মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ০৪:৪৬ পূর্বাহ্ন

পাবনায় দেড় শতাধিক সংখ্যালঘু পরিবারের রাস্তা মাত্র দেড় ফিট!

দুইঘরের মাঝের ওই রাস্তা দিয়েই যাতায়াত করতে হয় প্রায় ৫০০ মানুষকে।

পাবনা প্রতিনিধি : পাবনার বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানার পুরান ভারেঙ্গা ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের হরিরাথপুর গ্রামের পুকুরচালা পাড়ার মানুষদের চলাচলের রাস্তা মাত্র দেড় ফিট!

স্থানীয় প্রভাবশালীরা দেড় শতাধিক সংখ্যালঘু পরিবারের রাস্তা দখল করে গুদাম ও অফিস ঘর নির্মাণ করে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করেছে।

ফলে ওই সকল পরিবারের প্রায় ৫শ সদস্য বাড়িতে যাতয়াতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে।

এলাকাবাসির অভিযোগ, রাস্তা না রেখে দোকানঘর, গুদামঘর ও অফিস ঘর নির্মাণ করায় তারা বাড়িতে যাতায়াতসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য বিক্রি করতে হাট-বাজারে যেতে পারে না।

ওই দেড় ফিট রাস্তা দিয়ে একজন মানুষ কোন রকমে বের হতে পারলেও কোন আসবাবপত্র অথবা একসাথে একাধিক ব্যক্তি চলাচল করতে পারেনা।

কোন মানুষ অসুস্থ হলে বা মারা গেলে তাকে তিন জন মিলে মাথার উপরে করে এলাকা থেকে বের করতে হয়।

এলকাবাসীর অভিযোগ সবাই বিষয়টি জানলেও মূলত দখলকারীরা প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া যাচ্ছে না।

তারা বলেন- আমরা বিভিন্ন জায়গায় যোগাযোগ করে ধর্ণা দিয়েও কোন সমাধান পায়নি। সমস্যা সমাধানে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

ওই পাড়ার প্রবীন বাসিন্দা তারাপদ দাস বলেন, বাপ-দাদার আমল থেকে দেখেছি এখানে ১০ফিটের একটি মুল রাস্তা ছিল কিন্তু পর্যায়ক্রমে এখানকার প্রভাবশালীরা সেই রাস্তা দখলে নিয়ে কয়েকটি আধা পাকা ও পাকা ইমারত নির্মাণ করেছেন। একশত ফিট লম্বা রাস্তা চওরায় দেড় ফিটে এসে পৌছিয়েছে আমরা হিন্দু মানুষ কিছু বলতে পারি না। ওদের (প্রভাবশালীদের) জায়গা তো দুই শতাংশ করে কিন্তু দখলে নিয়ে আছে ছয়-সাত শতাংশ ।

ওই পাড়ার বাসিন্দা মানিক মিয়া, রিপন কুন্ডু, রবিন্দ্রনাথ ঘোষসহ কয়েকজন বলেন, জন্মের পর থেকে ওই রাস্তাটি আমরা ১০ ফিট চওড়া দেখে আসছি।

কিন্তু গত ১৫-২০ বছর ধরে এই রাস্তা দিয়ে আমরা চরম দুর্ভোগে চলাচল করছি।

এর আগে পাবনা-২ আসনের সাবেক এমপি আজিজুল হক আরজু আমাদের আশ্বাস দিলেও কোন কাজ হয়নি।

জমির মালিক নজরুল ইসলাম বলেন, পিছনে যারা থাকে ওদেরতো নিজের জায়গা না ওরা সবাই অন্যের জায়গায় থাকে।

তবে যাতায়াতের বিষয়টা আমাকে অনেক আগেই বলেছে কিন্তু এখন তা সম্ভব না, পুনরায় যদি ঘর নির্মাণ করি তবে একটু জায়গা রেখে দেব।

আরও এক জমির মালিক আব্দুল আউয়াল বলেন, এই রাস্তার বিষয়ে ওরা সবাই সাবেক এমপি সাহেবের কাছে বলেছিল তাই আমি তার কথা মতই আধাফিট জায়গা রেখেই ঘর তুলেছি । পাশের জায়গার মালিক যদি জায়গা না রাখে তাহলেতো আমার কিছু করার নেই ।

পুরান ভারেঙ্গা ইউনিয়নের ৭নম্বর ওয়ার্ড মেম্বর কোরবান আলী বলেন, যাদের জমি তারা যদি রাস্তার জায়গা না দেয় তাহলে আমাদের তো কিছু করার নেই ।

ভুমি অফিসের তথ্য মতে, নজরুল ইসলামের ১০৮/১১৪ নম্বর দাগে ০.০৩শতাংশ এবং ২১৫/১৯১ দাগে ০.১০শতাংশ জমি রয়েছে অন্য জমির মালিক আব্দুল আউয়াল ২১৫/১৯১ নম্বর দাগে ০.০২শতাংশ এবং ২১৬/১৯০ নম্বর দাগে ০.০০ শতাংশ জমি রয়েছে। তবে এরা তাদের জায়গার চেয়েও একটু বেশি দখল করে রেখেছে।

এ বিষয়ে পুরান ভারেঙ্গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কে এম রফিকুল্লাহর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ঐ এলাকায় বসবাস করা হিন্দু সম্পদ্রায়ের মানুষগুলোর জন্য সত্যিই চলাচলের জন্য কোন রাস্তা নেই।

যা আছে তা দেড় ফিটের বেশি হবে না। কমপক্ষে চার ফিট চওড়া রাস্তা হলে ভালো হয়। যাদের ঘর আছে তাদের ভাঙার জন্য সময় দিতে হবে।

অচিরেই এই সমস্যা সমাধানের জন্য কাজ শুরু করা হবে বলেও আশ্বাস দেন চেয়ারম্যান রফিকুল্লাহ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৩:৪৭
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:১৪
    যোহরদুপুর ১১:৫৫
    আছরবিকাল ১৬:৩৪
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:৩৬
    এশা রাত ২০:০৬

পাবনা এলাকার সেহেরি ও ইফতারের সময়সূচি

© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!