বুধবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন

চলনবিলে নৌকাডুবি- শিশু সুমনের বুদ্ধিমত্তায় বাঁচলো ১০ প্রাণ

ডুবে যাওয়া নৌকা উদ্ধার করা হচ্ছে।

 

রনি ইমরান : আমাদের দেশে হবে সেই ছেলে কবে কথায় না বড় হয়ে কাজে বড় হবে। গ্রাম বাংলার দামাল এ মাটির সূর্যসন্তান সুমন বীরত্বের সাথে বাঁচালো ১০ জনকে।

সুমনের উপস্থিত বুদ্ধিমত্তায় প্রাণে বেচে গেল প্রাণগুলো। চলনবিলে নৌকা ডুবে যাওয়া দেখে সাহসিকতার সাথে তাৎক্ষনিক সে পানিতে নেমে একে একে উদ্ধার করলেন দশজনকে।

সুমন হোসেন ঘটনার দিনে নিজেই দশজনকে উদ্ধার করে মানবতার চরম দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন।

ইতোমধ্যেই তার এই বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ‘বীর’ উপাধী দিয়ে পুরস্কৃত করেছেন পাবনার জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন।

দুর্ঘটনাস্থলে উদ্ধার অভিযান নিজ চোখে দেখতে ছুটে যান পাবনার জেলা প্রশাসক। মাবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করায় সুমনের প্রশংসা করে জেলা প্রশাসক বলেন, ‘আমাদের দেশের সোনার সন্তান এরাই।’

এই শিশু সুমন পাবনার চলনবিল অধ্যুষিত হান্ডিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র।

পাবনার চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়াল পাইকপাড়া গ্রামের হতদরিদ্র কৃষক আব্দুস সামাদ ও সুফিয়া খাতুনের কৃতি সন্তান সুমন।

গত শুক্রবার ঘটনার সময় শিশু সুমন বিলের মধ্যে ছোট ডিঙ্গী নৌকা নিয়ে প্রতিবেশী এক চাচাকে জলা পাড় করে বাড়ি ফিরছিল।

এমন সময় তার পাশেই ২২ জন যাত্রী বোঝাই একটি নৌকা ডুবে যায়। ডুবে যাওয়া যাত্রীদের আর্ত চিৎকার শুনে তাৎক্ষনিক সুমন নৌকা নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।

সুমন তার বুদ্ধিমত্তায় সবাইকে ছোট নৌকায় না তুলে নৌকা ধরতে বলে এবং পরে তাদের নৌকা ধরা অবস্থায় বিলের পাড়ে নিয়ে যায়।

এ কারনেই প্রাণে বেঁচে যান প্রায় ১০ জন।

পাবনা জেলা প্রশাসকের সাথে শিশু সুমন।

পাড়ে এসে সুমনকে বেঁচে যাওয়া মানুষগুলো সাধুবাদ জানায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরীদেরকেও উদ্ধার কাজে সহায়তা করে সুমন।

এ বিষয়ে শিশু সুমন বলেন, আমার ছোট নৌকাটি ধরে ১০ জনকে জীবিত উদ্ধার করতে পারায় আমি খুশি।

সে আরো জানায়, ঘটনার সময় যাত্রীরা নৌকাটির ছইয়ের উপর দাড়িয়ে সবাই সেলফি তুলতে গিয়ে ছই ভেঙ্গে যায়। এ সময় সবাই তারাহুরো করে ছই থেকে নামাতে গিয়ে নৌকাটি কাৎ হয়ে ডুবে যায়।

পাবনার চাটমোহর চলনবিল এলাকায় গত শুক্রবারের এ নৌ দুর্ঘটনায় ৫ জনের প্রাণহানীর ঘটনা ঘটে।

 

 


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৫:১০
    সূর্যোদয়ভোর ০৬:২৮
    যোহরদুপুর ১২:১২
    আছরবিকাল ১৬:১৯
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৭:৫৬
    এশা রাত ১৯:২৬
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!