গরু রক্ষার নামে ভারতে ফের সহিংসতা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : গরুর মাংস বহনের অভিযোগে ভারতের মহারাষ্ট্রের নাগপুরে এক সংখ্যালঘু ব্যক্তিকে প্রচণ্ড মারধর করার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বুধবার নাগপুরের ভরসিঙ্গি এলাকায় ইসমাল শেখ (৪০) নামে ওই ব্যক্তি স্কুটার চালিয়ে যাচ্ছিলেন। গাড়িতে গরুর মাংস আছে  এ অভিযোগে তার পথ আটকায় কয়েকজন যুবক।

সে কথা অস্বীকার করলেও ইসমাইলকে রাস্তায় ফেলে প্রচণ্ড মারধর করা হয়। মারের চোটে অচেতন ইসমাইলকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নাগপুর পুলিশের ডিএসপি শৈলেশ বালকাড়ে জানান, আমরা গতকালই একটি অভিযোগ পেয়েছিলাম। এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আমরা চার ব্যক্তিকে আটক করেছি। আমরা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছি।

এদিকে, ইসমাইলের গাড়িতে যে মাংস ছিল তা পরীক্ষার জন্য ওই ফরেনসিক ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়েছে।

গত মাসের শেষের দিকে গরুর মাংস খাওয়ার অভিযোগে হরিয়ানায় ট্রেনের মধ্যে জুনেদ খান (১৫) নামে এক যুবককে খুন করার অভিযোগ ওঠে। ওই ঘটনার পরই সংখ্যালঘু ও দলিতদের ওপর হামলার অভিযোগে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ প্রদর্শিত হয়। এমনকি দেশজুড়ে হামলার প্রেক্ষিতে গুজরাটের সবরমতীতে একটি অনুষ্ঠান থেকে গোরক্ষকদের উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মোদির স্পষ্ট বক্তব্য ছিল, গরু রক্ষার নামে মানুষ খুন করা কোনমতেই মেনে নেওয়া হবে না। কিন্তু মোদির সেই বার্তাতেও যে কোন কাজ হচ্ছে তা এই ঘটনায় পরিস্কার।