বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ১২:৪৩ অপরাহ্ন

স্কয়ারের রাঁধুনী ব্র্যান্ডের ধনিয়া ও জিরার গুঁড়া ভেজাল ও মানহীন নয়- বিএসটিআই

বার্তা সংস্থা পিপ, পাবনা : স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজের রাঁধুনী ব্র্যান্ডের ধনিয়া ও জিরার গুঁড়া ভেজাল ও মানহীন নয়।

বিএসটিআই এর সকল পরীক্ষায় প্যারামিটার অনুযায়ী এ দু‘টি পণ্যের মান ভালো পাওয়া গেছে। তবে শতভাগ মিহি না হওয়ায় সাময়িক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে এবং কোম্পানীকে বিষয়টি সংশোধন করতে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিএসটিআই কর্তৃপক্ষ।

বাংলাদেশ স্ট্যার্ন্ডাড টেষ্টিং ইন্সটিটিউশান (বিএসটিআই) খোলা বাজার থেকে সংগ্রহ করা ৪০৬টি পণ্যের মধ্যে দ্বিতীয় দফায় অবশিষ্ট ৯৩টি পণ্যের মান পরীক্ষা করে ২২টি ব্র্যান্ডের পণ্যকে ‘নিম্ন মানের’ বলে ঘোষণা করে।

এ সব পণ্য আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বাজার থেকে তুলে নিতে কোম্পানিগুলোকে মঙ্গলবার (১২ জুন) নির্দেশ দেওয়া হয়।

এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে হাসেম ফুডসের কুলসন ব্র্যান্ডের লাচ্ছা সেমাই এবং এস এ সল্টের মুসকান ব্র্যান্ডের আয়োডিনযুক্ত লবণ, প্রাণ ডেইরির প্রাণ প্রিমিয়াম ব্র্যান্ডের ঘি, স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজের রাঁধুনী ব্র্যান্ডের ধনিয়া গুঁড়া ও জিয়ার গুঁড়া, চট্টগ্রামের যমুনা কেমিক্যাল ওয়ার্কসের এ-৭ ব্র্যান্ডের ঘি, চট্টগ্রামের কুইন কাউ ফুড প্রোডাক্টসের গ্রিন মাউন্টেন ব্র্যান্ডের বাটার অয়েল,

চট্টগ্রামের কনফিডেন্স সল্টের কনফিডেন্স ব্র্যান্ডের আয়োডিনযুক্ত লবণ, ঝালকাঠির জে কে ফুড প্রোডাক্টের মদিনা ব্র্যান্ডের লাচ্ছা সেমাই, চাঁদপুরের বিসমিল্লাহ সল্ট ফ্যাক্টরির উট ব্র্যান্ডের আয়োডিনযুক্ত লবণ এবং চাঁদপুরের জনতা সল্ট মিলসের নজরুল ব্র্যান্ডের আয়োডিনযুক্ত লবণ।

তবে থ্রি স্টার ফ্লাওয়ার মিলের থ্রি স্টার ব্র্যান্ডের হলুদের গুঁড়া এবং এগ্রো অর্গানিকের খুশবু ব্র্যান্ডের ঘি নিম্নমানের হওয়ায় কোম্পানি দুটির লাইসেন্স বাতিল করেছে বিএসটিআই।

আরও ৮টি প্রতিষ্ঠান বিএসটিআইয়ের কোনো লাইসেন্স ছাড়াই পণ্য বাজারজাত করছিল। তাদের বিরুদ্ধে নিয়োমিত মামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিএসটিআই।

স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজের রাঁধুনী ব্র্যান্ডের ধনিয়া ও জিরার গুঁড়া মানসম্মত নয় এ ধরণের খবরে মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়।

এ ব্যাপারে স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজের প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট অ্যাসিটেন্ট ম্যানেজার রুখসানা বেগম নিউজ পাবনা ডটকম পত্রিকাকে বলেন, ‘ভোক্তাসহ সবাইকে আশ্বস্ত করতে চাই, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখেই আমাদের সব পণ্য তৈরি করা হয়। বিএসটিআই চাইলে আবারও পরীক্ষা করে দেখতে পারে।’

স্কয়ার টয়লেট্রিজের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এইচআর) মো. আব্দুল হান্নান তার ফেসবুকে বলেন, সাবাস! বিএসটিআই একটিমাত্র প্যরামিটার টেস্ট করে রেজাল্ট পেলেন ৯৯.৯ (উনাদের ভাষায় 99.something) fineness তারপরও বলে দিলেন “ভেজাল” পন্য।

আপনারা আপনাদের স্ট্যান্ডার্ড নির্ধারন করুন টলারেন্স লেভেল রেখে। খাদ্যদ্রব্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান সমূহের একটা সমিতি রয়েছে যার নাম BAPA.আমরা অনুরোধ করবো সততা নিয়ে যারা ব্যবসা করবে তাদের হয়ে আপনারা কথা বলুন।

না পারলে সমিতি ভেংগে দিন । আপনাদেরকে নিয়েই BSTI তাদের standard তৈরী করুক। আমরা সাধারন জনগণ তাদের উপর আস্থা রাখতে চাই, সে বিশ্বাস যোগ্যতা BSTI কি এখনো অর্জন করতে পেরেছেন?

শধুমাত্র বিদেশ ভ্রমন আর cut-copy-paste করা বাদ দিন। নিজেদের শিক্ষাটাও কাজে লাগান। আমরা জানি এবং বিশ্বাস করি BSTI তে অনেক মেধাবী মানুষ আছেন, তাদেরকে কাজ করার সুযোগ দিন।

এ ব্যাপারে কনজুমার অ্যাসোসিয়েশান অব বাংলাদেশ (ক্যাব) পাবনা জেলা শাখার সভাপতি সাংবাদিক এবিএম ফজলুর রহমান বলেন, ‘ভালোকে ভাল এবং খারাপকে খারাপ বলার মত সৎ সাহস আমাদের থাকতে থাকতে হবে। শতভাগের উপরে মিহি হওয়া একটা কথা আর ভেজাল বলা অন্য কথা। বিএসটিআই নিজেই কতটুকু স্বচ্ছ এই ধরণের কথিত রির্পোটের মাধ্যমে তা বলার সময় এসেছে’।

এদিকে বিএসটিআই‘র এর চট্রগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ সেলিম সাংবাদিকদের বলেছেন, স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজের রাঁধুনী ব্র্যান্ডের ধনিয়া ও জিরার গুঁড়া ভেজাল ও মানহীন নয়।

বিএসটিআই এর সকল পরীক্ষায় প্যারামিটার অনুযায়ী এ দু‘টি পণ্যের মান ভালো পাওয়া গেছে। তবে শতভাগ মিহি না হওয়ায় সাময়িক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে এবং কোম্পানীকে বিষয়টি সংশোধন করতে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছে তিনি।

বিএসটিআই‘র পরিচালক (মান) প্রকৌশলী এসএম ইসহাক আলী বলেন, কাউকে ভেজালকারী বলা হয়নি। আমরা মার্কেট থেকে ফিনিসড গুড সংগ্রহ করেছি। সেখানে ভেজালকারী বা মান নিয়ন্ত্রনহীন বলা হয়নি।

আমরা মান উন্নয়নের পর আবার তাদের পরীক্ষার সুযোগ দেব এবং আগামী ১৫ দিনের মধ্যে এই সাময়িক স্থগীতাদেশ তুলে নেব।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৩:৪১
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:১২
    যোহরদুপুর ১২:০০
    আছরবিকাল ১৬:৪০
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:৪৮
    এশা রাত ২০:১৮
© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!