শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১, ১০:০৮ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

করোনা কালের জীবন ধারা

image_pdfimage_print


।। এবাদত আলী।।
(পূর্ব প্রকাশের পর ) (৬২)

সৃষ্টির আদিকাল হতেই নারী-পুরুষের যৌনক্ষুধা বা কাম ভাব বিদ্যমান। ক্ষুধা লাগলে যেমন খাবারের প্রয়োজন হয়, তেমনি নারী ও পুরুষ একটি নির্দিষ্ট বয়সে উপনীত হলে তাদের যৌন চাহিদা সৃষ্টি হয়। এই যৌন চাহিদা মিটানোর জন্য মানব সমাজে পরিণত বয়সে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে হয়। তা নাহলে যৌন চাহিদার বশবর্তী হয়ে যেনা ব্যভিচারে পা বাড়ায় যুবক যুবতীরা। তখন এটা মানব জীবনকে কলুসিত করে। নিয়ম বহির্ভুত যৌনাচারের ফলে সমাজে অস্থিরতা পরিলক্ষিত হয়।

মানব যৌনতা হলো মানুষের কামোদ্দীপক অভিজ্ঞতা এবং সাড়া প্রদানের ক্ষমতা। কোন ব্যক্তির যৌন অভিমুখিতা অন্য ব্যক্তির প্রতি তার যৌন আগ্রহ ও আকর্ষণকে প্রভাবিত করে। ধর্মীয় অনুসাশন ও আদর্শ নীতি-নৈতিকতার মধ্য দিয়ে এর সাধারণ গতি সীমাবদ্ধ থাকে। এর ব্যত্যয় ঘটলে অবৈধতা বলে গণ্য করা হয়। যার নামকরণ করা হয় ধর্ষণ। এই ধর্ষণকে সামাজিক ব্যাধি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়ে থাকে। আর এই ব্যাধি বৈশ্যিক করোনা ব্যাধির মত। করোনা ব্যাধি যেমন স্থান, কাল পাত্র ভেদে সর্বত্র সমান, ধর্ষণ ও যেন তাই। পেটের ক্ষুধা মিটানোর পরই নিজের অজান্তেই সৃষ্টি হয় যৌন ক্ষুধার। তখন বৈধতার ঘাতটি থাকলে তা অবৈধ উপায়ে সমাধানে প্রবৃত্তি মেতে ওঠে।

মহামারি করোনাকালের জীবন ধারার মাঝেও এমনি অস্বাভাবিক ঘটনার অবতারনা হয়েছে কোয়ারেন্টিন সেন্টারে থাকা করোনা রোগীকে ধর্ষণের মধ্য দিয়ে। প্রতিবেশি রাষ্ট্র ভারতের সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত এলাকা মহারাষ্ট্রে। অমানবিক এই ঘটনায় সবাই হতবাক। এতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা। পানভেলের একটি করোনা সেন্টারে করোনা রোগীকে ধর্ষণকারির নাম শুভম খাতু। নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে ওই নারীর কক্ষে ঢোকে অভিযুক্ত শুভম। তারপর জোরপুর্বক ধর্ষণ করলে পরদিন সকালে ওই নারী অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ অভিযুক্তকে নিজেদের হেফাজতে নিতে করোনার রিপোর্টের জন্য অপেক্ষা করছে। আনুষঙ্গিক তদন্ত কাজ চলছে বলে পুলিশ বলেছে। ( সুত্র: কলকাতা-২৪, ১৮ জুলাই-২০২০)।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে বিপর্যস্ত অবস্থার ভেতর আমাদের বাংলাদেশেও থেমে নেই নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা, ধর্ষণ ও নির্যাতনের ঘটনা। নির্যাতিতাদের মধ্যে ২৬৭ জন নারী ও ২১৩ জন শিশু। এর মধ্যে ২০৬ টি ঘটনায় ৯০জন নারী ও ১১৬জন শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা ও ধর্ষণের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ। ১৪ টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত নারী ও কন্যার প্রতি সহিংসতার ঘটনা বিশ্লেষণ করে এসব তথ্য জানিয়েছে সংগঠনটি। মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশের জনগণও করোনাভাইরাস পরিস্থিতরি কারণে বিপাকে পড়েছে। করোনা সংক্রমণ রোধে গত ২৬ মার্চ থেকে কয়েক দফায় ৩০ মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি বাড়ায় সরকার। এসময়ে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মানুষকে ঘরের ভেতর থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়। অনেক মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ায় অলস সময় অতিবাহিত করছে। অর্থনৈতিক টানাপোড়েন, সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন অনিশ্চিত পরিস্থিতিতে হতাশা ও অস্থিরতাবোধ করায় পরিবারের সদস্যদের মধ্যে সহিংস আচরণের ঘটনা ঘটেছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, নারী ও কন্যা শিশুর ওপর এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে সব চেয়ে বেশি। নারী ও কন্যা শিশু শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছে।

করোনাকালে মানুষের যৌন বিষয়ক সহিংসতা ক্রমশঃ বৃদ্ধি পেতে চলেছে। লালমনিরহাট সদরের সাকোয়ারপাড় কাপড়ের গোডাউন ঘরে স্বামীকে বেঁধে রেখে গলায় ছুরি ধরে স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে চলতি মাসের প্রথম দিকে। এবিষয়ে স্বামী বাদি হয়ে দুই ধর্ষকের নাম উলে।রখ করে মামলা দায়ের করেছে। ধর্ষকরা হলো সুমন(২১) ও ফরিদুল (২২)।

মাগুরার মহম্মদপুরের নহাটা ইউনিয়নে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় উল্টো ওই ছাত্রীর পরিবারকে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা ও ছয়মাসের জন্য সমাজচ্যুত করা হয় গ্রাম্য শালিসে। এ ঘটনায় আতঙ্কিত ওই পরিবারের নিরাপত্তায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। জানা গেছে, শালিসের প্রধান ছিলেন, মহম্মদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল সিদ্দিকী লিটন। শালিসের টাকা না দেওয়ায় লিটনের নির্দেশে নহাটা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য ওবায়দুর রহমানের নেতৃত্বে কয়েকজন মিলে ভুক্তভুগীদের বাড়ি থেকে একটি গরু, চারটি ছাগল, একটি ভ্যান, শ্যালো মেশিনসহ বেশ কিছু মালামাল ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ঘটনায় ভুক্তভুগী পরিবার থানায় মামলা করেছে।

মহামারি করোনাকালে জুলাই মাসের শেষ দিকে বরিশালের আগগৈলঝাড়ায় খ্রিস্টান ধর্মের ফেলোসিফ মন্ডলির এক হতদরিদ্র পরিবারের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ করে একই উপজেলার পশ্চিম কাঠিরা গ্রামের আনরিয় পাড়াইয়ের ছেলে অমিত পাড়াই(২০)।ধর্ষণের বিষয়টি শিকারও করেছে ধর্ষকের পরিবার। এদিকে ওই ছাত্রী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্বা। ধর্ষক প্রভাবশালী হওয়ায় ধর্ষিতার পরিবারকে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখানোর ফলে ধর্ষিতা প্রাণভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তার পরিবার মামলা করতেও সাহস পাচ্ছেনা। এদিকে একটি মহল ধর্ষণের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে।

গত ৪ আগস্ট রাতে রাজধানীর মিরপুরের শাহ আলীতে চলন্ত বাসে এক কিশোরী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এঘটনার পর অচেতন অবস্থায় তাকে বাস থেকে ফেলে দেওয়া হয় মিরপুর -১ নম্বর সেকশন এলাকায়। সেখানকার লোকজন জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে বিষয়টি জানায়। এরপর কিশোরীকে উদ্ধার করে জড়িতদের গ্রেপ্তারে মাঠে নামে পুলিশ। যশোরের ঝিকরগাছায় স্বামী পরিত্যক্ত এক নারীকে ৪ জন মিলে ধর্ষণ করেছে। ঝিকরগাছা পৌরসদরের পুরন্দরপুর সাদ্দামপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটলে পুলিশ ৪ ধর্ষককে গ্রেপ্তার করে।

নাটোরের সিংড়ায় ১০ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে। গত ১৮ আগস্ট মামলা দায়ের করার পর পুলিশ ধর্ষক মহিদুল ইসরামকে গ্রেপ্তার করেছে। নাটোর জেলার গুরুদাসপুরে ঘটেছে স্বামীর সম্মতিতে গৃহবধু ধর্ষণ। গত ১৯ আগস্ট দৈনিক প্রথম আলোর এ খবর প্রকাশ করেছে। থানা-পুলিশ ও এজাহার সুত্রে জানা গেছে ঘটনার রাতে দুই সন্তানকে নিয়ে স্বামীর সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়েন ওই গৃহ বধু। এক পর্যায়ে তার তরুন দেবর ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণ করে। এসময় ওই গৃহবধূ ডাকাডাকি কররেও তার স্বামী সাড়া দেননি। পরে রাতেই স্বামী ও দেবরের বিরুদ্ধে মামলা করেন তিনি। গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মোজাহারুল ইসলাম বলেন, রাতেই অভিযান চালিয়ে ওই দুই ভাইকে গেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা অপরাধ স্বীকার করেছেন। এমন ভুরি ভুরি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে চলেছে এই করোনাকালে।

নারী নির্যাতন সম্পর্কে বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থার নতুন রিপোর্ট বলছে, ‘ বিশ্বের প্রায় এক তৃতীয়াংশ নারী যৌন নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন অহরহ। তার ওপর পারিবারিক নির্যাতন প্রতিরোধের যে সব পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে, সেটাও যথার্থ নয়। এছাড়া বিশে^র মোট নারীর ৭ শতাংশ নাকি জীবনের যে কোন সময় ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। (সমাজ সংস্কৃতি)। (চলবে) (লেখক: সাংবাদিক ও কলামিস্ট)।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!