‘উলফা’ নেতার ঘনিষ্ট সহযোগী রাজখোয়ার আত্মসমর্পণ

ভারতের বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন ইউনাইটেড লিবারেশন ফ্রন্ট অব আসাম বা উলফার পরেশ বড়ুয়া নেতৃত্বাধীন অংশের অন্যতম শীর্ষ নেতা দৃষ্টি রাজখোয়া দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন বলে খবর প্রকাশ করেছে দেশটির বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়, উলফার ডেপুটি কমান্ডার-ইন-চিফ পরেশ বড়ুয়ার সবচেয়ে ঘনিষ্ট হিসেবে পরিচিত রাজখোয়াসহ বেশ কয়েকজন উলফা সদস্য বুধবার (১২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় মেঘালয়ের গারো পাহাড়ে আত্মসমর্পণ করেন।

৫০ বছর বয়সী রাজখোয়া বাংলাদেশ সীমান্ত সংলগ্ন মেঘালয়, আসাম এবং দক্ষিণ গারো পাহাড় এলাকার বিভিন্ন গুপ্ত ঘাাঁটি থেকে তিন দশকের বেশি সময় ধরে সংগঠনের সশস্ত্র কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিলেন।

রাজখোয়ার আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে গারো পাহাড় এলাকায় দুই দশক ধরে চলা সশস্ত্র সংঘাতের অবসান হবে বলে প্রত্যাশা ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর। আসামের স্বাধীনতার দাবিতে সশস্ত্র কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসা উলফাকে ১৯৯০ সালে নিষিদ্ধ করে ভারত সরকার।