মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১, ০৯:০৮ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

আ’লীগ নেতাকে নিজেদের অফিসে বসানোর জন্য দু’গ্রুপের সংঘর্ষ

image_pdfimage_print

নাটোরের লালপুরের নওপাড়ায় নেতাদের নিজেদের অফিসে বসানোর ঘটনা নিয়ে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেচে। এ সময় তাদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, দলীয় অফিস ও বাড়িঘরে হামলার ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, নওপাড়া বাজার এলাকায় বুধবার সন্ধ্যার পরে লালপুর উপজেলা যুবলীগ সভাপতি ও বিলমাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিন্টু, নাটোর জেলা তাঁতী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম বাঘা, সাংগঠনিক সম্পাদক ইকবাল হাসান রিপনসহ নেতারা আসেন।

এ সময় দুড়দুড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি নায়েব উদ্দিন মালিথার ছেলে ও লালপুর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান পলাশ, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি ও ইউপি সদস্য আলতাফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আগত নেতাদের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ অফিসে বসার অনুরোধ জানান।

অপরদিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এমপির সমর্থক বলে পরিচিত তোফা ও তার লোকজন আগত নেতাদের তাদের অফিসে বসার জন্য বলেন। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়।

এ সময় তোফা গ্রুপের নুসারুলসহ কয়েকজন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ অফিসে ঢুকে চেয়ার ও আসবাবপত্র ভাংচুর করেন। এ নিয়ে দু’পক্ষ ইটপাটকেল ছুড়লে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। রাত সোয়া ৮টার দিকে পুনরায় দু’পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া চলে। এ সময় আবু তালেব নামে এক আওয়ামী লীগ কর্মী আহত হন।

পরে তোফাজ্জল হোসেন তোফার নেতৃত্বে মিছিল বের হয়ে মহিলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও পানসিপাড়া গ্রামের লুৎফর রহমানের স্ত্রী সাবরিনা খাতুনের বাড়ি, একই গ্রামের আমির আলীর ছেলে খোদাবক্স ও নওপাড়া গ্রামের মহাম্মদ আলীর ছেলে বাবুলের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ঘরের বেড়া ভাংচুর ও বাড়িতে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়।

এ ব্যাপারে তোফাজ্জল হোসেন তোফা জানান, এ রকম কোনো ঘটনা ঘটেনি।

যুবলীগ নেতা মাহমুদুর রহমান পলাশ বলেন, তোফা জামায়াত-বিএনপির লোকজন নিয়ে হামলা করেছেন।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!