মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০২:৫১ পূর্বাহ্ন

চাটমোহরের এক সময়ের পাকা রাস্তা এখন জলাশয়!

স্টাফ রিপোর্টার : চাটমোহর পৌরসভার প্রধান সড়কটি দেখলে যে কেউ মনে করবে এটা সড়ক নয়, যেন জলাশয়।

দীর্ঘদিন সংস্কারের অভাবে চাটমোহর বাসস্ট্যান্ড হতে হাসপাতাল পর্যন্ত সড়কের অধিকাংশ জায়গা খানাখন্দে ভরপুর। সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় গর্তের।

অনেক আগেই পিচ, পাথর ও খোয়া উঠে মাটি বের হয়ে সড়কে তৈরি হয়েছে এই জলাশয় সাদৃশ্য বড় বড় গর্তের।

গত কয়েক দিনের বৃষ্টিপাতে সে গর্তগুলোতে পানি জমে থাকায় দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে চলাচলকারী যানবাহন ও সাধারণ মানুষ। পানি জমে থাকার কারণে গর্তের গভীরতা বুঝতে পারছেন না যানবাহন চালকরা। ফলে ঘটছে দুর্ঘটনা।

পৌরবাসীরা বলেন, বারবার সড়ক সংস্কারের দাবি জানালেও তা গ্রাহ্য করছে না পৌর কর্তৃপক্ষ। বরং বারবার পৌর মেয়র প্রতিশ্রুতি দিয়ে চলেছেন। কিন্তু বাস্তবায়নের লক্ষণ নেই।

এদিকে পৌরসভা বলছে সড়কটি সড়ক ও জনপথ বিভাগের। তাই তাদের কিছু করার নেই। সড়ক ও জনপথ বিভাগ বলছে সংস্কার হবে দ্রুতই। তাও হচ্ছে না। সড়কটি জনগুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় এলাকাবাসী সংস্কারের দাবি জানিয়েও কোন ফল পাচ্ছে না।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, পৌর শহরের মধ্যে চাটমোহর পুরাতন বাজার থেকে উপজেলা পরিষদ এলাকা হয়ে নতুন বাজার হাইস্কুল মোড়, জিরো পয়েন্ট থেকে বোঁথর ব্রিজ, শাহী মসজিদ মোড় থেকে ভাদুনগর বাইপাস, সাহাপাড়া থেকে শাপলা ক্লাব হয়ে স্টার মোড়সহ বিভিন্ন মহল্লার অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোতে তৈরি হয়েছে অসংখ্য খানাখন্দের।

সামান্য বৃষ্টি হলেই জমে যায় পানি। দীর্ঘদিন ধরে ভাঙাচোরা এই সড়কে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন চালক ও সাধারণ মানুষ। ব্যবসা-বাণিজ্যে দেখা দিয়েছে মন্দাভাব।

সড়কের পাশেই রয়েছে বেশ কয়েকটি স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা, ব্যাংক, থানা, পোস্ট অফিস, হাসপাতালসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান।

এদিকে এলজিইডি এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের রাস্তাগুলোরও বেহাল দশা। চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে সড়কগুলো। দু’একটি সড়কের সংস্কার কাজ শুরু হলেও তা চলছে ধীরগতিতে।

সওজের আওতাধীন রাস্তার মধ্যে বাসস্ট্যান্ড থেকে হরিপুর হয়ে সোন্দভা বাসস্ট্যান্ড, নতুন বাজার হতে পার্শ্বডাঙ্গা, চাটমোহর থেকে হান্ডিয়াল হয়ে মান্নাননগর পর্যন্ত রাস্তা চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।

চাটমোহর পৌর সভার মেয়র মির্জা রেজাউল করিম দুলাল বলেছেন, পৌরসভার মধ্যে কিছু রাস্তার কাজ শুরু হয়েছিল। কিন্তু বৃষ্টির কারণে সব কাজ বন্ধ হয়ে গেছে। বৃষ্টি কমলে আবারও কাজ শুরু হবে।

সড়ক সংস্কারের ব্যাপারে পাবনা সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সমীরণ রায় বলেছেন, বেশ কিছু রাস্তা প্রকল্পের মধ্যে আছে। কাজ শুরু হয়েছে। কিন্তু বৃষ্টির কারণে এখন কাজ বন্ধ রয়েছে। বৃষ্টি কমলে ফের সংস্কার কাজ শুরু হবে।


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:২৭
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:৪৫
    যোহরদুপুর ১১:৫৩
    আছরবিকাল ১৬:১৮
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:০১
    এশা রাত ১৯:৩১
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!