রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:২৮ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

অবশেষে ঈশ্বরদীতে অবৈধ ইটভাটা গুড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসন

image_pdfimage_print

বার্তাকক্ষ : কোনো রকম নিয়ম নীতি না মেনেই গড়ে ওঠা পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার ইটভাটায় অবশেষে উচ্ছেদ শুরু করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) দুপুরে আকষ্মিকভাবে পাবনা জেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় পরিবেশ অধিদপ্তর ঢাকার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তানজিম আহমেদ এর নেতৃত্বে একটি যৌথবাহিনী লক্ষ্মীকুণ্ডা ইউনিয়নের ইটভাটাগুলোতে অভিযান চালিয়ে চারটি ইটভাটা গুড়িয়ে দেয়।

একই সঙ্গে চারটি ইটভাটার মালিককে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করে আদায় করেছেন। উচ্ছেদ করা ইট ভাটাগুলো হলো এস আর বি, বিআরবি, আদর্শ ব্রিক্স ও মালিথা ব্রিক্স।

পরিবেশ অধিদপ্তর ঢাকার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী তানজিম আহমেদ জানান, এই ইটভাটাগুলো পরিবেশ অধিদপ্তর ও জেলা প্রশাসনের কোনো নিয়ম নীতি না মেনেই অবৈধভাবে ইটভাটাগুলো স্থাপন করেছেন। কয়লার পরিবর্তে কাঠ পুড়াচ্ছেন। এই জন্য তালিকা করে ইটভাটাগুলো উচ্ছেদ করতে গুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, প্রক্রিয়াটি চলমান। ধারাবাহিকভাবে অবৈধ গড়ে ওঠা এই ইটভাটাগুলো উচ্ছেদ করা হবে। তিনি জানান বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সারা বাংলাদেশেই অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ইটভাটাগুলো উচ্ছেদ অভিযান চালাচ্ছেন।

তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার ঈশ্বরদীর লক্ষ্মীকুণ্ডা ইউনিয়নে উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়েছে। পরবর্তিতে পাবনা জেলা প্রশাসকের সহযোগিতায় এই অভিযান অব্যহত থাকবে।

বিকেলে অভিযানে নেতৃত্ব প্রদানকারী পাবনার সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মাহমুদুল হাসান মুঠোফোনে জানান, ইটভাটাগুলো উচ্ছেদ করার জন্য প্রথম দিনে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি না থাকায় বিকেল পর্যন্ত চারটি ইটভাটা গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এই প্রক্রিয়া অব্যহত থাকবে।

তিনি আরো জানান, এই ইটভাটাগুলো সবই উচ্ছেদ করা হবে। প্রথমে ভেঙে ফেলা হচ্ছে। তারপর পরবর্তিতে ইটভাটাগুলো পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র, জেলা প্রশাসকের সনদ এবং ইট নির্মাণের শর্ত মেনে ব্যবসা করবেন এই শর্তে তাদের জরিমানা করা হচ্ছে।

প্রাথমিকভাবে তাদের প্রত্যেক ইটভাটার মালিককে দুই লাখ টাকা করে জরিমানা নির্ধারণ করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, এই ইটভাটাগুলো কৃষি জমিতে এবং ফসলি জমিতে নির্মাণ করা হয়েছে। যা পরিবেশ অধিদপ্তরের শর্ত পূরণ করে না।

এই সময় অন্যান্যদের মধ্যে পরিবেশ অধিদপ্তরের ঢাকা সদরের পরিদর্শক (মনিটরিং অ্যান্ড এনফোর্সম্যান) মীর্জা আসাদুল কিবরিয়া, পরিবেশ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয় বগুড়ার জুনিয়র ক্যামিস্ট মাসুদ রানাসহ র‌্যাব, পুলিশ ও আনছার সদস্যরা অভিযানে অংশগ্রহণ করেন।

এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্থ ইটভাটার মালিক জামিলুর ইসলাম, সেলিম রেজা ও আরিফুল ইসলাম কোনো বক্তব্য দিতে রাজি হননি।

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!