সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১, ১০:৩৪ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

কুঠিবাড়ি থেকে প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন চুরি

image_pdfimage_print

বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতি বিজড়িত কুষ্টিয়ার শিলাইদহ কুঠিবাড়ি থেকে দুটি  প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন চুরি গেছে। গত বুধবার রাতের কোনো এক সময় কুঠিবাড়ি থেকে প্রাচীণ আমলের দুটি তরবারি চুরি হয়ে গেলেও কর্তৃপক্ষ বিষয়টি গোপন রেখেছিল। কুঠিবাড়িতে রাতে আনসারের পাহারার ব্যবস্থা থাকা সত্বেও কি করে এ চুরির ঘটনা ঘটলো তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

কুঠিবাড়ি সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যার আগে কুঠিবাড়িতে দর্শনার্থী প্রবেশের প্রাত্যহিক সময় শেষ হওয়ার পর সেখানে সংরক্ষিত সব মালামাল গণনা শেষে প্রথম ফটক সিলগালা করে দেওয়া হয়। পরদিন সকালে দর্শনার্থীদের জন্য কুঠিবাড়ি খুলে দেওয়ার আগে দেখা যায় একটি কক্ষের শো-কেসে রাখা প্রাচীণ আমলের দুষ্প্রাপ্য দুটি তরবারি নেই। তবে সে সময় প্রধান ফটকের তালায় সিলগালাও অক্ষত ছিল বলে কুঠিবাড়ির একজন কর্মী জানান।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার কুমারখালী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে কুঠিবাড়ির কাস্টোডিয়ান (জিম্মাদার) মখলেচুর রহমান ভুঁইয়া। তবে চুরির বিষয়ে জানতে কাস্টোডিয়ানের মোবাইল ফোনে বার বার রিং করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

প্রসঙ্গত, দর্শনার্থীদের দেখার জন্য রোববার ছাড়া প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কুঠিবাড়ি খোলা থাকে। সন্ধ্যার পর সব মালামাল গণনা শেষে প্রধান ফটকে তালা লাগিয়ে সিলগালা করে দেওয়া হয়। এই একটি মাত্র দরজা দিয়েই কুঠিবাড়ির মূল ভবনে প্রবেশ করা যায়। কুঠিবাড়ির নিরাপত্তায় আনসার বাহিনীর সশস্ত্র পাহারারও ব্যবস্থা আছে সার্বক্ষণিক। তাই এরকম একটি সুরক্ষিত ভবন থেকে কীভাবে দুটি দুষ্প্রাপ্য প্রত্নতাত্ত্বিক সামগ্রী চুরি হয়ে গেলে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে কুঠিবাড়িতে কর্মরত এক কর্মী জানান, কাস্টোডিয়ান মখলেচুর রহমানের গাফিলতির কারণেই এ ঘটনা সম্ভব হয়েছে। তার দাবি কুঠিবাড়ির মূল ভবনের পূর্ব পাশে অবস্থিত কাস্টোডিয়ান ভবনে মখলেচুর রহমান গভীর রাত অবধি বাইরের লোকদের সাথে আড্ডা দেন, তাস খেলেন। তার আসকারায় অনেক মাদকসেবিরাও রাতের বেলা কুঠির বাড়ির আম বাগানে আড্ডা দেন বলেও জানান কুঠিবাড়ির ওই কর্মী।

এ ব্যাপারে কুমারখালী থানা পুলিশের ওসি জিয়াউর রহমান জানান, কুঠিবাড়ি কর্তৃপক্ষ দুটি তরবারি খোয়া গেছে মর্মে একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগের আঞ্চলিক পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) আফরোজা খান মিতা জানান, চুরির ঘটনাটি খুব দুঃখজনক। এ ব্যাপারে একটি তদন্ত কমিটি গঠন প্রক্রিয়াধীন। এ কমিটির রিপোর্ট পেলে সব কিছু পরিস্কার হবে। এক্ষেত্রে কারো দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!