বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন

ট্রাফিকের হাত থেকে পালাতে গিয়ে প্রাণ গেল মোটরসাইকেল আরোহীর

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারীতে ট্রাফিক পরিদর্শকের (টিআই) ধাওয়া খেয়ে পালাতে গিয়ে ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা লেগে খায়রুল আলম খোকন নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন রানা নামের একজন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সোনাহাট কলেজ মোড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ট্র্রাফিকের পরিদর্শক (টিআই) মোস্তাফিজুর রহমানকে আটক করে সোনাহাট ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে অবরুদ্ধ করে রাখেন স্থানীয়রা। এছাড়াও তার মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা।

নিহত খোকন উপজেলার শিলখুড়ি ইউনিয়নের উত্তরছাট গোপালপুর ঢলডাঙ্গা বাজার এলাকার জামাল উদ্দিনের ছেলে। তিনি একটি কিন্ডার গার্টেনের প্রধান শিক্ষক ছিলেন এবং উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য। আহত রানা একই এলাকার আইয়ুব আলীর ছেলে। তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরে সোনাহাট স্থলবন্দরের দিক থেকে মোটরসাইকেলে আসছিলেন খোকন ও রানা। সোনাহাট কলেজ মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ দেখে তারা দ্রুত মোটরসাইকেল চালিয়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় পেছন থেকে ট্রাফিক পুলিশ তাদের ধাওয়া দিলে দ্রুত পালাতে গিয়ে ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা লেগে দুজনই আহত হন। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে খোকনের মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে ভুরুঙ্গামারী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পুলিশ ভ্যানেও আগুন দেয় জনতা। পরে নাগেশ্বরী থানা পুলিশ গিয়েও পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে না পারলে কুড়িগ্রাম সদর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনস্থলে যায়। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ার সেল ও রাবার বুলেট ছুঁড়ে পুলিশ। এতে বেশ অনেকে আহত হন।

সোনাহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান আলী মোল্লা জানান, ঘটনাটি মর্মান্তিক।

ভুরুঙ্গামারী থানার ওসি ইমতিয়াজ কবির জানান, ভুরুঙ্গামারী থানার ইউএনও মাগফুরুল ইসলাম আব্বাসি ঘটনাস্থলে এসে আলোচনা করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেছেন।


বিজয় নিশান উড়ছে ঐ…

© All rights reserved 2018 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!