বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:২৬ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ইউপিতে সহিংসতা : ক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগও

image_pdfimage_print

UP20160409041717ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকেই সারাদেশে ছড়িয়ে পড়েছে সহিংসতা। এসব সহিংসতায় এ পর্যন্ত ৩২ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। আহত হয়েছে সহস্রাধিক। এসব ঘটনায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অনেক নেতাই ক্ষুব্ধ। দলীয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, ইউপি নির্বাচনে সহিংস পরিস্থিতি গোটা নির্বাচন ব্যবস্থাকে হুমকির মুখে ফেলতে পারে। এতে আওয়ামী লীগও ক্ষতিগ্রস্থ হবে বলে মনে করছেন ক্ষমতাসীন দলের নেতারা।

জানা গেছে, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বেশির ভাগ সহিংসতার ঘটনা ঘটছে খোদ আওয়ামী লীগের মধ্যকার বিভাজনের জেরে। প্রথম দিকে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালালেও পরে নৌকা প্রতীক এবং বিদ্রোহী প্রার্থীদের মধ্যেই সংঘর্ষ বাধতে থাকে। এসব সংঘর্ষ, সহিংসতা দমাতে দলের কেন্দ্রীয় নেতারা আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হচ্ছেন। দলের মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যদের সঙ্গে নিয়মিত বৈঠকে বসছেন আওয়ামী লীগের সভপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যেখানে সহিংসতার বিষয়টিও গুরুত্ব পাচ্ছে।

গত ২২ মার্চ প্রথম ধাপে ৭২৩টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থীদের বিপরীতে প্রায় সাড়ে চারশ বিদ্রোহী প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। দ্বিতীয় ধাপে (৩১ মার্চ) ৬৪৩টিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ ধাপেও পাঁচ শতাধিক বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

আগামী ২৩ এপ্রিল তৃতীয় ধাপ এবং ৭ মে চতুর্থ ধাপের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তৃতীয় ধাপেও প্রায় ৩শ’র মতো বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছে বলে জানা গেছে। চতুর্থ ধাপের নির্বাচনেরও বিপুল সংখ্যক বিদ্রোহী প্রার্থী থাকবে।

বহিষ্কারসহ বিদ্রোহীদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থান নেয়ার পরেও আওয়ামী লীগ তৃণমূলের সঙ্কট নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। এ নিয়ে দলের মধ্যকার অনেকেই ক্ষুব্ধ।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, স্থানীয় সরকার ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে সরকার পরিবর্তন হয় না। সেই নির্বাচনে এমন সহিংসতা কেউ মানতে পারে না। এতগুলো মানুষের প্রাণ গেল। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন আছে। নির্বাচন কমিশনও অনেক জায়গায় সঠিক দায়িত্ব পালন করছে বলে মনে হচ্ছে না।

তিনি আরো বলেন, এমন সহিংসতা কারো জন্যই মঙ্গলজনক নয়। সহিংসতা কমানোর জন্য সামনের দিনগুলোতে সবাইকে আরো দায়িত্বশীল আচরণ করা উচিত।

আওয়মী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ইউপি নির্বাচনে হতাহতের ঘটনা দুঃখজনক। আর কোনো বাড়াবাড়ি সহ্য করা হবে না। আইশৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোর হস্তে বিশৃঙ্খলা দমন করতে বলা হয়েছে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
x
error: Content is protected !!