রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ১১:২৭ অপরাহ্ন

চাটমোহরে পায়ে হাঁটার রাস্তা দিতে ইউএনও’র নির্দেশ

পায়ে হাঁটার রাস্তা দিতে ইউএনও’র নির্দেশ

পায়ে হাঁটার রাস্তা দিতে ইউএনও’র নির্দেশ

পায়ে হাঁটার রাস্তা দিতে ইউএনও’র নির্দেশ

চাটমোহর প্রতিনিধি: চাটমোহর উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের কুবিরদিয়ার গ্রামে দু‘টি পরিবার রাস্তা বন্ধ করে প্রচীর নির্মান করার কারণে ৪০টি পরিবার অবরুদ্ধ হওয়ার আশংকায় তাদের পায়ে হাঁটার রাস্তা রেখে যে কোন কাজ করতে জমির মালিকদের নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বেগম শেহলী লায়লা।

বৃহস্পতিবার (০৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের কুবিরদিয়ার গ্রামে সরেজমিনে ঐ জায়গা পরিদর্শন করে ডা. ফরহাদ হোসেন ও ডা. মো: আব্দুর রাজ্জাক পরিবারকে এ নির্দেশ দেন।

এ সময় ইউএনও ঐ জায়গার মালিকদের আপত্তির প্রেক্ষিতে ভুক্তভোগী ৪০ পরিবারের রাস্তার জন্য বিকল্প রাস্তার খোঁজ করেও সেখানে কোন বিকল্প রাস্তা না থাকায় মুল রাস্তা থেকে পায়ে হাঁটার সামান্য রাস্তা রেখে জায়গার মালিকদের কাজ করতে নির্দেশ প্রদান করেন।

এসময় ইউএনও সাথে সেখানে উপস্থিত ছিলেন, মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম বকুল, স্থানীয় ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হোসেন মোজাই, উপজেলা সার্ভেয়ার অফিসার রেজা্উল করিমসহ স্থানীয় প্রায় অর্ধ শতাধিক অধিবাসী সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

জায়গা পরিদর্শন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট বেগম শেহলী লায়লা দৈনিক চলনবিল কে জানান, মূল জায়গা থেকে আশপাশের সকল স্থানে বিকল্প রাস্তা খুঁজে না পাওয়ায় ভূক্তভোগী প্রায় ৪০টি পরিবারের চলাচলের সুবিধার্থে পায়ে হাটার সামান্য রাস্তা দিতে ঐ জায়গার মালিককে নির্দেশ প্রদান করেছি।

মানবিক দৃষ্টিকোন থেকেও বিবেচনা করলে পরিবার গুলোর চলাচলের জন্য এই রাস্তা ব্যাতিত বিকল্প কোন রাস্তা নেই।

এর পরে জমির মালিক রাস্তা দিতে অপারগতা প্রকাশ ও প্রতিবন্ধতা সৃষ্টি করলে তাদের বিরুদ্ধে আমি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করতে বাধ্য হব।

উল্লেখ্য উপজেলার রেলবাজার এলাকার কথিত ডা. ফরহাদ হোসেন ও ডা. মো: আব্দুর রাজ্জাক গত কয়েকদিন যাবৎ তাদের জায়গায় দির্ঘদিনের চলমান রাস্তা বন্ধ করে দেওয়াল নির্মাণ শুরু করেন।

এই দু‘টি পরিবারের কারণে ঐ এলাকার অন্তত ৪০টি পরিবারের বাড়ি থেকে বের হওয়ার রাস্তা বন্ধ হয়ে অবরুদ্ধ হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেয়।

এ ব্যাপারে চাটমোহরের ইউএনও শেহেলী শায়লাকে এলাকাবাসী রাস্তার দাবীতে লিখিত অভিযোগ প্রদান করলে তিনি রাস্তা বন্ধ করে দেওয়াল নির্মাণ না করার নির্দেশ দেন।

কিন্তু সে নির্দেশকে বৃদ্ধাংগুলি দেখিয়ে আবারও পুরোদমে দেওয়াল নির্মাণ কাজ করতে থাকেন জমির মালিকরা।

সর্বশেষ গতকাল বৃহস্পতিবার ইউএনও শেহেলী লায়লা সরেজমিন সেখানে উপস্থিত হয়ে বিষয়টির একটি গ্রহনযোগ্য সমাধান করেন।

0
1
fb-share-icon1


শৈশব কৈশরের দুরন্ত-দুষ্টু ছেলেটিই আজকের এমপি প্রিন্স

শৈশব কৈশরের দুরন্ত-দুষ্টু ছেলেটিই আজকের এমপি প্রিন্স

শৈশব কৈশরের দুরন্ত-দুষ্টু ছেলেটিই আজকের প্রিন্স অফ পাবনা

Posted by News Pabna on Thursday, February 18, 2021

© All rights reserved 2021 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
x
error: Content is protected !!