মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৪২ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

কলেজছাত্রীর প্রেমের ফাঁদে ২ বিকাশ প্রতারক গ্রেপ্তার

image_pdfimage_print

বিকাশে প্রতারণার শিকার হয়েছিলেন রাজশাহীর নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রী। প্রতারকরদের একটি সংঘবদ্ধ চক্র কৌশলে পিন কোড চুরি করে তার বিকাশ অ্যাকাউন্ট থেকে হাতিয়ে নিয়েছিল ৫১ হাজার টাকা। ওই কলেজছাত্রীর বাবা রাজশাহী মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখায় অভিযোগ দিলে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে তাদের অবস্থান চিহ্নিত করা হয়। পরে পুলিশের পরামর্শে ভিকটিম ওই প্রতারক চক্রের একজনের সঙ্গে শুরু করেন প্রেমের অভিনয়। প্রেম জমে উঠলে ওই প্রতারক ফরিদপুর থেকে কলেজছাত্রীর সঙ্গে দেখা করতে আসেন রাজশাহীতে। তখন এক সহযোগীসহ ওই প্রতারককে গ্রেপ্তার করেন রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা।

আটকরা হলেন- ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার জাঙ্গালপাশা মধ্যপাড়া গ্রামের আবদুল খানের ছেলে হাসান খান (১৯) এবং জাঙ্গালপাশা পূর্বপাড়া গ্রামের নূর মোহাম্মদ শেখের ছেলে মাহমুদ হাসান ওরফে বায়েজিদ (১৯)।

পুলিশ বলছে, তারা পেশাদার প্রতারক। মুঠোফোনে কল দিয়ে তারা কৌশলে বিকাশের পিন নম্বর হাতিয়ে নেয়। এরপর সরিয়ে ফেলে বিকাশের টাকা। রোববার বিকেলে রাজশাহী নগরীর লক্ষ্মীপুর মোড়ে ওই কলেজ ছাত্রীর সঙ্গে দেখা করতে আসে দুই প্রতারক। পরে পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে। সোমবার তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

সোমবার দুপুরে নগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসি) আবু আহাম্মদ আল মামুন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, ভুক্তভোগী ওই ছাত্রী রাজশাহী নিউ গভ. ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী। গত ১৬ নভেম্বর তার মুঠোফোনে অচেনা একটি নম্বর থেকে কল আসে। ওই ব্যক্তি ছিল প্রতারক হাসান। তবে সে নিজেকে ওই শিক্ষার্থীর কলেজের শিক্ষক পরিচয় দেয়। সে বলে, করোনাকালে বিকাশের মাধ্যমে সরকার শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দিচ্ছে। কিন্তু যে নম্বরে বৃত্তি পাঠানো হবে সেই বিকাশে অন্তত ৫০ হাজার টাকা থাকতে হবে। তাহলেই এই নম্বরে সরকার টাকা পাঠাবে। পরে ওই শিক্ষার্থী তার অভিভাবকের সঙ্গে কথা বলে বিকাশে ৫০ হাজার টাকা তোলেন। আর তার বিকাশে আগে থেকেই কিছু টাকা ছিল। ওই ছাত্রী বিকাশে টাকা তোলার পর প্রতারক হাসান কৌশলে তার পিন নম্বরটি জেনে নেয়। এরপর সে ওই ছাত্রীর বিকাশ থেকে ৫১ হাজার টাকা সরিয়ে নেয়। পরে প্রতারণার বিষয়টি টের পেয়ে ওই ছাত্রী গোয়েন্দা পুলিশের কাছে যান।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, পুলিশ সবকিছু শোনার পর ওই প্রতারকের সঙ্গে ছাত্রীকে কথাবার্তা বলার পরামর্শ দেয়। মেয়েটি অন্য একটি নম্বর থেকে তার সঙ্গে কথা শুরু করেন। প্রতারক মেয়েটিকে চিনতে না পেরে প্রেমের ফাঁদে পড়ে রাজশাহী এলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। আটকের সময় দুইজনের কাছে মোট ৭৬ হাজার টাকা পাওয়া গেছে। তাদের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর বাবা নগরীর রাজপাড়া থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করেছেন।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!