চাটমোহরে ঘুষের টাকা ফেরত দিলেন ভূমি কর্মকর্তা!

ছবি: প্রতীকি

ছবি: প্রতীকি

চাটমোহর প্রতিনিধি : চাটমোহর উপজেলার ফৈলজানা ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মোঃ নকিবুল্লাহ জমির খাজনা খারিজের নামে ঘুষ নেওয়া ২০ হাজার টাকা ফেরত দিয়েছেন।

অভিযোগে জানা গেছে, ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মোঃ নকিবুল্লাহ ও অফিস সহায়ক ইউনুস আলী পরস্পর যোগ সাজসে সম্প্রতি ফৈলজানা ইউনিয়নের ইদিলপুর গ্রামের মুছার ছেলে মোহাম্মদ আলীর কাছ থেকে জমি খারিজ ও খাজনা বাবদ ২০ হাজার টাকা ঘুষ নেন।

কিন্তু সরকারি ফি মাত্র ৭শ’ টাকা। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মিজানুর রহমান অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্ত করে ঘুষ গ্রহণের সত্যতা পান।

পরে ভুক্তভোগী মোহাম্মদ আলীকে গত রবিবার সরকারি নির্ধারিত ফি ৭শ’ টাকা রেখে বাকি ১৯ হাজার ৩শ’ টাকা ফেরত প্রদানের ব্যবস্থা করেন।

সেই সাথে দূর্নীতিবাজ ওই দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা দায়েরের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পাবনা জেলা প্রশাসকের নিকট পাঠিয়েছেন। ফৈলজানা ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে জমির মালিকদের হয়রানী করার বিস্তর অভিযোগ রয়েছে।

চাটমোহরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মিজানুর রহমান চাটমোহরে যোগদানের পর থেকেই জনগণের জমি সংক্রান্ত হয়রানী বন্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

কোন প্রকার দূর্নীতি ও অনিয়ম না করার জন্য ভূমি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নির্দেশ দেন। কেউ দূর্নীতি বা অনিয়ম করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণেরও হুঁশিয়ারী দেন।

ইতিমধ্যে চাটমোহরে ভূমি সংক্রান্ত দূর্নীতি অনেক কমে গেছে। সম্প্রতি পাবনা জেলা প্রশাসক রেখা রানী বালো ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোস্তাক আহমেদ চাটমোহরে এক মতবিনিময় সভায় ভূমি অফিসের যে কোন অনিয়ম ও দূর্নীতি রোধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।