রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ০৩:৪৯ অপরাহ্ন

১৬ নভেম্বর প্রেক্ষাগৃহে আসছে ‘মিস্টার বাংলাদেশ’

একজনের প্রতিশোধ দেশের প্রতিবাদ। এই স্লোগানকে সামনে রেখে ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ ছবির ট্রেলার প্রকাশ হয়েছে ৫ নভেম্বর সন্ধ্যায়। ৩ মিনিট ১১ সেকেন্ডের ট্রেলারটিতে উঠে এসেছে বাংলাদেশের কালো এক অধ্যায়ের গল্প! অবশ্যই সিনেমাটিক ভঙ্গিতে।

ট্রেলারটির শুরু আল-কোরানের বাণী দিয়ে! সুরা আল মায়িদাহ থেকে উদ্ধৃতি করা হয়েছে ‘যে একজন নিরপরাধ ব্যক্তিকে হত্যা করলো সে যেন সমস্ত মানব জাতিকে হত্যা করলো এবং যে একজন নিরপরাধ ব্যক্তির জীবন রক্ষা করলো সে যেন সমগ্র মানব জাতীকেই রক্ষা করলো।’ নির্মাতার ভাষ্য, আল-কোরানের এই আয়াতটুকুর মধ্যেই লুকিয়ে আছে ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ সিনেমার মূল ভাব।

সিনেমার মূল বিষয় জঙ্গীবাদ। জঙ্গীবাদের আস্ফালনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ আজ ঢুঁকরে মরছে। বিপন্ন হচ্ছে বিশ্ব মানবতা। ধর্মের নামে উগ্রবাদীতার ফলে বহু দেশ আজ নাজুক। জঙ্গীবাদের এমন ভয়ঙ্কর চর্চা স্পর্শ করে গেছে বাংলাদেশকেও।

দেশের প্রেক্ষাগৃহগুলোতে একযোগে বোমা বিস্ফোরণ, রমনা বটমূলে বোমা হামলা, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আঘাতসহ সর্বশেষ রাজধানীর হলি আর্টিজানে ভয়ঙ্কর হামলার ঘটনা বাঙালির হৃদয়ে ক্ষতচিহ্ন এঁকে দিয়ে গেছে।

আর এসব ক্ষতাক্ত ঘটনায় যেন উঠে এসেছে ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ ছবিতে। টুকরো টুকরো ‍দৃশ্যে এমনটাই দেখা গেছে ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ ছবির ট্রেলারে।

যেখানে দেখা যায় একজন বলছেন, ‘এই দেশে শরিয়াহ আইন প্রতিষ্ঠা করাই হবে আমাদের জিহাদি রাষ্ট্র কায়েমের উদ্দেশ্য।’ ধর্মের কথা বলে অসংখ্য সরল যুবাদের জড়ো করা হয়। তরুণদের উদ্বুদ্ধ করা হয় জান্নাতের প্রলোভন দেখিয়ে।

‘ওই দেখ জান্নাত’! মস্তিস্ক এমন ভাবে ধুলাই করা হয় যেন মুহূর্তেই নিজের জীবন বিলিয়ে দেয়ার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়তে পারেন নওজুয়ানরা। মিশনে যাওয়ার সময় তাই একজন আরেকজনের কাছ থেকে বিদায় নেন এই বলে যে, জান্নাতে দেখা হবে!

কাদের জীবন দেখানো হয়েছে সিনেমায়? কারা জঙ্গীবাদীর পথ বেছে নেন? কিসের উদ্দেশ্যে ধর্মের নামে অরাজকতা তৈরি করেন তারা? আর কাদেরকে উদ্দেশ্য করেই বা সুরা মায়িদাহ’র উদাহরণ টানা হয়েছে ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ ছবিতে?

ইসলাম কি ধর্মের নামে মানব হত্যাকে সমর্থন করে? ইসলাম কি জঙ্গীবাদের শিক্ষা দেয়?-আর এসব অসংখ্য প্রশ্নেরই উত্তর পাওয়া যাবে ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ সিনেমায়। এমনটাই বলছিলেন ছবির প্রযোজক ও অভিনেতা খিজির হায়াত খান।

আর তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আগামী ১৬ নভেম্বর পর্যন্ত। কারণ এদিন মহাসমারোহে দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে চলেছে ‘মিস্টার বাংলাদেশ’।

দেশের পতাকা বুকে ধারণ করে জঙ্গিবাদ নিমূর্লে নেমেছেন ‘মিস্টার বাংলাদেশ’। প্রেম ভালোবাসা পরিবারের গল্প, নাচ গান, মারামারি সবই ভেসে উঠেছে এই ট্রেলারে। ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ পরিচালনা করছেন আবু আকতারুল ইমান।

ছবির কাহিনী ও চিত্রনাট্য করেছেন নির্মাতা খিজির হায়াত খান ও হাসনাত পিয়াস। ছবির বিভিন্ন চরিত্রে আরো অভিনয় করেছেন লাক্স তারকা শানু, টাইগার রবি, মেরিয়ান, শামীম আহসান সরকার প্রমুখ।


© All rights reserved 2018 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!