আটঘরিয়ায় বাড়িতে ঢুকে সন্ত্রাসীদের গুলি, আহত ১০

file (6)আটঘরিয়া প্রতিনিধি : পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আটঘরিয়া বাজার বণিক সমিতির সাধারন সম্পাদক হাফিজুর রহমানের বাড়ীতে একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা গুলিনিক্ষেপ করে হামলা,ভাংচুর ,লুটপাট, ছিনতাই ও মারপিটের ঘটনা ঘটেছে।

এসময় তাদের অস্ত্রের আঘাতে মহিলাসহ কমপক্ষে ১০জন আহত হয়েছে। এঘটনায় মাহমুদ আলী নামক একজনকে আটক করে থানা হাজতে আটকে রাখা হয়। পরে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতনের হস্তক্ষেপে আটককৃত ব্যক্তিকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার সময় আটঘরিয়া উপজেলার অভিরামপুর গ্রামে।
পারিবারিক ও প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, আটঘরিয়া বাজার সমিতির সাধারন সম্পাদক হাফিজুর রহমানের বাড়ীতে ওই দিন সন্ধ্যায় কয়েকজন দূর্বৃত্ত অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে গুলিবষর্ন করে বাড়ীর লোকজনকে জিম্মি করে ব্যাপক ভাংচুর, লুটপাট,ও ছিনতাই করে। এসময় হাফিজের ঘরে থাকা স্বার্ণালংকার নগদ টাকা, ও প্রায়োজনীয় জিনিসপত্র লুটপাট করে সন্ত্রাসীরা।
তাদের ভাংচুরের সময় বাড়ীর অন্য সদস্যরা এগিয়ে আসলে তাদেরকে বেধরক মারপিট করা হয়। এসময় তাদের অস্ত্রের আঘাতে হাফিজুর রহমানের স্ত্রী আখি খাতুন(২৮), আলহাজ চাপা বেগম(৬৫), কাজল (১৪), আবুল কালাম আজাদ(৩৭), ও হেলাল(৪৭) আহত হয়। এদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
আহতদের আত্মচিৎকারে আপোশের লোকজন এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা ফাঁকা গুলি করতে করতে পালিয়ে যায়।

এব্যাপারে হাফিজুর রহমান আটঘরিয়া থানায় শরনাপন্ন হলে ঐ দিনরাতেই পুলিশ মাহমুদ আলী নামের একজনকে আটক করে থানা হাজতে আটকে রাখে। পরে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতনের হস্তক্ষেপে আটককৃত ব্যাক্তিকে ছেড়ে দেওয়া হয়।
আটঘরিয়ার বাজার বণিক সমিতির সভাপতি বলেন, ঘটনাটি দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে আমরা বাজার সমিতির উদ্যোগে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলবো।