় এখন ঢাকায় পৌছাবে।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় দপ্তরের বানিজ্যিক কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন জানান, বিরতিহীন এই ট্রেনে রয়েছে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা। আসনগুলো বিলাসবহুল।

ঈশ্বরদী থেকে ঢাকা পর্যন্ত এ ট্রেনের টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে, শোভন চেয়ার ৩২৫ টাকা, এসি (শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত) ৬২০ টাকা ও এসি কেবিন ৭৪১ টাকা। এর সঙ্গে বিরতিহীন সুবিধার জন্য ১০ শতাংশ চার্জ যোগ করতে হবে।

ঈশ্বরদী রেলওয়ে জংশন স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন সুপারিনটেনডেন্ট শেখ আসলাম উদ্দিন জানান, বুধবার (১৭জুলাই) উদ্বোধনীর প্রথম দিনেই শোভন চেয়ারের ৩০টি ও এসি চেয়ারের ৪টি টিকিট বিক্রি হয়েছে।

একদিন পর থেকে ওই টিকিটও বিক্রি করা হবে এ ছাড়া অনলাইনের এই ট্রেনের টিকিট পাওয়া যাবে ২২ জুলাই থেকে।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় দপ্তরের ব্যবস্হাপক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান জানান, বেনাপোল থেকে ঢাকায় যাওয়ার জন্য সরাসরি কোনো ট্রেন সার্ভিস চালু ছিল না।

বর্তমান রেলবান্ধব সরকার ভারতগামী যাত্রীদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য বেনাপোল-ঈশ্বরদী-ঢাকা বিরতিহীন সরাসরি ট্রেন সার্ভিস চালু করেছেন।

ঢাকা-ঈশ্বরদী-বেনাপোল রুটে যাত্রীদের যোগাযোগ ব্যবস্হার উন্নতি ও ব্যবসা- বানিজ্য প্রসার ও চিকিৎসার জন্য কলকাতার সাথে যোগাযোগ ব্যবস্হা সহজ হবে।

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কয়েক জেলার মানুষ এই ট্রেনে সিংহভাগ মানুষ নিরাপদে, কম সময়ে, কম খরচে যাতায়াত করতে পারবে।

রেলপথে যাত্রীসেবা আরো একটি ধাপ এগিয়ে গেল। অল্প খরচে, কম সময়ে, ট্রেনযাত্রীরা স্বাচ্ছন্দ্যদায়কভাবে খুব কম সময়ে পাড়ি দিবে এই ট্রেনটিতে ।


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:১৭
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:৩৮
    যোহরদুপুর ১২:০১
    আছরবিকাল ১৬:৩৩
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:২৩
    এশা রাত ১৯:৫৩
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!