উল্লাপাড়ায় স্কুল শিক্ষিকার ‘আত্মহত্যা’

উল্লাপাড়ার নৃত্য শিল্পী ও উপজেলা প্রশাসন পরিচালিত উল্লাপাড়া সান ফ্লাওয়ার স্কুলের সহকারী শিক্ষিকা সুইটি খান জিনিয়া ‘আত্মহত্যা’ করেছেন। রোববার সন্ধ্যায় উল্লাপাড়া পৌরসভার কলেজপাড়ার তার ভাড়া বাসা থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

জিনিয়া উপজেলার উধুনিয়া ইউনিয়নের তরফভায়রা গ্রামের মৃত আফছার আলীর মেয়ে। জিনিয়ার মৃত্যুতে উল্লাপাড়ার সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

জিনিয়ার মা ডলি খাতুন জানান, তার কোনো পুত্র সন্তান নেই। দুটি মেয়ে। বড় মেয়ের অনেক আগেই বিয়ে হয়ে গেছে। জিনিয়ার বছর তিনেক আগে খালাতো ভাইয়ের সঙ্গে বিয়ে হয়। কিন্তু বছর না ঘুরতেই তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহের সৃষ্টি হলে জিনিয়া তার স্বামীকে তালাক দেয়। এই ঘটনার ৬ মাস পর জিনিয়ার বাবা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। বাবার মৃত্যুর পর ভেঙে পড়ে জিনিয়া। বাবার মৃত্যুর দেড় বছর পর তিনি (ডলি খাতুন) ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। দু’বছর ধরে অপারেশন ও ক্যান্সারের চিকিৎসা করাতে গিয়ে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিল জিনিয়া।

উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দীপক কুমার দাশ জানান, সুইটি খান জিনিয়ার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।