রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯, ০১:০৭ পূর্বাহ্ন

বেগম জিয়ার মুক্তির আন্দোলন শব্দেই সীমাবদ্ধ!

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করতে জাতীয়তাবাদী শক্তি রাজপথে নামার সব প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।

শনিবার (২৩ মার্চ) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের অনশন কর্মসূচির উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন। এদিকে রিজভী আহমেদের এমন ফাঁকা বুলিতে রাজনৈতিক মহলে হাস্যরস সৃষ্টি করেছে। যে দল মামলা, হামলার ভরে বিগত এক দশকে রাজপথে আন্দোলনে জমাতে পারেনি, সেই দলের নিয়মতান্ত্রিক হুংকারে দলের নেতাকর্মীরা হতাশ হবেন। রিজভী আহমেদের এমন মিথ্যা আশ্বাসে বরং দলের প্রতি হতাশা ও অভিমান থেকে গণপদত্যাগের শঙ্কাও প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

রিজভী আহমেদের এমন নিয়মতান্ত্রিক হুংকারকে মিথ্যা আশ্বাস ও নেতাকর্মীদের সঙ্গে প্রতারণার অংশ হিসেবে দাবি করেছেন একজন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) নেতা। তিনি বলেন, বিএনপি অথর্ব ও বুদ্ধিহীনদের দল। বিএনপির হাতে অনেকগুলো ইস্যু রয়েছে, যেগুলো নিয়ে রাজপথে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে পারে। কিন্তু দলটির সমন্বয়হীনতা, নেতৃত্বের দুর্বলতা, অবিশ্বাসের রাজনীতির কারণে আজকে অসহায়ের মতো বিদেশি ও সাধারণ মানুষের করুণার জন্য পথ চেয়ে থাকতে হচ্ছে। একটা রাজনৈতিক দলের জন্য এর চেয়ে অপমানের বিষয় আর কী হতে পারে!

তিনি আরো বলেন, রিজভী আহমেদরা দুই নৌকায় পা দেয়া মানুষ। বেগম জিয়ারও মুক্তি চান আবার ক্ষমতার লোভও সামলাতে পারেন না। তাই সব মিলিয়ে গুবলেট পাকিয়ে ফেলেছে বিএনপি। সামান্য কিছু টাকা দুর্নীতির জন্য সাবেক একজন প্রধানমন্ত্রীকে মামলার জালে আটকে রেখে বিএনপির রাজনীতিকে নিয়ন্ত্রণ করছে প্রতিপক্ষ। আর বিএনপি তাদের অনুকম্পার আশায় রয়েছে। এরইমধ্যে আবার নেতারা আন্দোলনের হুংকার দিয়ে হতাশার অন্ধকারে আলো খোঁজার চেষ্টা করেন। হাত পা গুটিয়ে বসে থাকলে বিএনপি অন্তত আগামী দশ বছরেও বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে পারবে না। এই সত্যিটা হয়তো তারা অনুধাবন করতে পারছে না।

বিষয়টিকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করে বিএনপির সিনিয়র নেতা মাহবুবুর রহমান বলেন, আমরা একটি প্রক্রিয়ার মধ্যে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি। অচিরেই কঠোর আন্দোলন করে ম্যাডামকে জেল থেকে বের করে আনা হবে। সে পর্যন্ত তো ধৈর্য ধরতেই হবে। বেগম জিয়াকে মামলার জালে আটকানো হয়েছে। আমি প্রথম থেকেই বলছিলাম যে চিকিৎসার জন্য অন্তত বিদেশে গেলে তাকে আজকে অন্ধকার কুঠুরিতে কষ্ট পেতে হতো না।


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:১২
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:৩৩
    যোহরদুপুর ১১:৫৭
    আছরবিকাল ১৬:৩১
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:২২
    এশা রাত ১৯:৫২
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!