বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ০৬:৪২ পূর্বাহ্ন

মন্ত্রিসভায় কেউ নেই- হতাশ পাবনাবাসী

 

নিজস্ব প্রতিনিধি : নতুন মন্ত্রিসভায় পাবনার কারও স্থান হয়নি। ফলে হতাশায় ভুগছেন সাধারণ মানুষসহ আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

আর এতে জেলার উন্নয়ন নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন জেলার রাজনীতি সচেতন মানুষ।

অতীত অভিজ্ঞতার আলোকে বলা যেতে পারে, মন্ত্রিপরিষদে যে জেলার প্রতিনিধিত্ব থাকে না সেই জেলার উন্নয়ন প্রকল্পগুলোও ততটা গতি পায় না।

তবে স্থানীয়রা মনে করেন, মন্ত্রিত্ব না পেলেও উন্নয়ন থেমে থাকবে না। তাদের আশা যেহেতু পাবনার উন্নয়নে খোদ প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি রয়েছে, তাই প্রকল্পের কাজ দ্রুতই এগিয়ে যাবে।

১৯৭৯ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত টানা ৩৫ বছর সব কটি মন্ত্রী পরিষদে পাবনা-১ আসন থেকে অন্তত একজন হলেও মন্ত্রী পেয়েছে।

শুধু ২০১৪ সালের মন্ত্রিসভায় পাবনা-৪ আসন থেকে মন্ত্রিত্ব পেয়েছিলেন ভূমিমন্ত্রী। এবার পাবনাবাসীর মন্ত্রিত্বের ঐতিহ্যে ছেদ পড়েছে।

গতকাল সোমবার (০৭ জানুয়ারি) বিকেলে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নিয়েছেন। তবে এবারের মন্ত্রিসভাতে পাবনার কেউ ঠাঁই পাননি।

অথচ পাবনাবাসী এবার আশা করেছিল, মন্ত্রিত্বের দৌড়ে জেলা সদর থেকে এবার নব নির্বাচিত এমপি প্রিন্সকে মন্ত্রিত্ব দেওয়া হবে। সেই আশা পূরণ না হওয়ায় পাবনাবাসীর মধ্যে হতাশা দেখা দিয়েছে।

পাবনাবাসী প্রথম মন্ত্রী পান ১৯৭৯ সালে। ওই বছর পাবনা-১ আসন থেকে মির্জা আবদুল হালিম পাবনার প্রথম মন্ত্রী হন। তিনি জিয়াউর রহমান সরকারের নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

এরশাদ সরকারের সময় এ কে খন্দকার পরিকল্পনামন্ত্রী ও মেজর (অব.) মনজুর কাদের ত্রাণ ও পুনর্বাসন প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।

১৯৯১ সালে খালেদা জিয়া সরকারের সংস্থাপন প্রতিমন্ত্রী হন ওসমান গণি খান (ওজি খান)।

১৯৯৬ সালে শেখ হাসিনা সরকারের তথ্য প্রতিমন্ত্রী হন অধ্যাপক আবু সাইয়িদ। তারপর চারদলীয় জোট সরকারের (২০০১-২০০৬) মন্ত্রী হন পাবনা-১ আসনের (সাঁথিয়া ও বেড়ার একাংশ) তৎকালীন সাংসদ মতিউর রহমান নিজামী।

২০০৯ থেকে ২০১৪ সালের মহাজোট সরকারের সময়ে পাবনার তিনজন মন্ত্রিত্বের দায়িত্ব পালন করেন। তাঁরা হলেন এ কে খন্দকার (পরিকল্পনামন্ত্রী), শামসুল হক টুকু (স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী) ও মির্জা আবদুল জলিল (প্রতিমন্ত্রী পদমর্যাদায় প্রাইভেটাইজেশন বোর্ডের চেয়ারম্যান)।

এরপরে ২০১৪ সালের মন্ত্রিসভায় পাবনা-৪ আসন থেকে মন্ত্রিত্ব পেয়েছিলেন ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরিফ ডিলু। তিনি বাদ পড়েছেন নতুন মন্ত্রিসভা থেকে।

এবার নতুন সরকারের মন্ত্রিসভায় পাবনা থেকে কাউকেই মন্ত্রী করা হয়নি। এতে পাবনাবাসীর মধ্যে চরম হতাশা দেখা দিয়েছে।

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৩:৪১
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:১২
    যোহরদুপুর ১২:০০
    আছরবিকাল ১৬:৪০
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:৪৮
    এশা রাত ২০:১৮
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!