সোমবার, ২৫ মার্চ ২০১৯, ০৪:১২ পূর্বাহ্ন

যে গ্রামে কোন ঘরের দরজা নেই

ঘরে জিনিসপত্র, টাকা-পয়সা, গহনাগাটি নিরাপদ রাখতে মানুষ কত কিছুই না করে। বড় বড় তালা, আধুনিক লক থাকা সত্ত্বেও গোটা বিশ্বে চুরি ডাকাতির ঘটনা ঘটছে। অথচ ভারতের মহারাষ্ট্রে শনি শিঙ্গনাপুর নামে একটি গ্রাম কোন ঘরে তালা দেওয়ার ব্যবস্থাই নেই।

দরজা যে শুধু বাড়ির ঘরগুলোতে নেই তা নয়। দোকান ঘরেও দরজা নেই। সব সময় গ্রামের বাড়িগুলো কিংবা দোকানগুলো উন্মুক্ত থাকে। টাকা-পয়সা, জিনিসপত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকে ঘরের ভেতর। তারপরও গ্রামের কেউ অনিরাপদ বোধ করে না।

শনি শিঙ্গনাপুর গ্রামে দরজা  ছাড়া বাড়ি

শনি শিঙ্গনাপুর গ্রামে প্রায় ৫ হাজার মানুষের বসবাস। তারা বিশ্বাস করেন, স্বয়ং শনি দেব তাদের গ্রাম পাহারা দেন। এ কারণে এ গ্রামে কারও বাড়িতে ঘরের দরজা বা তালার প্রয়োজন নেই।

প্রায় তিনশ’ বছর ধরে গ্রামে এই ব্যবস্থা চলে আসছে। পূর্বপুরুষের সেই বিশ্বাস এখনও ধরে রেখেছে গ্রামবাসী। তবে ঘরের মধ্যে যাতে কোনো কুকুর বা অন্য প্রাণি ঢুকতে না পারে সেজন্য ঘরে দরজার জায়গায় কাঠের প্যানেল দেন তারা। কিন্তু সেটা স্থায়ী কিছু নয়।

গ্রামে রয়েছে ইউকো ব্যাঙ্কের একটি শাখা। সেই ব্যাংক ভবনটিতেও তালা লাগানোর ব্যবস্থা নেই ।

তবে শহরের আধুনিকতার ছোঁয়া লেগেছে এই গ্রামেও। এখানকার অনেকে তাই বহু বছরের পুরনো এই রীতির সংস্কার চান। বেশিরভাগ গ্রামবাসি অবশ্য পুরনো রীতির পক্ষে। তারা  বিশ্বাস করেন শনি দেবতাই তাদের সব ধরনের বিপদ থেকে রক্ষা করবেন। সূত্র: বিবিসি


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৪:৪০
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:৫৮
    যোহরদুপুর ১২:০৫
    আছরবিকাল ১৬:২৯
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:১১
    এশা রাত ১৯:৪১
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!