চাটমোহরে দু’দিনে শিশুসহ ৩ জনের আত্মহত্যা

পাবনার চাটমোহরে গত দু’দিনে এক শিশুসহ ৩ জন আত্মহত্যা করেছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের রামনগর গ্রামে মায়ের বকুনি খেয়ে হাফিজিয়া মাদ্রাসা ছাত্র নাহিদ আহমেদ (১০) ঘরের ডাবের সাথে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সে ওই গ্রামের আঃ জলিলের ছেলে।

একটি সূত্র জানায়, মায়ের বকুনি ও মারপিটে নাহিদ আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়। স্থানীয় বিলচলন ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ থানা পুলিশে না জানিয়ে নাহিদের দাফন করার ব্যবস্থা করেন। থানার ওসি সুব্রত সরকার জানান, বিষয়টি আমরা জানি না। কেউ জানায়নি। অভিযোগও করেনি।


অপরদিকে মঙ্গলবার উপজেলার ছাইকোলা ইউনিয়নের দীঘলগ্রামে আমিরুল ইসলামের স্ত্রী মঞ্জুয়ারা খাতুন (৩০) পারিবারিক কলহের কারণে গ্যাস ট্যাবলেট (কীটনাশক) খায়। তাকে অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যায় মারা যায়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে গতকাল বুধবার ময়না তদন্তের জন্য পাবনা মর্গে পাঠায়।


এছাড়া ছাইকোলা ফকিরপাড়া গ্রামের মৃত খলিলুর রহমানের স্ত্রী সাজেদা বেগম (৪৮) সোমবার সকালে নিজ ঘরের ডাবের সাথে গলায় ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। থানায় পৃথক দু’টি ইউডি মামলা হয়েছে।