শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন

কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুলের সঙ্গে জয়ার তিন ঘণ্টা

কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুলের সঙ্গে জয়ার তিন ঘণ্টা

রাজশাহী মহানগরীর চৌদ্দপায়ায় বিশ্ববিদ্যালয় হাউজিং সোসাইটির (বিহাস) প্রবেশ গেট দিয়ে ঢুকে দুটি বাড়ির পরের বাড়িটি কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হকের। নাম ‘উজান’। এই বাড়িতেই পুরো তিনটা ঘণ্টা কাটিয়ে গেলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান।

বুধবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত জয়া আহসান সময় কাটান হাসান আজিজুল হকের সঙ্গে। পুরো সময়জুড়ে চলে আড্ডা। হাসান আজিজুল হক জয়াকে শেখালেন দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের আঞ্চলিক ভাষা। আর জয়া আহসান প্রিয় কথাসাহিত্যিককে শোনালেন তার অভিনয়ের অভিজ্ঞতা।

বাড়িতে জয়ার আগমনের খবর আগেই জানতেন গল্পকার হাসান আজিজুল হক। আগের দিন সন্ধ্যায় রাজশাহীতে ঋত্বিক ঘটক চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন হাসান আজিজুল হক। সেই অনুষ্ঠানে সম্মাননা পদক গ্রহণ করতে উপস্থিত হন জয়া আহসান।

সেখানে জয়া আহসান বলেছিলেন, রাজশাহী তার কাছে পূণ্যভূমি। তার দুটি কারণ। একটি ঋত্বিক ঘটক আর অপরটি হাসান আজিজুল হক। এমন অভিব্যক্তি প্রকাশের পর অনুষ্ঠান শেষে প্রিয় কথাসাহিত্যিকের সঙ্গে একান্তে কিছু সময় কাটানোর আবদার করতে ভুল করেননি জয়া।

হাসান আজিজুল হক তাকে হতাশ করেননি। আড্ডা দিতে আমন্ত্রণ জানান বাড়িতেই। পরদিন ঠিকই হাজির জয়া। সঙ্গে রাজশাহী ফিল্ম সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক জাবীদ অপু। সেখানে গিয়ে নিজের বাড়ির মতো সবার সঙ্গে মিশে যান খ্যাতিমান এই অভিনেত্রী। প্রায় পুরো সময়টাই কাটে দোতলা বাড়ির নিচতলায় হাসান আজিজুল হকের লেখার ঘরে।

ঘরে গ্যালারিজুড়ে সাজানো হাসান আজিজুল হকের লেখা নানান বই। প্রিয় লেখকের এতো বই একসঙ্গে দেখে আনন্দে আত্মহারা হয়ে ওঠেন জয়া। হাসান আজিজুলের কাছে তার দ্বিতীয় আবদার, এখান থেকে কয়েকটি বই নেয়ার। বইয়ের পাতায় স্বাক্ষরও করে দিতে হবে গল্পকারকে।

হাসান আজিজুল হক বললেন, এখান থেকে তোমার যে কটি বই পছন্দ, নিতে পার। স্বাক্ষরও করে দিব।

গ্যালারি হাতড়ে জয়া পছন্দ করলেন গল্প সমগ্র, সাবিত্রী উপাখ্যান ও আগুনপাখি ছাড়াও জনপ্রিয় কয়েকটি বই। হাসান আজিজুল হক সবগুলোতেই সই করে দিলেন। তারপর সেসব বই উপহার দিলেন জয়াকে।

কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক রচিত ছোটগল্প ‘খাঁচা’ অবলম্বনে নির্মিত নাট্য চলচ্চিত্র ‘খাঁচায়’ অভিনয় করেছেন জয়া আহসান। এ বছর সিনেমাটি মুক্তি পায়। চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্য ও সংলাপ রচনা করেছেন আকরাম খান। আড্ডার এক ফাঁকে জয়া আহসান ফোন করলেন আকরাম খানকে। মুঠোফোনে আড্ডায় অংশ নিলেন তিনিও। কিছুক্ষণ পর গেলেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সুব্রত মজুমদারও।

হরদম চায়ের কাপে চুমুকের সঙ্গে সঙ্গে জমে উঠল আড্ডা। তিনটা ঘণ্টা কীভাবে কেটে গেল, যেন বুঝতেই পারলেন না কেউ। ঘড়ির কাটায় যখন দুপুর ২টা, তখন জয়াকে উঠতে হলো। কারণ, একটু পরেই যে তার রাজশাহী ছাড়ার বিমান। ‘উজান’ ছাড়ার আগে অভিনেত্রী কয়েকটি ছবিও তুললেন কথাসাহিত্যিকের সঙ্গে।

বিদায়ের আগে জয়াকে আবার আসার আমন্ত্রণ জানালেন হাসান আজিজুল হক। জয়া বললেন, এই দিনের তিনটা ঘণ্টা তার সেরা সময়গুলোর একটা। তাই এমন সময় আবার ফিরে পেতে তিনি নিশ্চয় আবার আসবেন। শুধু সুযোগের অপেক্ষা।


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:৩৯
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:৫৭
    যোহরদুপুর ১১:৪৩
    আছরবিকাল ১৫:৫২
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৭:২৯
    এশা রাত ১৮:৫৯
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!