শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:০৬ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

‘ইসলাম কখনই হত্যা, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডকে সমর্থন করে না’

image_pdfimage_print

prince-201665শহর প্রতিনিধি: পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ ম্পাদক ও পাবনা-৫ সদর আসনের সংসদ সদস্য গোলাম ফারুক প্রিন্স বলেছেন, ইসলাম শান্তির ধর্ম, পবিত্র ইসলাম ধর্ম কখনই হত্যা, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডকে সমর্থন করে না।

ইসলামের নাম করে যারা অন্যের প্ররোচনায় ঈদের দিন নির্বিচারে মানুষ হত্যা করছে দেশে বিদেশে আমাদের পবিত্র ধর্ম ইসলামকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে তাদের ছাড় দেওয়া হবে না।

জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন সারা বিশ্বে উন্নয়নের মডেল এবং সুনাম অর্জন করেছে। কিন্তু এই সুনাম কারও কারও সহ্য হচ্ছে না বলেই জামায়াত শিবিরের সন্ত্রাসীদের লেলিয়ে দিয়ে আইএস এর নামে হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে বিশ্বের কাছে দেশের সুনাম নষ্ট করছে।

সেই সাথে বাংলাদেশকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্রে পরিণত করার ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। শুধুমাত্র ক্ষমতার লোভে নির্বাচিত সরকারের বদলে তালেবানি জঙ্গি সরকার আনার চেষ্টা করা হবে দুঃখজনক। তাদের স্বপ্ন বাংলার মানুষ কখনই বাস্তবায়ন হতে দেবে না।

জঙ্গিবাদ দমনে শেখ হাসিনা যেসব পদক্ষেপ নিচ্ছেন তা কঠোর হস্তে বাস্তবায়ন করা হবে। একমাত্র বেগম খালেদা জিয়া ও তার দোসর জামাত শিবির ছাড়া দেশের মানুষ জঙ্গিবাদ দমনে ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। প্রতিটি বাবা মায়ের উচিৎ তাদের সন্তানদের সঠিক খোঁজ খবর নেওয়া। যেন তারা পথভ্রষ্ট না হয়।

শনিবার (২৩ জুলাই) দুপুরে সদর উপজেলার বাজিতপুর ঘাটে ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ব্রীজ নির্মান কাজের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

এমপি বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে দেশের মানুষ এমনকি বিদেশীরাও অভিভূত। বিগত যে কোন সরকারের আমলের চেয়ে বর্তমান সময়ে দেশের রাস্তাঘাট, ব্রীজ কার্লভাট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, বিদ্যুত ব্যবস্থাসহ সকল ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে।

সেই সাথে মানুষের মাথাপিছু আয়ও বৃদ্ধি পেয়েছে। মানুষ শান্তিতে সুন্দর পরিবেশে তার পরিবার পরিজন নিয়ে স্বাচ্ছন্দে বসবাস করছেন। কিন্তু শুধুমাত্র মসনদে যাওয়ার লোভে এই শান্তিময় পরিবেশ নষ্ট করে এক সময় যারা বোমা ফাটিয়ে, গাড়ীতে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়ে নিরীহ মানুষ হত্যা করেছে, তারাই এখন আইএস’র নাম ভাঙ্গিয়ে গুলি করে মানুষ হত্যা করছে।

এসব সন্ত্রাসকে কঠোর হাতে দমন করতে হবে। এজন্য আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। প্রতিটি পাড়া মহল্লায় জঙ্গি প্রতিরোধ কমিটি গড়ে তুলতে হবে এবং জঙ্গি ও জঙ্গির সহায়তাকারী অর্থদাতা, প্রশ্রয়দাতাদেরও খুঁজে বের করে প্রতিহত করতে হবে। কারন জঙ্গি সন্ত্রাসী এবং এদের আশ্রয় প্রশ্রয়দাতা সবাই দেশ ও জাতির শত্রু।

এমপি প্রিন্স আরো বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া বর্তমান সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে গিয়ে তিনিই বেকায়দায় পড়ে গেছেন। বাংলার মানুষ এমনকি বিদেশীরাও তার আসল রূপ টের পেয়ে গেছেন। এখন সময় এসেছে জনতার কাঠগড়ায় তার এসব অপকর্মের বিচার হবে। একমাত্র খালেদা জিয়া এবং জামাত শিবির ছাড়া বাংলার আপামর জনগন ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন এবং সরকারকে জঙ্গিবাদ দমনে সহযোগিতা করছেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে জেলা আওয়ামী লীগের আবুল কালাম আজাদ, হিমায়েতপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন মালিথা, আওয়ামী লীগ নেতা কামরুজ্জামান রকি, হীরক হোসেন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ রাসেল আলী মাসুদ, পৌর আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ মাসুদ, সাদী, আব্দুর রশিদ, আব্দুল করিম, চাঁদ আলী, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রায়হান, পিয়াল, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সেক্রেটারী আতিয়ার বিশ্বাস, ওয়ার্ড কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম নজু প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!