সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

আ.লীগে যোগ দিলেন পাবনা পৌর মেয়র কামরুল হাসান মিন্টু

নিজস্ব প্রতিনিধি : পাবনার পৌর মেয়র কামরুল হাসান মিন্টু আওয়ামী লীগে যোগদান করেছেন।

আজ রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

পাবনা পৌরসভার মেয়র কামরুল হাসান মিন্টু ছাড়াও প্যানেল মেয়র ফরিদুল ইসলাম ডালু, কাউন্সিলর মজিদুল ইসলাম কালুসহ পৌর পরিষদের ১৫ কাউন্সিলর আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

সন্ধা ৭ টায় ঢাকার ধানমন্ডি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে তারা আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

যোগদান কালে ফুলেল শুভেচ্ছাসহ তাদেরকে বরণ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম ও জাহাঙ্গীর কবীর নানক।

এসময় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের আরও অনেক নেতাসহ সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. শামসুল হক টুকু এমপি, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পাবনা-৫ আসনের সাংসদ গোলাম ফারুক প্রিন্স, পাবনা-২ আসনের সাংসদ আহমেদ ফিরোজ কবীর,

কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক দুদক কমিশনার বীর মুক্তিযোদ্ধা সাহাবুদ্দিন চুপ্পু, পাবনা সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোশারফ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সোহেল হাসান শাহীন, সুজানগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিনুজ্জামান শাহীন, পাবনা জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আলী মর্তুজা বিশ্বাস সনি, যুগ্ম আহ্বায়ক শিবলী সাদিকসহ পাবনার প্রায় দেড় হাজার নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

যোগদান অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে কামরুল হাসান মিন্টুকে আওয়ামী লীগে যোগদান করানো হলো।

এর আগে কামরুল হাসান মিন্টু বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। প্রায় ১১ বছর আগে তাকে পাবনা বিএনপি থেকে বহিস্কার করা হয়েছিলো। ছাত্র জীবনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে এবং পরে বিএনপিতে যোগদানের আগ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন কামরুল হাসান মিন্টু।

বর্তমানে পাবনা পৌরসভায় মেয়রের দায়িত্ব পালন করছেন সাবেক ছাত্রনেতা কামরুল হাসান মিন্টু। ২০১৬ সালের নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে তিনি পাবনার মেয়র নির্বাচিত হন। এর আগেও দু’দফায় তিনি পাবনা পৌরসভায় মেয়র নির্বাচিত হন।

১৯৯৩ সালে পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক ও জেলার সর্বস্তরের মানুষের কাছে তুমুল জনপ্রিয় নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম বকুলের নেতৃত্বে পুরো পাবনা আওয়ামী লীগের অর্ধেকই যোগ দেয় বিএনপিতে। সেই সময় কামরুল হাসান মিন্টু বিএনপিতে যোগদান করেন।

পরে গুরু বকুলের হাত ধরে পাবনায় রাতারাতি শক্তিশালী হয়ে ওঠে বিএনপি।

এদিকে ১৯৯৯ সালে বাম রাজনীতি ছেড়ে বিএনপিতে যোগদেন পাবনার আরেক নেতা শিমুল বিশ্বাস। শিমুল বিশ্বাস বিএনপিতে তুলনামূলক নবাগত হলেও গুলশানে বিএনপি চেয়ারপার্সনের আস্থাভাজন হন। তাকে কেন্দ্র করে পাবনায় বিএনপির রাজনীতিতে তৈরি হয় পক্ষ বিপক্ষ।

এরই জের ধরে ২০০৯ সালের ১০ মে সংস্কারপস্থী রব তুলে তৎকালীন পাবনা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও পৌর মেয়র কামরুল হাসান মিন্টুকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়।

পরে ২০১৯ সালের আগস্টে শতাধিক বহিস্কৃত নেতাদের ফেরাতে উদ্যোগ নেয় বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটি। সেখানে পাবনা জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও তিনবারের পৌর মেয়র কামরুল হাসান মিন্টুর নাম ছিলো।

পরে আর এ বিষয়ে কোন অগ্রগতি না হওয়ায় আজ আওয়ামী লীগে যোগ দিলেন পাবনার তিনবারের পৌর মেয়র কামরুল হাসান মিন্টু।

কিছুদিন যাবৎ কামরুল হাসান মিন্টুর আওয়ামী লীগে যোগদান নিয়ে বেশ গুঞ্জণ শোনা যাচ্ছিল। তারই বাস্তব রূপ আজ প্রতিফলিত হলো।


টুইটারে আমরা

© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial