শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারী ২০১৯, ০১:১৫ অপরাহ্ন

পাবনায় শিক্ষকের বুদ্ধিমত্তায় দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেল ট্রেন

 

স্টাফ রিপোর্টার : পাবনার ভাঙ্গুড়ায় স্কুলশিক্ষক আব্দুস সবুরের ম্যাসেজে ভয়াবহ দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেল ট্রেন। দুটি স্লিপার ভেঙে যাওয়ায় বিপজ্জনক অবস্থায় ছিল রেললাইন।

এ অবস্থায় ট্রেন এলে ঘটতে পারত ভয়াবহ দুর্ঘটনা। আব্দুস সবুরের তৎপরতায় ট্রেন চলাচল বন্ধ করে তিন ঘণ্টা ধরে রেললাইন মেরামত করা হয়।

ঘটনাটি ঘটে আজ শনিবার (০৫ জানুয়ারি) সকালে ঢাকা-ঈশ্বরদী রেললাইনে ভাঙ্গুড়া উপজেলার দিলপাশার স্টেশনের পূর্ব পাশে।

ভাঙ্গুড়া উপজেলার দিলপাশার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সবুর জানান, শনিবার সকাল ৯টার দিকে তিনি স্কুলে যাচ্ছিলেন।

এ সময় তার চোখে পড়ে দুটি স্লিপার ভেঙে রেললাইনের একপাশ অনেকটা নিচু হয়ে রয়েছে।

তিনি জানান, এখানের রেললাইনটি চলনবিলের মধ্যে দিয়ে গেছে। তাই ভূমি থেকে রেললাইনের উচ্চতা অন্তত ৩০ ফুট। এখানে রেললাইনচ্যুত হলে তা গভীর খাদে পড়বে আশঙ্কায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন তিনি।

আব্দুস সবুর আরও জানান, আশঙ্কা ছিল যে কোনো সময় চলে আসতে পারে দ্রুতগামী আন্তঃনগর ট্রেন। এটা ভেবে তিনি তাৎক্ষণিক এক কৃষকের কাছ থেকে লাল গামছা নিয়ে ওখানে টাঙিয়ে দেন।

এরপর তিনি দৌড়ে ছুটে যান দিলপাশার স্টেশনে। কিন্তু সেখানে রেলের কাউকে না পেয়ে তিনি ফোন করেন সেখানকার এক কলেজশিক্ষক মাহবুব আলমকে।

মাহবুব আলম জরুরি মেসেজটি জিআরপি পুলিশ ও লাহিড়ী মোহনপুর স্টেশন মাস্টারের কাছে পৌঁছে দেন।

এরপরই এ মেসেজ পায় রেলের পাকশী বিভাগের ট্রাফিক কন্ট্রোলরুম। এরপরই এ পথে ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।

শিক্ষক আব্দুস সবুর বলেন, ‘কোনো দুর্ঘটনা না ঘটায় যেমন স্বস্তি পেয়েছি তেমনি সংবাদ পৌঁছানোর সময়টুকুতে আমি খুবই আতংকের মধ্যে ছিলাম।’

ভাঙ্গুড়া স্টেশন মাস্টার আব্দুল মালেক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দুপুর দেড়টা থেকে এ রুটে স্বাভাবিক ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।

রেললাইন মেরামতের জন্য ঢাকা-কলকাতা মৈত্রী এক্সপ্রেস, সুন্দরবন, নীলসাগরসহ অনেক ট্রেনের যাত্রা কিছুটা বিলম্বিত হয়।

 

 


© All rights reserved 2018 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!