বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৪:২৯ অপরাহ্ন

নির্বাচনকে সামনে রেখে পিসিজেএসএস এর অপতৎপরতা

আগামী ডিসেম্বরের শেষের দিকে অনুষ্ঠিত হতে পারে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। আর এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইতোমধ্যে সারাদেশে নানা অপতৎপরতা শুরু হয়েছে। পার্বত্য চট্টগ্রামও এই অপতৎপরতার বাইরে নয়। পিসিজেএসএস নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পার্বত্য চট্টগ্রামে নানা অপতৎপরতা শুরু করে দিয়েছে।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস) ও ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) একত্রিত হয়ে নিরীহ উপজাতিদের হুমকি প্রদান, ইউপিডিএফ এর সন্ত্রাসীদের আশ্রয় প্রদান, চাঁদাবাজিসহ নানা অপতৎপরতা শুরু করেছে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তিবিরোধী ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট নামেই শুধুমাত্র ডেমোক্রেটিক। তবে জন্ম লগ্ন থেকেই সংগঠনটি প্রশ্নবিদ্ধ। সংগঠনটি পার্বত্য চট্টগ্রামে গুন্ডুষ নামেই বেশি পরিচিত। পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির বিরোধীতা করে ১৯৯৮ সালে সৃষ্টি হলেও ষড়যন্ত্রের শেকড় গজিয়েছিল বহু আগেই। ইউপিডিএফ সন্ত্রাসী সংগঠনের কর্মকাণ্ডের কারণে পাহাড়ের মানুষ সব সময় আতঙ্কে থাকে।

গোপন সূত্রে জানা যায়, নির্বাচনের আগে পিসিজেএসএস পাহাড়ে আধিপত্য বিস্তার করতে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ শুরু করে দিয়েছে। তারা পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন পাড়া ও মহল্লায় বৈঠকের মাধ্যমে নিরীহ ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদের হুমকি প্রদান করছে। হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ এর সমর্থন আদায় করতে নানা ধরনের গুজব ছড়িয়ে। জেএসএস (এম এন লারমা) এবং ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক) এর নেতা-কর্মীদের উপর হামলার পরিকল্পনাও করছে পিসিজেএসএস। নির্বাচনের সময় নাশকতা করার উদ্দেশে ইউপিডিএফ সন্ত্রাসী নেতা-কর্মীদের আশ্রয় প্রদান করছে। নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের নিমিত্তে পার্বত্যবাসীদের কাছ থেকে ব্যাপক চাঁদাবাজি করছে। বামপন্থী সংগঠনের সমর্থন পেতে শীর্ষ নেতৃবৃন্দের সাথেও যোগাযোগ করছে পিসিজেএসএস।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর পক্ষে একজন জানায়, পিসিজেএসএস কর্মীরা তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দিচ্ছে। নির্বাচনী ব্যয় নির্বাহের জন্যে তাদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করছে । নির্বাচনে যে পিসিজেএসএস কে সমর্থন দিবে না তাকে পাহাড়ে থাকতে দিবেনা বলেও হুমকি দিচ্ছে পিসিজেএসএস কর্মীরা।

পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস) ও ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে আখ্যা দিয়ে সাধারণ জনগণ বলেন, পাহাড়ে শান্তি বিনষ্টকারীদের রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে হবে।

নির্বাচনের আগে সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে নতুন করে পার্বত্য চট্টগ্রামে নানা অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে পিসিজেএসএস ও তার বা তাদের সহযোগীরা।


বিজয় নিশান উড়ছে ঐ…

© All rights reserved 2018 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!