শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৮:০৬ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

ঈশ্বরদী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতির বহিস্কার নিয়ে বিভ্রান্তি!

পাবনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রুহুল আমিনের ফেসবুক স্ট্যাটসের লেখাটি

image_pdfimage_print

11111বার্তাকক্ষ : দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত থাকার দায়ে ঈশ্বরদী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আবদুস সালাম খান ও উপজেলার ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাসকে দল থেকে বহিষ্কার ঘোষণা করেন পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এমপি।

একই সাঙ্গে মেয়াদ উত্তীর্ণ উপজেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগ কমিটি বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। শনিবার (০৬ আগষ্ট) বিকেলে ঈশ্বরদী শহরের দলীয় কার্যালয়ে উপজেলার যুবলীগের বর্ষিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে এই ঘোষণা দেন ভূমিমন্ত্রী।

অথচ, পাবনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রুহুল আমিন তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে এই বহিস্কারের সিদ্ধান্ত কোন দলীয় সিদ্ধান্ত নয় বলে অবহিত করেছেন।

রুহুল আমিনের ফেসবুকের লেখাটি নিউজ পাবনা ডটকম পত্রিকার পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো-  বাংলাদেশ ছাত্রলীগ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সর্ববৃহৎ একটি প্রাচীনতম ছাত্রসংগঠন। এই ছাত্রসংগঠনের একটি সুনির্দিষ্ট ও সুনির্ধারিত গঠনতন্ত্র রয়েছে যার দ্বারা এইবৃহৎ ছাত্রসংগঠনটি অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে পরিচালিত হয়ে আসছে ১৯৪৮ খ্রিষ্টাব্দ থেকে আজ অবধি পর্যন্ত। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কোনো নেতা-কর্মী যদি সংগঠনের গঠনতন্ত্র পরিপন্থী কোনো কার্যকলাপ এর সাথে সংযুক্ত থাকে অথবা সংগঠনের সম্মান ক্ষুন্ন হয় এমন কোনো কাজ করে থাকে তবে সংগঠনের সম্মান রক্ষার্থে উক্ত নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে যেকোনো পদক্ষেপ যেমন; বহিষ্কার করা, অব্যাহতি দেওয়া,কমিটি বিলুপ্ত করা ইত্যাদি শুধুমাত্র বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ই করতে পারবে। সম্প্রতি বিভিন্ন অনলাইন নিউজ এ পাবনা জেলা অন্তর্গত ঈশ্বরদী উপজেলা ছাত্রলীগের সংগ্রামী সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাসকে বহিষ্কারের যে খবর প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পূর্ণভাবে মিথ্যা,বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। এই খবরের সঙ্গে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ও পাবনা জেলা ছাত্রলীগের কোনো সম্পর্ক নাই। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ বা পাবনা জেলা ছাত্রলীগের এমন কোনো দাপ্তরিক বা সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত কখনো কোনো অবস্থাতেই নেওয়া হয় নাই। তাই বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পাবনা জেলা ও জেলার অন্তর্গত সকল নেতা কর্মীকে বিশেষভাবে আহ্বান জানানো যাচ্ছে যে, আপনারা কোনো উড়ো কথায় হতাশ বা বিভ্রান্ত হবেন না। ছাত্রলীগ শুধুমাত্র ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ই চলবে 

আহ্বানে:-

মোঃ রুহুল আমিন
সভাপতি
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ,পাবনা জেলা শাখা।

এই লেখাটি প্রকাশের সময় রুহুল আমিন নিউজ পাবনা ডটকম পত্রিকার একটি স্ক্রিন শটও ব্যবহার করেছেন।  (যা নিম্নে দেওয়া হলো) 

নিউজ পাবনার স্ক্রিন শট

নিউজ পাবনার স্ক্রিন শট

ঈশ্বরদী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাসকে বহিষ্কারের বিষয় জানতে চাইলে রুহুল আমিন বলেন, ঈশ্বরদী উপজেলা ছাত্রলীগের সংগ্রামী সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাসকে বহিষ্কারের যে খবর প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পূর্ণভাবে মিথ্যাবানোয়াট ও ভিত্তিহীন। এই খবরের সঙ্গে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ও পাবনা জেলা ছাত্রলীগের কোনো সম্পর্ক নাই। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ বা পাবনা জেলা ছাত্রলীগের এমন কোনো দাপ্তরিক বা সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত কখনো কোনো অবস্থাতেই নেওয়া হয় নাই।

তাই বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পাবনা জেলা ও জেলার অন্তর্গত সকল নেতা কর্মীকে বিশেষভাবে আহ্বান জানানো যাচ্ছে যে,আপনারা কোনো উড়ো কথায় হতাশ বা বিভ্রান্ত হবেন না। ছাত্রলীগ শুধুমাত্র ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ই চলবে।

উল্লেখ্য, শনিবার ঈশ্বরদী শহরের দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা যুবলীগের বর্ষিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বহিস্কারের এই ঘোষণা দেন ভূমিমন্ত্রী।

 এসময় তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশ ও দেশের মানুষকে রক্ষার জন্য জীবন বাজী রেখে সংগ্রাম করছেন। আর ঈশ্বরদীর যুবলীগ ও ছাত্রলীগের এই দুই নেতা সন্ত্রাস ও দূর্নীতি, বোমাবাজি, টেন্ডারবাকি দখলের মাধ্যমে জনগণের ক্ষতি করছেন। তাই তাদেরকে দলের সকল কর্মকান্ড ও পদ থেকে দুই বছরের জন্য বহিষ্কার করা হলো।

বর্ধিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সাঁড়া ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান এমদাদুল হক রানা সরদার। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলার আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মকলেছুর রহমান, সহ-সভাপতি মোহাম্মদ রশিদুল্লাহ,গোলাম মোস্তফা চান্না মন্ডল, উপজেলা কমিটির যুগ্ন সম্পাদক মাহজেবীন শিরিন, পাবনা জেলা যুবলীগের সভাপতি শরিফুদ্দিন প্রধান,সাধারণ সম্পাদক রাকিব হাসান প্রমুখ।

বর্ধিত সভা সুত্রে জানা গেছে, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে উপজেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগ সভাপতির নেতৃত্বে গত ১৪ ও ১৬ জুলায় ঈশ্বরদী শহরে আওয়ামী লীগের জঙ্গি ও সন্ত্রাস বিরোধী মিছিল বোমা হামলা, গুলিবর্ষণ, দলীয় কার্যালয় ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

শনিবার দুপুরে অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় বক্তারা আওয়ামী লীগের নেতারা বিষয়টি দলীয় সভায় উপস্থাপন করেন এবং এ ঘটনায় জন্য তাদের বহিষ্কারের দাবি করেন।

বহিষ্কারের দাবি উঠায় পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এমপি এই দুজনকে দল থেকে বহিষ্কারের ঘোষণা দেন এবং কমিটি বাতিল করে আহবায়ক কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন।

দলীয় সুত্রে জানা গেছে, গত ১৪ ও ১৬ জুলায় ঘটনায় ঈশ্বরদী থানায় যুবলীগ সভাপতি আব্দুল সালাম খান, ছাত্রলীগ ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাস, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি সানোয়ার হোসেন লাবু,পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ ৭৩ জনের বিরুদ্ধে পৃথক মামলা দায়ের করা হয়।

১৪ জুলাইয়ের মামলার বাদী হন উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য আকাল সরদার ও ১৭ জুলাই করা মামলার বাদী উপজেলা আওয়ামী লীগে সাধারণ সম্পাদক মকলেছুর রহমান।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!