শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১২:২৫ পূর্বাহ্ন

মানুষের সেবায় নার্সিং পেশায়

‘আমারে দুদণ্ড শান্তি দিয়েছিল নাটোরের বনলতা সেন’- জীবনানন্দ দাশের নাটোরের বনলতা সেনকে কবির প্রেমিকা ভাবেন বেশিরভাগ মানুষ। ভাবনাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু জীবনানন্দকে নিয়ে রচিত নানা জীবনীতে দেখা যায়, গবেষণায় বের হয়ে এসেছে, এই বনলতা সেন হয়তোবা তার হাসপাতালের নার্স। অসুস্থ অবস্থায় কবি যখন হাসপাতালে সেবা-শুশ্রূষায় ছিলেন, তখন যে নার্স তাকে নিয়মিত পরিচর্যা করতেন গবেষকদের ধারণা তাকে নিয়েই কবি লিখেছিলেন এই কবিতাটি। কবি কাব্যগাঁথা থেকে বের হয়ে আমরা যদি দেখি হাসপাতালে অসুস্থতায় আমাদের পাশে এমনই শান্তির পরশ নিয়ে আসেন নার্সরা।

আর বর্তমানে নার্সিংয়ে ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী এই সময়ের তরুণরা। সরকারি প্রতিষ্ঠানে নার্স নিয়োগ করে বাংলাদেশ সরকারের সেবা পরিদপ্তর। এই পরিদপ্তর থেকে জানা গেছে, ২০১৩ সালে ৪ হাজার ১০০ জনকে দেশের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে নার্স হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে। সামনে আরও কয়েক হাজার নার্স নিয়োগ করা হবে বলে জানা গেছে। তাই এ পেশায় যারা ক্যারিয়ার গড়তে চান, তারা এখন থেকে এর প্রস্তুতি শুরু করে দিতে পারেন। এ পেশা শুরুর আগে আপনাকে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং অথবা ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন নার্সিং (বিএসসি) এসব কোর্স করতে হবে। বাংলাদেশ নার্সিং কাউন্সিলের তথ্যমতে, দেশে বর্তমানে সরকারি ডিপ্লোমা ইন নার্সিং কলেজ আছে ৪৩টি। আর বেসরকারি কলেজ আছে প্রায় ৭০টি। এ ছাড়া সরকারি বিএসসি ইন নার্সিং কলেজ আছে ৯টি, বেসরকারি আছে ২১টি। এসব প্রতিষ্ঠান বছরের বিভিন্ন সময় ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

মহৎ পেশা নার্সিং

এই পেশা একটি জনসেবামূলক পেশা। এ পেশায় আসতে হলে মানুষের সেবার মানসিকতা থাকতে হবে। ১৯৯৭ সালে টাঙ্গাইল নার্সিং ইনস্টিটিউট থেকে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি পাস করেন আঞ্জুমান আরা। পরে তিনি দেশের বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি জানান, নার্সিং পেশাটি একটি মহৎ পেশা। কাজটিও আনন্দের। একজন নার্সকে সাধারণত চিকিৎসকের নানা কাজের সহকারী হিসেবে হাসপাতাল বা ক্লিনিকের আউটডোর, ইনডোর ও অপারেশন থিয়েটারে কাজ করতে হয়। এ ছাড়া রোগীকে ওষুধ খেতে সহায়তা করাসহ নানাভাবে সেবা করারও কাজ করতে হয়। বাংলাদেশ নার্সিং কাউন্সিল থেকে জানা গেছে, বর্তমানে দেশে তো বটেই, বিদেশেও নার্সিং পেশার দক্ষ ও অভিজ্ঞ লোকের চাহিদা রয়েছে ব্যাপক। বিশেষ করে মালয়েশিয়া, কাতার, কানাডা, অস্ট্রেলিয়াসহ বিভিন্ন দেশে। তাই এ পেশায় বর্তমানে যেমন রয়েছে সম্মান, তেমনি রয়েছে সম্ভাবনা। এখানেও অন্যান্য চাকরির মতো ভালো বেতন ও অন্যান্য সুবিধার পাশাপাশি পদোন্নতির ব্যবস্থা আছে। দক্ষতা ও জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে নার্স থেকে সিনিয়র স্টাফ নার্স ও সুপারিনটেনডেন্ট, নার্সিং ট্রেনিং কলেজের প্রশিক্ষক হতে পারেন। এ ছাড়া সরকারের সেবা পরিদপ্তরে উচ্চপদস্থ পদে যেতে পারেন নার্সরা।

শিক্ষাগত যোগ্যতা

নার্সিং পেশায় আসতে চাইলে আবেদনকারীকে বাংলাদেশ নার্সিং কাউন্সিল কর্তৃক অনুমোদিত যে কোনো নার্সিং ইনস্টিটিউট থেকে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং বা বিএসসি ইন নার্সিং কোর্স পাস করতে হবে। তাই এসব কোর্স করে নিতে পারেন। আর ডিপ্লোমা ইন নার্সিং কোর্সের জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতা যে কোনো বিভাগ থেকে নূ্যনতম এসএসসি পাস লাগবে। অন্যদিকে, বিএসসি ইন নার্সিং কোর্সের জন্য বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জীববিদ্যাসহ এইচএসসি পাস হতে হবে। এ ক্ষেত্রে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় মোট জিপিএ ৬ পয়েন্ট থাকতে হবে। তবে কোনো পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ২.৫০-এর কম থাকা যাবে না। আর বর্তমানে এই ডিপ্লোমা ইন নার্সিং কোর্সগুলো তিন বছরের ও বিএসসি কোর্সটি চার বছরমেয়াদি হয়ে থাকে।

আবেদন করবেন যেভাবে

এই কোর্সের জন্য সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো বছরের বিভিন্ন সময়ে জাতীয় দৈনিক পত্রিকাগুলোতে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব ওয়েবসাইটের মাধ্যমেও ভর্তি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে থাকে। ধাপে ধাপে কয়েকটি পরীক্ষা যেমন- লিখিত, মৌখিক ও ডাক্তারি পরীক্ষার মাধ্যমে চূড়ান্তভাবে ভর্তির জন্য নির্বাচন করা হয়। লিখিত পরীক্ষায় বাংলা, ইংরেজি, জীববিজ্ঞান, পদার্থবিজ্ঞান, সাধারণ জ্ঞান ইত্যাদি বিষয় থেকে প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। এসব পেশায় মেয়েদের পাশাপাশি ১০ শতাংশ ছেলেদেরও ভর্তি হওয়ার সুযোগ থাকে।

কতটা ব্যয়বহুল

সরকারি নার্সিং কলেজগুলো থেকে বিএসসি ইন নার্সিং কোর্স করতে চাইলে খরচ পড়বে ১ লাখ থেকে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা। আর বেসরকারি কলেজগুলোতে খরচ হবে চার বছরে ২ থেকে ৩ লাখ টাকা। তবে বেসরকারি পর্যায়ের কলেজগুলোতে খরচ প্রতিষ্ঠানভেদে কমবেশি হয়ে থাকে। আর সরকারি কলেজগুলোতে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং করতে কোর্স ফি লাগে না। প্রতি মাসে তারা কিছু টাকা ভাতা হিসেবে পেয়ে থাকেন।


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:০৭
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:২৯
    যোহরদুপুর ১১:৫৬
    আছরবিকাল ১৬:৩১
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:২৪
    এশা রাত ১৯:৫৪
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!