শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৩৪ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

‘ইরাক নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের ফসল আইএস’

‘ইরাক নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের ফসল আইএস’

image_pdfimage_print
‘ইরাক নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের ফসল আইএস’

‘ইরাক নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের ফসল আইএস’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরাক যুদ্ধের পর দেশটির সেনাবাহিনী থেকে সাদ্দাম হোসেন অনুগতদের বহিষ্কার করে যুক্তরাষ্ট্র। বহিষ্কার হওয়া ওই সেনা সদস্যরাই পরবর্তীতে ইসলামিক স্টেট গঠন করে বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র সচিব ফিলিপ হ্যামন্ড।

হ্যামন্ড বলেন, ২০০৩ সালে আমেরিকার কূটনীতিক পল ব্রেমার ইরাক পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। তিনি দেশটির সেনাবাহিনীকে ভেঙ্গে ফেলেন। যার ফলে প্রায় চার লাখ সেনা চাকুরি হারিয়ে রাস্তায় নেমে আসে।

“ব্রেমারের ওই সিদ্ধান্ত পরবর্তীতে সর্বনাশা ভুল বলে প্রমাণিত হয়।”

বৃহস্পতিবার গার্ডিয়ানে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, হাউজ অব কমন্সে ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটির বৈঠকে হ্যামন্ড তার বক্তব্যের পক্ষে প্রমাণ দেন।

হ্যামন্ড বলেন, “আজকের ইরাকের অনেক সমস্যার মূলেই রয়েছে তৎকালীন ইরাকি সেনাবাহিনী ভেঙ্গে (ইরাকের সেনাবাহিনী থেকে সাদ্দমের বাথপার্টির অনুগতদের বের করে দেওয়া) ফেলার সর্বনাশা ওই সিদ্ধান্ত।”

“ইরাক যুদ্ধ পরবর্তী পরিকল্পনায় ওটা ছিল বড় ভুল। যদি ওই সময় আমরা অন্যভাবে পরিকল্পনা সাজাতাম তবে আজ হয়তো আমরা অন্যরকম ফলাফল দেখতে পেতাম।”

চাকুরি হারানো ওইসব পেশাদার সেনারা গণহারে আল-কায়দার মত জঙ্গি সংগঠনে যোগ দেয় এবং সেখান থেকে পরে আইএস-র জন্ম হয়।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্র সচিব বলেন, “এটা পরিষ্কার যে, উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সাবেক ‘বাথিস্ট’ সেনাকর্মকর্তারা সিরিয়া ও ইরাকে দায়েশের (আইএস) পেশাদার কোর গঠন করেছে। তারাই জঙ্গি সংগঠনটিকে সেনাবাহিনীর কায়দায় অভিযান পরিচালনা করতে সক্ষম করে তুলেছে।”

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!