বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৫:৩৮ অপরাহ্ন

গ্রামীণফোন ব্যবহারকারীদের ‘গলার কাঁটা’ জিপে

নম্বর অপরিবর্তিত রেখে অপারেটর বদল বা মোবাইল নম্বর পোর্টেবিলিটি (এমএনপি) সেবার পরীক্ষামূলক কার্যক্রম শুরুর প্রায় চার দিন হলো। এরই মধ্যে গ্রাহক ধরে রাখতে অনেকটা যুদ্ধক্ষেত্র তৈরি হয়েছে অপারেটরগুলোর মধ্যে। অন্যান্য অপারেটরে এমএনপি সেবা নেওয়ার ক্ষেত্রে বাধা না থাকলেও বাগড়া দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে।

ব্যবহারকারীদের অভিযোগ, এমএনপি চালুর দিন থেকে এখন পর্যন্ত নানা ছলছাতুরিতে গ্রাহক আটকে রাখার চেষ্টা করছে এই অপারেটরটি। গ্রাহক আটকে রাখতে তাদের নিজস্ব ওয়ালেট জিপেকে আশ্রয় হিসেবে বেছে নিয়েছে গ্রামীণফোন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চালুর দিন থেকেই গ্রাহকদের এমএনপি সুবিধা দেওয়ার কথা ছিল সব অপারেটরের। অন্য সব অপারেটরের মতো গ্রামীণফোনও সীমিত আকারে এই সুবিধা দিচ্ছে। কিন্তু অপারেটরটির ডিজিটাল ওয়ালেট জিপে ব্যবহারকারীরা পড়েছেন বিপাকে। ১ নভেম্বরের আগ পর্যন্ত সেই সুবিধা নিতে পারছেন না তাদের উল্লেখযোগ্য অংশ।

জিপে রেজিস্ট্রেশনকারী যেসব গ্রাহক গ্রামীণফোনের কলরেট, ইন্টারনেট প্যাকেজ, কলড্রপ সমস্যা নিয়ে বিরক্ত, এমএনপি সুবিধা নিতে তাদের গুনতে হবে আরও প্রায় এক মাস। একই সঙ্গে শর্তের ফাঁকফোকর তো রয়েছেই।

ব্যবহারকারীদের যত অভিযোগ

গ্রামীণফোনের জিপে ব্যবহারকারীরা অপারেটরটির কর্মকাণ্ডে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে।

মেহেদি হাসান নামের এক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘তারা (গ্রামীণফোন) একটা ইস্যু দেখাইয়া হইলেও গ্রাহক আটকাবেই। তারা এমএনপি করতে দিবে না…আমার তো মনে হচ্ছে, জোরপূর্বক তারা গ্রাহক রাখতে চাচ্ছে। মনে হচ্ছে একটা চক্রান্ত এটা।’

সোমরিতা মোহন সাহা নামের অপর এক ব্যবহারকারী ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে লিখেন, ‘গ্রামীণফোন জিপে ওয়ালেট বন্ধ করে দিচ্ছে না। আর জিপে ওয়ালেট চালু থাকলে নাকি কোনোদিনই এমএনপি সেবা নিতে পারব না। কিছু করেন জনাব মোস্তাফা জব্বার স্যার।’

মোহাম্মদ মুশফিকুর রহমান নামের একজন লিখেন, ‘গ্রামীণফোন থেকে এমএনপি সুবিধা দিচ্ছে না।
আমি জিপি থেকে রবিতে যেতে চাই।’

অপারেটররাও দিয়েছে অভিযোগ

১ অক্টোবর এমএনপি চালুর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) কাছে অভিযোগ দিয়েছে দেশের দুই মোবাইল অপারেটর রবি ও বাংলালিংক।

অপারেটর দুটির দাবি, এমএনপি চালুর পর থেকে এই দুই অপারেটরে গ্রামীণফোনের গ্রাহক বেশি এলেও আবেদনগুলো সফল হচ্ছে না।

১ থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে দেওয়া বক্তব্যে এবং ৩ অক্টোবর প্রিয়.কমের কাছে এমন অভিযোগ করেছে রবি ও বাংলালিংক।

অপারেটর দুটির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, অন্যান্য অপারেটর থেকে গ্রাহক স্থানান্তরের সাফল্যের হার বেশি হলেও জিপি থেকে তা মাত্র শূন্য থেকে আড়াই শতাংশ। তাদের দাবি, গ্রামীণ থেকেই বেশি গ্রাহক আসতে চায় তাদের অপারেটরে।

গ্রামীণফোনের ভাষ্য

এমন সব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ৪ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার বিকেলে গ্রামীণফোনের কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করে প্রিয়.কম। কাস্টমার কেয়ার থেকে বলা হয়, জিপেতে থাকা গ্রামীণফোনের ব্যবহারকারীরা ১ নভেম্বরের আগে এমএনপি সুবিধা পাবেন না।

গ্রামীণফোনের কাস্টমার কেয়ার থেকে আরও জানানো হয়, যেসব জিপি গ্রাহকের জিপে চালু রয়েছে, নভেম্বরে তাদের এমএনপি সুবিধা নিতে হলে অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স শূন্য করতে হবে। এর আগে মিলবে না এই সুবিধা।

গ্রামীণফোনের ভাষ্য জানতে ই-মেইলের মাধ্যমেও করা হয় পাঁচটি প্রশ্ন। এসবের মধ্যে রয়েছে অন্য ওয়ালেটের ব্যবহারকারীরা এমএনপি সুবিধা নিতে পারলেও গ্রামীণফোন ব্যবহারকারীরা এই সুবিধা নিতে পারছে না কেন, জিপি এমএনপি সুবিধা নিতে গ্রাহকদের বাধা দিচ্ছে বলে যে অভিযোগ রয়েছে, সে বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির ভাষ্য।

এসব প্রশ্নের উত্তরে গ্রামীণফোনের হেড অব কমিউনিকেশন সৈয়দ তালাত কামাল ভোগান্তির বিষয়টি সরাসরি স্বীকার না করে বলেন, ‘বিটিআরসির নির্দেশনা অনুযায়ী সকল অপারেটরের নিজস্ব ডিজিটাল ওয়ালেটে গ্রাহকদের ব্যালেন্স শূন্য থাকা সাপেক্ষে ৭ অক্টোবর থেকে এমএনপি সেবা উপভোগ করতে পারবেন। শূন্যের অধিক ব্যালেন্স থাকা গ্রাহকরা পাওনা ত্যাগ করে ১ নভেম্বর থেকে সেবা নিতে পারবেন।’

বক্তব্য মেলেনি বিটিআরসির

গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগের বিষয়ে জানতে এমএনপি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান ইনফোজিলিয়ন টেলিটেক বিডির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মাবরুর হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি বিটিআরসির সঙ্গে কথা বলতে বলেন।

মাবরুরের কথা অনুযায়ী বিটিআরসির চেয়ারম্যান জহুরুল হকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। গ্রামীণফোনের বিরুদ্ধে এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিটিআরসির পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বিটিআরসির জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) জাকির হোসেন খানের সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেন।

জহুরুল বলেন, ‘আপনি তার সঙ্গে যোগাযোগ করুন। এ বিষয়ে কথা বলার রাইট নেই আমাদের। তিনি আপনাকে ইনফো দেবেন।’

জহুরুলের কথামতো জাকির হোসেন খানের মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও কলগুলো রিসিভ হয়নি।


বিজয় নিশান উড়ছে ঐ…

© All rights reserved 2018 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!