মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১০:৪২ অপরাহ্ন

পাবনার রায়কে ‘হাস্যকর’ বললেন সেলিমা রহমান

বার্তাকক্ষ : পাবনার ঈশ্বরদীতে ১৯৯৪ সালে শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলিবর্ষণের ঘটনার মামলার রায়ের সমালোচনা করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান।

আজ শুক্রবার (১২ জুলাই) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “আপনারা পাবনার ঘটনা দেখেন। পাবনার একটি আদালত থেকে যে রায়টা এসেছে এটা সত্যিকার অর্থে হাস্যকর রায় হয়েছে।”

“কারণ ২৫ বছরের আগের ঘটনা যেখানে কেউ আহত হয় নাই, কারও গায়ে একটা আঁচড় পর্যন্ত লাগে নাই, সেখানে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে, সেখানে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে। আমরা কাদের ওপর ভরসা করব? আমরা তো জাজদের ওপর ভরসা করি, আমরা আশা করি ন্যায় বিচার পাব। কিন্তু কী হচ্ছে?”

পাবনার ঈশ্বরদীতে ১৯৯৪ সালে শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনে বোমা হামলা ও গুলিবর্ষণ হয়েছিল। ওই ঘটনায় দায়ের করা মামলায় পাবনার আদালত গত ৩ জুলাই বিএনপির ৯ জনকে মৃত্যুদণ্ড এবং ২৫ জনকে যাবজ্জীবন, ১৩ জনকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়।

বক্তব্যে নারী ও শিশু ধর্ষণের ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়ে সেলিমা রহমান বলেন, “সরকার দেশের বিচার ব্যবস্থাকে সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দিয়েছে। যে কারণে ধর্ষণ আজকে মহা উৎসবে পরিণত হয়েছে। শিশু থেকে ৮০ বছরের বৃদ্ধা পর্যন্ত এর হাত থেকে নিস্তার পাচ্ছে না, শিশুরাও আজকে নিরাপদ নয়। কেন এটা হচ্ছে?

“কারণ দেশে কোনো বিচার নাই, কোনো বিচার ব্যবস্থা নাই। আজকে সম্পূর্ণ বিচার একটি কার্যালয় থেকে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে, আইনমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে। কোনো জজ (বিচারক) নিরপেক্ষভাবে রায় দিতে পারছেন না।”

জনগণের ‘পকেট কেটে’ উন্নয়ন হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য।

তিনি বলেন, “আমরা দেখছি, বিভিন্ন করের বোঝা চাপিয়ে জনগণের পকেট কেটে আজকে উন্নয়নের কথা বলা হচ্ছে। গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে, যে গ্যাস বাংলাদেশে বিনিয়োগ বলেন, শিল্পায়ন বলেন প্রতিটি ক্ষেত্রে অপরিহার্য, সেখানে গ্যাসের দাম বাড়িয়ে জনগণের পকেট থেকে সেই কর নেওয়া হচ্ছে।

“আর বলা হচ্ছে, উন্নয়ন চাইলে আপনাদেরকে এই দাম দিতেই হবে। কিসের উন্নয়ন? আগে মানুষের নিরাপত্তা। হ্যাঁ, আমরা অবকাঠামোর উন্নয়ন চাই। জনগণকে বাইরে রেখে কখনো উন্নয়ন হতে পারে না।”

সরকার জনগণের ‘মৌলিক চাহিদার বিষয়ে সম্পূর্ণ উদাসীন’ বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এক বক্তব্যের সমালোচনা করে সেলিমা রহমান বলেন, ”গণতন্ত্রের মাতা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় অভিযুক্ত করে কারাগারে আটকিয়ে রাখা হয়েছে। শুধুমাত্র কারারুদ্ধই করে রাখে নাই, তিনি অসুস্থ, সেই অসুস্থ অবস্থায় তাকে মেরে ফেলার চেষ্টা হচ্ছে।

“কারণ তারা (সরকার) দেশনেত্রীকে ভয় পায়। শুধু তাই নয়, তারা আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে মিথ্যা মামলা দিয়ে নির্বাসিত করে রেখেছে, তাকে দেশে আসতে দেওয়া হচ্ছে না। ওঁৎ পেতে আছে কীভাবে তাকে শেষ করবে।”

বাংলাদেশ ছাত্র মিশনের কাউন্সিলে বক্তব্য দেন সেলিমা রহমান। এই কাউন্সিলে ছাত্র মিশনের সভাপতি সৈয়দ মো. মিলন ও সাধারণ সম্পাদক মো. শরীফুল ইসলামের নেতৃত্বে ২৩ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটির নাম ঘোষণা করেন লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান।

সৈয়দ মো. মিলনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় লেবার পার্টির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ফারুক রহমান, সহ-সভাপতি এসএম ইউসুফ আলী, যুগ্ম মহাসচিব হুসাইন কবির, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মেজবাউল ইসলাম সজীব, শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্যজোটের মহাসচিব জাকির হোসেন, ছাত্র মিশনের নাসুরুল্লাহ তালুকদার ইমন, পিন্টু আরিফুজ্জামানসহ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।- বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৩:৫২
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:২১
    যোহরদুপুর ১২:০৪
    আছরবিকাল ১৬:৪৪
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:৪৮
    এশা রাত ২০:১৮
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!