শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯, ০১:৪৪ অপরাহ্ন

টুইটারের কাছে তথ্য চেয়েছে সরকার

টুইটারের কাছে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে এক ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে। টুইটারের ট্রান্সপারেন্সি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছর জানুয়ারি থেকে জুন মাসের মধ্যে ওই অ্যাকাউন্ট সম্পর্কিত তথ্য জানতে চেয়েছে সরকার।

তবে বাংলাদেশ সরকারের এমন অনুরোধে সাড়া দেয়নি টুইটার কর্তৃপক্ষ। টুইটার তাদের ওয়েবসাইটে ট্রান্সপারেন্সি প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেছে। মূলত ছয় মাস পরপর এমন প্রতিবেদন প্রকাশ করে টুইটার কর্তৃপক্ষ। যেখানে কোনো দেশের সরকারের পক্ষ থেকে তাদের কাছে কত তথ্য জানতে চাওয়া হয় এবং সেগুলো সরবরাহ করা হয় কিনা তা জানায় মাইক্রোব্লগিং সাইটটি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, টুইটার ছয় মাসে ৩৮ দেশ থেকে মোট ছয় হাজার ৯০টি অনুরোধে ১৬ হাজার ৮৮২টি অ্যাকাউন্টের তথ্য চেয়েছে। এবারই প্রথম ওমান এবং পানামা তথ্য চেয়েছে টুইটারের কাছে। টুইটার সেসব অনুরোধ যাচাই-বাছাই করে ৫৬ শতাংশ ক্ষেত্রে তথ্য সরবরাহ করেছে। ওই প্রতিবেদনের বাংলাদেশ অংশে দেখা যায়, বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে এবার শুধু একটি অ্যাকাউন্টেরই তথ্য চাওয়া হয়েছে।

সরকার ২০১৬ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর মাসের মধ্যে চারটি অনুরোধ করেছিল সরকার, যাতে সাড়া দিয়েছিল টুইটার। সেবার সবক’টি অ্যাকাউন্টের তথ্য দিয়েছিল টুইটার কর্তৃপক্ষ। তবে এবারে চাওয়া তথ্যটি জরুরি প্রকাশের অনুরোধ বা ইমার্জেন্সি ডিসক্লোজার রিকোয়েস্ট ছিল।

এ নিয়ে এখন পর্যন্ত সর্বমোট টুইটারের কাছে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ১৫টি অনুরোধ গেছে। সবই ছিল জরুরি তথ্য পাওয়ার অনুরোধ। -আইটি ডেস্ক


© All rights reserved 2018 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!