বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০২:২০ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

গৃহবধূকে বিবস্ত্রের ঘটনায় এবার ইউপি সদস্যসহ গ্রেফতার ২

image_pdfimage_print

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের পূর্ব একলাশপুরে স্বামীকে বেঁধে রেখে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন ও ধর্ষণ চেষ্টার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনায় এবার স্থানীয় ইউপি সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন ওরফে সোহাগ (৪২)-কে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার ভোর রাতে এখলাশপুর থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তবে তিনি এজাহারভুক্ত আসামি নন।

একইসঙ্গে সোমবার দিবাগত রাতে ঢাকা থেকে মামলার ৪নং আসামি সাজুকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। এ নিয়ে নৃশংস এ ঘটনায় ছয়জনকে গ্রেফতার করা হলো। জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খীসা গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে একইদিন সকালে মামলার প্রধান আসামি বাদল (২২)-কে ঢাকা থেকে ও কিশোর গ্যাং লিডার ও দেলোয়ার বাহিনীর প্রধান দেলোয়ারকে নারায়ণগঞ্জ থেকে আটক করে র‌্যাব।

আটকদের মধ্যে বাদল একলাশপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মোহর আলী মুন্সিবাড়ির রহমত উল্যার ছেলে, দেলোয়ার একই গ্রামের সাইদুল হকের ছেলে। এছাড়া মো. রহীম (২০) একলাশপুর ইউনিয়নের পূর্ব একলাশপুর গ্রামের হারিদন বাড়ির শেখ আহম্মদ দুলালের ছেলে ও মো. রহমত উল্যাহকে আবদুর (৪১) গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে নির্যাতিত নারী বাদী হয়ে সোমবার রাতে ৭-৮ জন অজ্ঞাতনামাসহ ৯ জনকে আসামি করে পর্নোগ্রাফি আইনে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় মামলা করেছেন। এর আগে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একই থানায় ওই ব্যক্তিদের আসামি করে আরেকটি মামলা করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ২ সেপ্টেম্বর রাত ৯টার দিকে বেগমগঞ্জ উপজেলার এখলাশপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের খালপাড় এলাকায় ওই গৃহবধূর বসতঘরে ঢুকে তার স্বামীকে পাশের কক্ষে বেঁধে রাখেন স্থানীয় বাদল ও তার সহযোগীরা। এ সময় ওই গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে বেধড়ক মারধর করে তার ভিডিও চিত্র ধারণ করে বিভিন্ন অংকের টাকা দাবি ও শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের জন্য কুপ্রস্তাব দেয়।

চাহিদা অনুযায়ী টাকা না পেয়ে গত রোববার (৪ অক্টোবর) বিকেলের দিকে ঘটনার ৩২দিন পর গৃহবধূকে নির্যাতনের ঐ ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ পেলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। এতে টনক নড়ে স্থানীয় প্রশাসনের। ঘটনার পর থেকে দীর্ঘ একমাস অভিযুক্ত স্থানীয় বখাটেরা গৃহবধূর পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখলে পুরো ঘটনা থেকে যায় স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ প্রশাসনের অগোচরে।

স্থানীয়রা বলছে, গত মাসের (২ সেপ্টেম্বর) উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের খালপাড় এলাকার নূর ইসলাম মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী নির্যাতিত গৃহবধূ এতোদিন বখাটেদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল।

নোয়াখালী জেলা পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানান, ‘ফেইসবুকে ভিডিওটি দেখার পরই আমরা ভিক্টিমকে তার আত্মীয়ের বাসা থেকে উদ্ধার করি। তার দেয়া তথ্যানুযায়ী অপরাধীদের গ্রেফতার করা হয়। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!