শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন

মাইডাস ট্রেড ফেয়ার নারী জাগরণের পথপ্রদর্শক

।। এবিএম ফজলুর রহমান।।

জমে উঠেছে পাবনায় ৫ দিনব্যাপী মাইডাস ট্রেড ফেয়ার। প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত তরুণ তরুনী ও নারী উদ্যোক্তাদের ভীড়ে ঠাসা মেলা প্রাঙ্গণ। বেচা বিক্রিও আশানুরুপ। এই মেলায় সবার নজর কেড়েছে তরুন উদ্যোক্তা ও আলোকচিত্র শিল্পী সুমাইয়া তাসনিম।

পাবনা শহরের রাধানগর কলেজপাড়ার খায়রুল আলম সিদ্দিকী ও কানিজ মওলার মেয়ে সুমাইয়া তাসনিমের রয়েছে এখানে দুটি স্টল। যার মাঝে একটিতে তার নিজের আঁকা কিছু দৃষ্টিনন্দন আলোকচিত্র (গেম অব কালার) এবং আরেকটি হলো খাবার দোকান (ফুডনেষ্ট হোম ডেলিভারী)।

আত্মার ক্যানভাস থেকে রং তুলির আঁচড়ে সে ফুটিয়ে তুলেছে নয়নাভিরাম কিছু দৃশ্য। যা প্রদর্শন করা হচ্ছে। ঘরের ওয়ালে টাঙিয়ে রাখার জন্য তা চলছেও বেশ।

আত্মার ক্যানভাস থেকে রং তুলির আঁচড়ে আঁকা সুমাইয়ার ছবি

একটি জায়গাকে অধিকতর প্রাণবন্ত ও হৃদয়গ্রাহী করে তুলতে যেন সুমাইয়ার আঁকা ছবিগুলো হতে পারে এক স্বার্থক উপকরণ। সুমাইয়া যে ছবি গুলো এখানে প্রদর্শন করেছে তার সবগুলোয় বিমুর্তধারার। এতে উঠে এসেছে বাংলাদেশের প্রকৃতির নানা অনুষঙ্গ।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের কৃতি এই ছাত্রী স্বপ্ন দেখেন। সুমাইয়া বার্তা সংস্থা পিপ‘কে বলেন, ছবি মানুষকে উন্নত জীবনবোধে উদ্বুদ্ধ করতে ও আলোকিত মানুষ হতে সহায়তা করে।

একটি ভালো ছবি যাকে আনন্দ দেয় সে কখনই কোন খারাপ কাজ করতে পারে না বলে বিশ্বাস সদাহাস্যজ্জল এই শিল্পীর। আর যে একটি ভালো ছবি ভালোবাসেনা সে নিজেকে ভালোবাসেনা এবং কাউকে ভালোবাসতেও পারে না বলে মনে করেন এই আলোকচিত্রী।

সুমাইয়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগ থেকে ২০১৬ সালে বেষ্ট এক্সপেরিমেন্টাল এওয়ার্ড পেয়েছেন। প্রায় পনেরোটিরও বেশি প্রদর্শনী হয়েছে তার। পুরস্কৃত হয়েছেন অসংখ্যবার নিজের মনের মাধুরি মেশানো ছবি আঁকার জন্য। সে নিজের শহর পাবনাতে মাইডাস এর মতো একটি প্রতিষ্ঠানের আয়োজনে অংশ নিতে পেরে অনেক আনন্দিত হয়েছেন।

রাজধানী এবং বিভাগীয় শহরের বাইরে এবারই প্রথম এ মেলা জেলা শহরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। স্কয়ার গ্রুপের সহযোগিতায় মেলায় পাবনার ২৫টিসহ যশোর ও ঢাকার মোট ৩১টি ষ্টল মেলায় অংশ নিচ্ছে।

যারা অংশ নিচ্ছে তারা হলেন, নাজিরপুর মহিলা উন্নয়ন সংস্থা (সভানেত্রী নাজিরা পারভীন), রাধানগরের কৃষ্ণচূড়া হ্যান্ডিক্রেফটস (পরিচালক ফারহানা রহমান পিংকি), ঢাকার সাইকাস হেরিটেজ (পরিচালক রেবেকা সুলতানা), জান্নাত ফুড কর্ণার (মোজাহিদ ক্লাব শিবরামপুর), রাধানগরের চুমকি বুটিক হাউজ (পরিচালক মাসুমা আক্তার চুমকি), আসিয়াব ও সাবাহ বাংলাদেশ (বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আসিয়াব), পাবনার বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা উদ্দীপনা মহিলা সমিতি (পরিচালক আলেয়া পারভীন),

পাবনার বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা শুচিতা সমাজ উন্নয়ন সংস্থা (পরিচালক নাসরিন পারভীন), ঢাকার অপ্সরা ইন্টারন্যাশনাল (পরিচালক মনিরা আক্তার), খাবার ঘর (রাধানগর, পরিচালক ফারহানা রহমান পিংকি), ঢাকার পার্লী (পরিচালক পারভীন সুলতানা), যশোরের সানন্দা বিউটি পার্লার ট্রেনিং সেন্টার (পরিচালক সুফিয়া মাহমুদ রেখা, খুলনা বিভাগের পুরস্কারপ্রাপ্ত জয়িতা ও ঐ অঞ্চলের একজন সফল উদ্যোক্তা),

শালগাড়িয়ার প্রতিবন্ধীদের কল্যাণী সংস্থা প্রতীক মহিলা ও শিশু সংস্থা (পরিচালক সাইফুর রহমান), যশোরের মনিরামপুরের অপরুপা হ্যান্ডিক্রেফটস (পরিচালক রীতা দত্ত), শিবরামপুরের ইলা বুটিক হাউজ (পরিচালক আসমা খাতুন ইলা), পাবনার বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা পড়শী (পরিচালক মালা সরকার), জামালপুরের নকসী, রাধানগরের বর্ণিল ফ্যাসান হাউজ, রাধানগর কলেজ পাড়ার সুমাইয়া তাসনিমের রয়েছে দুটি স্টল যার মাঝে একটিতে তার নিজের আঁকা কিছু দৃষ্টিনন্দন নয়নকাড়া আলোকচিত্র (গেম অব কালার) এবং আরেকটি হলো খাবার দোকান (ফুডনেষ্ট হোম ডেলিভারী),

পাবনার বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ওসাকার স্টল রয়েছে ওসাকা নামেই, রাধানগরের ছহী হস্ত শিল্প, চাটমোহরের ভাদ্রার নাঈম ফ্যাসান হাউজ এন্ড টেইলার্স (পরিচালক নূরুন্নাহার বেগম), শালগাড়িয়ার লারনার্স অরগানাইজেশন (বিজলী বেগম), রাধানগর মক্তবপাড়ার বাশরী শ্রমজীবি মহিলা উন্নয়ন সংস্থা (পরিচালক হোসনে আরা আরজু), এসএমটিসি, বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা প্রতাশা (পরিচালক মোস্তফা আব্দুল বাতেন রুশদী), নাহিদ হ্যান্ডিক্রেফটস (পরিচালক রুবাইয়া নাহিদ),

ঢাকার হাওয়া আকু প্রেসার সেন্টার, পাওয়ার হাউজ পাড়ার রিফা সিফা হস্তশিল্প ও বুটিকস হাউজ (পরিচালক জেলা মহিলা পরিষদের সাধারন সম্পাদক এড. কামরুন নাহার জলি) এবং খাবারের দোকান অর্ণব এন্ড কোং (পরিচালক বিশিষ্ট নৃত্য শিল্পী অনুজা সাহা এ্যানী)।

প্রতিদিন মেলা চত্বর ঘুরে দেখা গেছে বিভিন্ন বয়সের নারীর ভীড়। তারা উৎসুক হয়ে রকম রকম ডিজাউন দেখে মুগ্ধতা প্রকাশ করেছে। এমন আয়োজনে বেশ খুশি স্থানীয় মেয়েরা।

তারা বেশ উৎসাহ বোধ করছেন নিজের হাতে ভবিষ্যতে তারাও এমন করবেন এমন প্রত্যাশা কাজ করছে তাদের মাঝে।

ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত করতে মঙ্গলবার পাবনার দোয়েল সেন্টার চত্বরে মেলার উদ্বোধন করেন নেদারল্যান্ডের রাষ্ট্রদুত হ্যারি ভেরিউজ।

মাইডাস চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু, নেদারল্যান্ডের রাষ্ট্রদুতের স্ত্রী মিজ আঁকি ওকমা, মাইডাসের পরিচালক পারভীন মাহমুদ ও জাহিদা ইস্পাহানি, পাবনা জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন, পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস, জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী আতিয়ুর রহমান, মাইডাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. এএসএম মশিউর রহমান,

পাবনা পৌরসভার মেয়র কামরুল হাসান মিন্টু, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ মোশারোফ হোসেন, পাবনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি সভাপতি মো: সাইফুল আলম স্বপন চৌধুরী, সহসভাপতি মো: ফোরকান রেজা বাদশা বিশ্বাস, চেম্বার পরিচালক ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার হাবিবুর রহমান হাবিব, পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি প্রফেসর শিবজিত নাগ, পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রবিউল ইসলাম রবি, সাবেক সভাপতি রুমি খন্দকার, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদ সভাপতি আব্দুল মতীন খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

মাইডাস চেয়ারম্যান অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু বার্তা সংস্থা পিপ‘কে বলেন, মাইডাস শুধু মেলা করবে না। এই মেলার মাধ্যমে উৎপাদক এবং ক্রেতার মধ্যে সেতুবন্ধন তৈরি করবে। যার মাধ্যমে আমাদের দেশের নারী সমাজ সামাজিক এবং পারিবারিক ভাবে স্বাবলম্বি হবে।

লেখক : এবিএম ফজলুর রহমান, প্রধান সম্পাদক, বার্তা সংস্থা পিপ, পাবনা।


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:১৬
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:৩৭
    যোহরদুপুর ১২:০১
    আছরবিকাল ১৬:৩৫
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:২৫
    এশা রাত ১৯:৫৫
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!