বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ১১:৩০ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ঈশ্বরদীতে বেসরকারি স্বাস্থ্যকেন্দ্র পরিদর্শন করলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী

image_pdfimage_print

পাবনা প্রতিনিধি : পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, চীন ও ভারতের বৈরি সম্পর্ক বাংলাদেশের উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি করবে না।

দু’টি দেশই বাংলাদেশের বিশ্বস্ত বন্ধু। তাই তাদের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব বাংলাদেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে কোন প্রভাব ফেলবে না।

শনিবার (১৪ নভেম্বর) সকালে পাবনার ঈশ্বরদীর নুরজাহান স্বাস্থ্যকেন্দ্র পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ঈশ্বরদীর বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা নিউএরা ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে পরিচালিত নূরজাহান স্বাস্থ্যকেন্দ্রর অভ্যন্তরীণ ও ব্যবস্থাপনা দেখে তিনি সন্তুষ্ট।

স্বাস্থ্যকেন্দ্র পরিদর্শনকালে নিউ এরা ফাউন্ডেশনের প্রায় দুইশ’ কর্মী মন্ত্রীকে ফুল ছিটিয়ে অভ্যর্থনা জানায়।

এ উপলক্ষ্যে স্বাস্থ্যকেন্দ্র চত্বরে নিউএরা ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সাবেক এমপি মঞ্জুর রহমান বিশ্বাসের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে পাবনার জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পি এম ইমরুল কায়েস, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মমতাজ মহল, ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেখ নাসির উদ্দিন, নিউএরা ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা ফৌজিয়া মঞ্জুর, প্রকল্প সমন্বয়ক মোস্তাক আহমেদ কিরণ, সাপ্তাহিক ঈশ্বরদীর সম্পাদক সেলিম সরদার, সময়ের ইতিহাসের সম্পাদক শেখ মহসীন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

এর আগে শুক্রবার বিকেলে ঈশ্বরদীর রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালেও মন্ত্রী বলেন, ভারত আমাদের দীর্ঘদিনের বিশ্বস্ত প্রতিবেশী ও বন্ধু রাষ্ট্র।

মহান মুক্তিযুদ্ধে তাদের অপরিসীম অবদান আছে। তাদের সঙ্গে বন্ধুত্বের ক্ষেত্রে কখনো চিড় ধরেনি। চীনও বাংলাদেশের উন্নয়নের সহযোগী বিশ্বস্ত বন্ধু রাষ্ট্র। ভারত ও চীনের মধ্যে বৈরি সম্পর্ক থাকলেও তা আমাদের ওপর প্রভাব ফেলবে না।

প্রেস ব্রিফিংয়ের আগে মন্ত্রী রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিদর্শন করেন। এসময় রাশিয়া থেকে পাঠানো রূপপুর প্রকল্পের প্রথম ইউনিটের রিয়েকটর প্রেসার ভেসেল দেখে তিনি বলেন, ‘রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প আমাদের জন্য বিশাল একটি অর্জন।

আমাদের মতো দেশের জন্য এই অকল্পনীয় প্রকল্প বাস্তবায়ন কেবল প্রধানমন্ত্রীর দুঃসাহসিক সিদ্ধান্তের কারণেই সম্ভব হয়েছে। আমরা নিউক্লিয়ার মারণাস্ত্র ব্যবহারের বিপক্ষে সোচ্চার, কিন্তু মানুষের উপকারে ইতিবাচক কাজে নিউক্লিয়ার টেকনোলজি ব্যবহারের পক্ষে। এটি আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি অনেক বৃদ্ধি করবে।’

এ সময় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে সারা পৃথিবী স্থবির হয়ে গেলেও রূপপুরে নিরবচ্ছিন্ন কাজ করেছেন রাশিয়ান ও দেশীয় কর্মীরা। তাদের কারণেই শিডিউল অনুযায়ী কাজ এগিয়ে চলেছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই প্রকল্পের কাজ সমাপ্ত হবে।’

এ সময় পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন, পাবনার জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদ, পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. শৌকত আকবর, ঈশ্বরদীর ইউএনও পিএম ইমরুল কায়েসসহ প্রকল্প সংশ্লিষ্ট দেশি-বিদেশী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!