বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০, ১১:২৫ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

এবার ফেসবুকে নিজের লাঞ্ছনার বিষয়টি জানালেন রুয়েট শিক্ষার্থী

রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষক দম্পতির পর এবার অটোরিকশায় লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। ফেসবুক ওয়ালে নির্যাতনের বিষয়টি জানিয়েছেন তিনি।

ভুক্তভোগী রুয়েট শিক্ষার্থীর ফেসবুক ওয়ালে দেয়া স্ট্যাটাসটি নিউজ পাবনার পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো, “আমার বাসা উপশহর। বাসা দূর বলে আমি সাধারণত রুয়েট থেকে রেলগেট পর্যন্ত অটোতে করে আসি। আজকেও প্রতিদিনের মতো অটো নিলাম, সাথে ছিল দুইজন অপরিচিত রুয়েটিয়ান ভাইয়া আর একজন ভদ্রলোক। রুয়েটিয়ান ভাই দুইজন চিশতিয়ার সামনে নেমে গেলেন। ভদ্রা পার হয়ে কিছুদূর যাওয়ার পর হঠাৎ অটোওয়ালা অটো থামায় দিলো, সামনে থাকা ভদ্রলোককে বললো, “আপনি নেমে যান, আমি নিজস্ব লোক তুলবো”! আমি কিছু বুঝে উঠার আগেই ওই ভদ্রলোককে জোরপূর্বক নামিয়ে চারজন গুন্ডা উঠে। সঙ্গে সঙ্গে অটো চালতে শুরু করে! ভদ্রা থেকে রেলস্টেশন পর্যন্ত রাস্তা মোটামুটি নির্জন, ইচ্ছামত সেই চারজন আমাকে স্পর্শ করা শুরু করলো। হাজার বার অটো থামানোর জন্য চিৎকার করার পরও অটোওয়ালা পশুর মত হাসতে থাকলো… পরে নগরভবনের সামনে পুলিশ দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে ভয় পেয়ে তারা অটো থেকে ধাক্কা মেরে আমাকে ফেলে দিয়ে দ্রুত চলে গেলো!!! যতক্ষণে নিজের পায়ে দাঁড় হতে পেরেছি ততক্ষণে অটো বহুদূর … কাহিনীটা শুধু শেয়ার করলাম। এইটা বাংলাদেশ, কোনো বিচারের আশা আমি করছিনা। বি.দ্র. : অনেকের মনে প্রশ্ন থাকতে পারে আমার পোশাক কি ছিলো? সাধারণ বাঙালী নারীর মত সালোয়ার কামিজ।”

উল্লেখ্য, গত ১০ আগস্ট রুয়েটের ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের শিক্ষক সাহেববাজার মণিচত্বর এলাকায় ঈদের কেনাকাটা করতে এসে স্ত্রীসহ অজ্ঞাত ইভটিজারদের হাতে প্রকাশ্যে লাঞ্ছনার শিকার হন। তবে ওই শিক্ষক তাৎক্ষণিক পুলিশকে অবহিত না করে ক্ষুব্ধ হয়ে স্ট্যাটাস দেন। ভাইরাল হওয়া নিউজটি পুলিশের নজরে এলে ১৬ আগস্ট মামলা হয়।


টুইটারে আমরা

© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial