রবিবার, ১৯ মে ২০১৯, ০১:১৪ অপরাহ্ন

২০ দলের শরিকদের ভাবনায় বিএনপি-জামায়াত সম্পর্ক

প্রায় এক যুগেরও বেশি সময় কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে পথ চলেছে বিএনপি। দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অন্যতম প্রধান অংশীদার জামায়াত। ৭১-এ প্রশ্নবিদ্ধ ভূমিকার জন্য নির্বাচন কমিশন কতৃক নিষিদ্ধ হয়েছে জামায়াত। তবুও বিএনপির পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত জামায়াত ছাড়ার কোনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না আসায় অনেকটাই ক্ষুব্ধ ২০ দলীয় জোটের বাকি শরিকরা।

বেশ কয়েক বছর ধরেই জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করতে বিএনপির ওপর দেশি-বিদেশি চাপ রয়েছে। আনুষ্ঠানিকভাবে বিএনপি-জামায়াত সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা না হলেও গত বছরের নভেম্বর থেকে রাজপথের কর্মসূচিতে কৌশলে জামায়াতের সঙ্গে বিএনপি কিছুটা দূরত্ব বজায় রেখে চলছে। গত সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদ নিয়ে দল দুটির মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়ন দেখা গেছে। তবে আবার বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ঢাকা মহানগর নাট্যমঞ্চে প্রতীকী অনশনে জামায়াত নেতাকর্মীদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। বিএনপি-জামায়াতের এমন নাটকীয় সম্পর্ক নিয়ে নাখোশ ২০ দলীয় জোটের অধিকাংশ শরিকরা।

সম্প্রতি দল সংস্কার আর একাত্তরের ভূমিকার জন্য ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান নিয়ে জামায়াতের একাধিক নেতার পদত্যাগ ও বহিষ্কারের ঘটনায় জামায়াতের অস্থিরতাকে দলটির নিজস্ব বিষয় বলে মনে করছে ২০ দলের শরিকরা। ২০ দলীয় জোটের শরিকদের পক্ষ থেকে বিএনপির ওপর চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে ২০ দলীয় জোট থেকে জামায়াতকে আনুষ্ঠানিকভাবে বহিষ্কারের ঘোষণা দেওয়ার জন্য। তবে বিএনপি এখনই তাড়াহুড়ো করে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে চায় না বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

২০ দলীয় জোটের শরিক এলডিপির এক সিনিয়র নেতা বলেন – ‘জামায়াত নতুন নামে দলগঠন করার জন্য হয়তো কাজ করছে। জোটে থাকা-না থাকা সেটাও তাদের সিদ্ধান্ত। তবে জামায়াত জোটে না থাকলে তা ২০ দলের জন্য ইতিবাচক। জামায়াতের অপকর্মের ফল ২০ দলীয় জোটের বহন করে চলার কোনো যৌক্তিকতা নেই।’

জোটের আরেক শরিক কল্যাণ পার্টির এক কেন্দ্রীয় নেতা জানান, “জামায়াতের কারণে জাতীয়ভাবে আমাদেরকে বিভিন্ন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে। ২০ দলীয় জোটের প্রতি তরুণ প্রজন্মের অনীহার অন্যতম কারণ বিএনপির এই জামায়াত প্রীতি। তাই অবিলম্বে জামায়াতকে পরিহার করে আমাদের নতুন উদ্যমে এগিয়ে যেতে হবে।”

এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জামায়াতের কয়েক নেতা জানান, জামায়াতের সঙ্গে বিএনপি বা জোটের এ ধরণের আচরণ কেন্দ্র থেকে মাঠপর্যায়ের নেতাদের মধ্যে চরম ক্ষোভ সৃষ্টি করেছে। অনেকে জোট ছাড়ার জন্য বর্তমান নেতাদের ওপর চাপ দিচ্ছেন।

এখন দেখার অপেক্ষা শেষ পর্যন্ত জামায়াতকে নিয়ে কি কৌশল অবলম্বন করে বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোট।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


    পাবনায় নামাজের সময়সূচি
    ওয়াক্তসময়
    সুবহে সাদিকভোর ০৩:৪৮
    সূর্যোদয়ভোর ০৫:১৫
    যোহরদুপুর ১১:৫৫
    আছরবিকাল ১৬:৩৪
    মাগরিবসন্ধ্যা ১৮:৩৫
    এশা রাত ২০:০৫

পাবনা এলাকার সেহেরি ও ইফতারের সময়সূচি

© All rights reserved 2019 newspabna.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!