ঈশ্বরদী মোকামে চালের দর কিছুটা কমেছে, প্রভাব নেই খুচরা বাজারে

নিজস্ব প্রতিনিধি : সরকারের সাথে বৈঠকের পর দেশের চালের অন্যতম বড় মোকাম ঈশ্বরদীতে চালের দর কেজি প্রতি দুই টাকা কমেছে।
 

গতকাল বুধবার (২০ সেপ্টেম্বর) এই মোকামে মিনিকেটসহ সব ধরনের চালের দাম কেজিতে দেড় থেকে ২ টাকা কমে বিক্রি হয়েছে।

তবে খুচরা বাজারে এর কোন প্রভাব পড়েনি।
এখনো পাবনার খুচরা বাজারে ৫০ টাকা কেজির নীচে মোটা চাল নেই। সরু চাল নাজিরশাইল বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকায়।
 

উল্লেখ্য, লাগামহীনভাবে চালের দর বাড়তে থাকায় গত মঙ্গলবার সচিবালয়ে ব্যবসায়ীদের সাথে বৈঠক করে সরকার।
 

বৈঠকের পর চালের দাম কমানোর আশ্বাস দেন ব্যবসায়ীরা। তবে এক্ষেত্রে ব্যবসায়ীদের দাবি অনুযায়ী চাল আমদানিতে পাটের পরিবর্তে প্লাস্টিকের বস্তার ব্যবহার মেনে নেয়া হয়।
 

সরেজমিন খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গতকাল পাবনায় খুচরা বাজারে মিনিকেট চাল ৬২ টাকা, বাসমতি চাল ৭০ টাকা, আটাশ ও কাজললতা ৫৬ টাকা এবং স্বর্ণা (মোটা) চাল ৪৪ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন চালকল মালিক জানান, গত মঙ্গলবার থেকে এই মোকামে মিনিকেটসহ সব ধরনের চালের দাম কেজিতে দেড় থেকে ২ টাকা কমে বিক্রি হয়েছে। খুচরা বাজারেও চালের দাম কমবে বলে তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।