রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ঈশ্বরদীতে জঙ্গি হামলার আশংকায় লেখকের জিডি

ঈশ্বরদীতে জঙ্গি হামলার আশংকায় লেখকের জিডি

image_pdfimage_print
ঈশ্বরদীতে জঙ্গি হামলার আশংকায় লেখকের জিডি

ঈশ্বরদীতে জঙ্গি হামলার আশংকায় লেখকের জিডি

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি: কলাম লেখক ও স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ মোশাররফ হোসেন মুসা জঙ্গি আক্রমণের ভয়ে থানায় জিডি দাখিল করেছেন। একজন অপরিচিত ব্যক্তি তাকে ইসলাম ধর্মের পক্ষে লেখার জন্য দু’টি বই দিয়ে সাবধান করে যান- তিনি যেন জিহাদীদের বিরুদ্ধে কিছু না লেখেন।

জানা গেছে, ১২ জুলাই ’১৬ তারিখ রাত আনুমানিক ১০টা ৩০ মিনিটের সময় লেখক মোশাররফ হোসেন মুসা তার ঈশ্বরদী আলহাজ্ব গেটস্থ এনজিও অফিস ‘পিসিডিসি’ (প্রাইমারি কালচার ডেভেলপমেন্ট সেন্টার) বন্ধ করার সময় একজন অপরিচিত ব্যক্তি হঠাৎ উপস্থিত হয়ে কুশলাদি বিনিময়ের পর “বহুজাতির পিতা ইব্রাহিম” নামে দু’টি বই দিয়ে বলেন- তিনি যেন জিহাদীদের বিরুদ্ধে কিছু না লেখেন এবং ইসলাম ধর্মের পক্ষে লেখেন। তারপর অপরিচিত ব্যক্তিটি একটি ব্যাটারীচালিত অটোরিক্সাযোগে চলে যান।

তিনি বিষয়টি উল্লেখ করে ভবিষ্যৎ নিরাপত্তার স্বার্থে পরদিন থানায় একটি জিডি দাখিল করেন (যার নং- ৬৪২, তাং- ১৩/৭/২০১৬)। তিনি জিডিতে উল্লেখ করেন, ওই ব্যক্তি গত ২৪ অক্টোবর ’১৫ তারিখ সন্ধ্যা সাড়ে ৮ টার সময় পিসিডিসি অফিসে আরেকবার এসেছিলেন। সেদিন অফিসে তিনি ছাড়াও নারীবাদী লেখক মিলন আহমেদ ও আইনজীবী মোখলেছুর রহমান মুকুল বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন।

ওই ব্যক্তি হঠাৎ অফিসে উপস্থিত হয়ে বলেন, তিনি তাবলীগ জামায়াতের লোক। ঈশ্বরদী রেল স্টেশনে তার ব্যাগসহ টাকা-পয়সা খোয়া গেছে। তার নাম হেদায়েতুল ইসলাম বাপ্পি।

বাড়ি রাজশাহী ভদ্রা এলাকায়। পাবনার বিশিষ্ট সমাজসেবী ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব মরহুম এম এ হামিদ (যার নামে এম এ হামিদ সড়ক) সম্পর্কে তার নানা হন। তিনি উপস্থিত সকলকে ইসলাম ধর্মের পক্ষে লেখালেখি করার জন্য অনুরোধ করেন।

তিনি যাওয়ার সময় মোশাররফ হোসেন মুসার নিকট থেকে ৩শ’ টাকা সাহায্য নেন। কথাবার্তার এক ফাঁকে মিলন আহমেদ মোবাইল ফোনে তার ছবি তুলে রাখেন। পরবর্তী সময়ে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এম এ হামিদের কোন আত্মীয় রাজশাহীতে বসবাস করেন না।

ব্যক্তিটির গতিবিধি ও কথাবার্তা সন্দেহজনক হওয়ায় তাকে জঙ্গিবাদী কোনো দলের সদস্য মনে হয়েছে।

মুসাকে এর আগেও চরমপন্থি রাজনীতির বিরুদ্ধে লেখার কারণে দাদা তপন ওরফে তপন মালিথা (যিনি পরবর্তীতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন) প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছিলেন। প্রাণনাশের আশংকায় তখনও মুসা থানায় জিডি দাখিল করেছিলেন (যার নং-৬১০, তাং- ১৫/৫/২০০৭)। মোশাররফ হোসেন মুসা বিগত বিএনপি সরকারের আমলে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ‘প্রধানমন্ত্রী তাড়াতাড়ি করেন, শিন্নী ঠান্ডা হয়ে গেল’ শিরোনামে একটি রম্য রচনা লেখার কারণে গ্রেফতার হয়েছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সঙ্গে যৌথভাবে লিখিত স্থানীয় সরকার বিষয়ে তাঁর তিনটি বই রয়েছে। তাছাড়া তার নিজের নামে ‘জনগণের দেশ বনাম নাগরিকের দেশ’ নামে আরেকটি বই রয়েছে। তিনি লেখালেখির পাশাপাশি ইউনিয়ন পরিষদের সচিব পদে কর্মরত রয়েছেন। তিনি বর্তমানে জঙ্গিবাদীদের হামলার আশংকাবোধ করছেন।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!