শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ১২:৩২ পূর্বাহ্ন

উত্তরা গণভবনের সেই নতুন অতিথির মৃত্যু

আদর করে নাম রাখা হয়েছিল শুক্লা। গত মঙ্গলবার ভোরে জন্মের পর পরই মা শ্যামা ও বাবা শ্যাম আনন্দে ছোটাছুটি করেছে। নাটোরের দিঘাপতিয়া রাজবাড়ি এবং বর্তমানের উত্তরা গণভবনের মিনি চিড়িয়াখানায় এই হরিণ শাবকের জন্ম হয়।

তার ভূমিষ্ট হওয়ার খবরে ছুটে এসেছিলেন জেলা প্রশাসক মোহম্মদ শাহরিয়াজসহ জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। তারা শুক্লাকে কোলে নিয়ে আদরও করেছিলেন। দর্শনার্থীদেরও ভিড় বেড়ে যায় শুক্লাকে একনজর দেখার জন্য।

জেলা প্রশাসক শাহরিয়াজ নবজাতক হরিণ শাবক শুক্লার পরিচর্যায় যেন কোনো ঘাটতি না হয়, সেদিকে নজর দিতে নির্দেশ দিয়েছিলেন হরিণমালায় কর্মরতদের। চিকিৎসার জন্য উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে তলব করা হয়। সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. সেলিম উদ্দিন পরামর্শ দিয়েছিলেন হরিণ শাবককে তার মায়ের বুকের দুধ খাওয়ানোর। সেই সঙ্গে ঠাণ্ডা যেন না লাগে সেদিকে খেয়াল রাখারও পরামর্শ দেন; কিন্তু এতসবের পরও বাঁচানো যায়নি হরিণ শাবক শুক্লাকে। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় শুক্লা মারা যায়।

এদিকে হরিণ শাবক শুক্লার মৃত্যুর খবর পেয়ে গণভবনে যান জেলা প্রশাসক শাহরিয়াজ। মৃত্যুর কারণ জানতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) ড. রাজ্জাকুল ইসলামকে প্রধান করে তিন সদস্যের কমিটিকে তদন্তের নির্দেশ দেন। ওই কমিটির অপর দুই সদস্যের একজন প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এবং একজন সহকারী কমিশনার। উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ড. সেলিম উদ্দিন শুক্লার ময়নাতদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন জেলা প্রশাসনে। প্রতিবেদনে বলা হয় দুধ খাওয়াতে না পারা ও ঠাণ্ডাজনিত কারণে শুক্লার মৃত্যু হয়েছে।

শাবকটি দুধ খাচ্ছিল না বা খেতে পারছিল না, সে কারণে তিনি প্রাণিসম্পদ বিভাগের চিকিৎসকদের তলব করেছিলেন। তাদের দেওয়া পরামর্শ অনুযায়ী শাবকটিকে খাওয়ানোর চেষ্টা করা হয়। এরপরও বাঁচানো যায়নি শাবকটিকে।


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:৩৯
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:৫৭
    যোহরদুপুর ১১:৪৪
    আছরবিকাল ১৫:৫৩
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৭:৩০
    এশা রাত ১৯:০০
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!