বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ১২:৪০ অপরাহ্ন

টাকা নিয়ে কমিটি গঠনের অভিযোগ প্রত‌্যাখ‌্যান করল পাবনা যুবলীগ

বার্তা সংস্থা পিপ, পাবনা : ৫ থেকে ৭ কোটি টাকার বিনিময়ে পাবনা জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে সাবেক যুবলীগের এক নেতার এমন বক্তব্যের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে পাবনা জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির নেতারা।

তারা বলেন, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড, চাঁদাবাজী, অযোগ্যতা এবং ব্যর্থতার কারণেই বিগত কমিটি বাতিল করে আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়।

রোববার (২০ অক্টোবর) দুপুরে পাবনা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা যুবলীগের আহবায়ক আলী মর্তুজা বিশ্বাস সনি।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, ১৭ বছরের অধিক সময়ের মেয়াদর্ত্তীণ ও নিস্ক্রিয় পাবনা জেলা যুবলীদের কমিটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিদের্শে ভেঙ্গে দিয়ে চলতি বছরের ৪ জুলাই ২৫ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করে কেন্দ্রীয় যুবলীগ ন্যয় সঙ্গতভাবে তা অনুমোদন করেন।

বর্তমান কমিটি ইতোমধ্যে দুইটি উপজেলায় সম্মেলন এবং অন্য সব উপজেলায় বর্ধিত সভা সম্পন্ন করেছে।

লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক রাকিব হাসান টিপু যে বক্তব্য দিয়েছে তা সম্পুর্ন অসত্য ভিত্তিহীন এবং প্রধানমন্ত্রীর চলমান শুদ্ধি অভিযান থেকে বাঁচার কৌশল।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শিবলী সাদিক, শেখ শাকিরুল ইসলাম রনি, আহবায়ক কমিটির সদস্য ফাইমুল কবির শান্ত, আনোয়ার হোসেন লালু, এম এইচ হিমেলসহ অনেকে।

যুবলীগের আহবায়ক আলী মর্তুজা বিশ্বাস সনি আরও বলেন, টিপুর বিরদ্ধে পাবনার বড় বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় চাঁদাবাজি দখলবাজী ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে।

কয়েকজন ‘বিতর্কিত’ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ মদদে টিপু এসব অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা দল ও প্রশাসনের নিকট এসব অভিযোগের সুষ্ঠ প্রতিকার প্রত্যাশা করি।

তিনি বলেন, টিপুর কমিটি গত ১৭ বছরে যা করতে পারেনি আমরা মাত্র দুই মাসে তা করে প্রমাণ করেছি। স্বচ্ছতা এবং সুন্দর ভাবে দল পরিচালনা করে মানুষের আস্থা অর্জন করা সম্ভব।

যুবলীগের আহবায়ক আলী মতুর্জা বিশ্বাস সনি বলেন, একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে পাবনা জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি গঠন সম্পর্কে দু‘জন সাবেক নেতার বিতর্কিত বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানান।

দেশের রাজনীতিতে সচ্ছতা এবং পরিবর্তন লক্ষ করতে পারছেন আপনারা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দলের প্রধানের নির্দেশে এই আহবায়ক কমিটির অনুমোদন হয়েছে। আমরা কাউকে অর্থ দিয়ে বা অর্থের বিনিময়ে রাজনীতি বা কমিটি করিনি।

এটা আগের কমিটিতে থাকা ব্যার্থ সভাপতি ও সম্পাদক আমাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

এসময় সাংবাদিকদের প্রশ্নত্তোর পর্বে তিনি বলেন, আমরা পরিষ্কারভাবে বলতে চাই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর মাননীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা দলকে শক্তিশালী করতে যুবলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনগুলোর মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি পুনঃগঠনের নির্দেশ দেন।

তারই পরিপ্রেক্ষিতে চলতি বছরের ৪ জুলাই ১৭ বছরের অধিক সময়ের মেয়াদোত্তীর্ণ ও নিষ্ক্রিয় পাবনা জেলা যুবলীগের কমিটি ভেঙ্গে দেয়া হয়।
প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ২৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহবায়ক কমিটি গঠন হয়েছে।
যেখানে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদক পুনঃ গঠনতন্ত্রের আলোকে যৌথ স্বাক্ষরে পাবনা জেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটি অনুমোদন করেন।

কাজেই ৫/৭ কোটি টাকা দিয়ে চেয়ারম্যানকে ম্যানেজ করে পাবনা জেলা কমিটি গঠন করা নিয়ে যে বক্তব্য দেওয়া হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট এবং গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে আমরা মনে করছি।

তিনি আরো বলেন, পাবনা জেলা যুবলীগের দুর্নীতিবাজ ও ব্যর্থ সাবেক সাধারণ সম্পাদক রকিব হাসান টিপু ব্যক্তিস্বার্থে টেলিভিশনে যে বক্তব্য প্রদান করেছেন- তা অত্যান্ত গর্হিত ও ভিত্তিহীন।

তিনি আরো বলেন, আহ্বায়ক কমিটি গঠনের পর পরই সুজানগর ও সাঁথিয়া উপজেলায় বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে আমরা সম্মেলন সম্পন্ন করেছি।
জেলার অন্যান্য উপজেলায় বর্ধিত সভাসহ রাজনৈতিক কর্মসূচিগুলো পালন করে যাচ্ছি। বর্তমানে নতুন উদ্যমে জেলা যুবলীগ কর্মীদের মধ্যে চাঙ্গাভাব পরিচালিত হচ্ছে।

নতুন উদ্যমে যখন পাবনা জেলা যুবলীগ পুনঃগঠন শুরু হয়েছে তখন কেন্দ্রীয় যুবলীগের এই ডামাডোলে পাবনা জেলা যুবলীগের কমিটিকে বির্তকিত এবং প্রশ্নবিদ্ধ করার লক্ষে একটি মহল মরিয়া হয়ে উঠেছে।

তাই সাংবাদিক ভাইদের কাছে আমাদের অনুরোধ সঠিক এবং নির্ভুল তথ্যদিয়ে সংবাদ প্রচারের জন্য আপনাদের সহযোগিতা প্রত্যাশা করছি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শিবলী সাদিক, শেখ সাকিরুল ইসলাম রনি, যুবলীগ নেতা ফাহিমুল কবির খান শান্ত, শেখ আনায়ার হোসেন লালু, আব্দুল্লাহ আল মামুন বাবু, মামুন হায়দার রনি, শাহিনুর রহমান পলাশ, ওসমান গনি, আরিফুল রহমান টিংকু, ফজলে শাহরিয়ার বিপু, সৌহাদ্য বসাক সুমন, রাজ আহমেদ রনি, নাসির উদ্দিন শুভ, আসিফ ইকবাল জনি, আহসান হাবিব, সোহানুর রহমান সোহান, এইচ এম হিমেল, শাকিল খান, আজমল শেখ, আব্দুল্লাহ আল মামুন, মো. সাজ্জাদুর রহমান তারেক, একরাম হোসেন, মো: আহসানল্লাহ ও মাহবুবুর রহমান মামুন।


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:৫২
    সূর্যোদয়ভোর ০৬:১২
    যোহরদুপুর ১১:৪৩
    আছরবিকাল ১৫:৩৮
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৭:১৩
    এশা রাত ১৮:৪৩
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!