সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৮ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

চাটমোহরে হাটের দোকান বরাদ্দ নিয়ে এসি ল্যান্ডের চরম দূর্নীতি

চাটমোহরে হাটের দোকান বরাদ্দ নিয়ে এসি ল্যান্ডের চরম অনিয়মের অভিযোগ

image_pdfimage_print

চাটমোহর প্রতিনিধি : পাবনার চাটমোহর উপজেলার মথুরাপুর হাটের সরকারি জায়গায় (হাট পেরিফেরী) ব্যবসায়ীদের দোকান বরাদ্দে ব্যাপক অনিয়ম, দূর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

প্রকৃত ব্যবসায়ীদের মাঝে দোকান বরাদ্দ না দিয়ে চাটমোহর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসের কর্মচারীর আত্মীয়, চেয়ারম্যানের ভাই, আওয়ামী লীগের নেতা ও প্রভাবশালীদের নামে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মিজানুর রহমান দোকান বরাদ্দ দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এই বরাদ্দের প্রতিবাদে এবং প্রকৃত ব্যবসায়ীদের মাঝে দোকান বরাদ্দের দাবিতে মঙ্গলবার (১১ জুলাই) দুপুরে মথুরাপুর হাটের বঞ্চিত ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল করেছেন।

মিছিলকারীরা এসি ল্যান্ডের অপসারণসহ অব্যবসায়ী, রাজনৈতিক নেতা, আত্মীয়-স্বজনদের মাঝে বরাদ্দ দেওয়া দোকানের বরাদ্দ বাতিলের দাবি জানান। এই বরাদ্দ নিয়ে এলাকায় যে কোন মূহুর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন স্থানীয় ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার দুপুরে মথুরাপুর হাটে সরেজমিনে গেলে প্রায় ৩০ বছর যাবত ব্যবসা করা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা কান্নাজড়িত কন্ঠে অভিযোগ করেন, চাটমোহরের এসি ল্যান্ড ৬০ দোকান উচ্ছেদের নোটিশ দেন। এরপর দোকান উচ্ছেদ করা হয়।

পরবর্তীতে দোকান বরাদ্দের জন্য দরখাস্ত আহবান করা হয়। হাটের প্রকৃত ব্যবসায়ীর পাশাপাশি বিভিন্ন এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তি, ভূমি অফিসের কর্মচারীর ভাই, চেয়ারম্যানের ভাই, রাজনীতিবিদ আবেদন করেন।

এসিল্যান্ড ব্যাপক অনিয়মের মাধ্যমে স্বজনপ্রীতি করে বেশিরভাগ প্রকৃত ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের দোকান বরাদ্দ না দিয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তি, রাজনীতিবিদের দোকান বরাদ্দ দেন।

রেজাউল করিম নামের এক ব্যক্তির পরিবারকে একসাথে, একলাইনে ৭টি দোকান বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। দোকানের কর্মচারীদের নাম দিয়ে রেজাউল আরো অন্তত ৪টি দোকান বরাদ্দ নিয়েছেন।

ডেকোরেটর ব্যবসায়ী রেজাউল এসিল্যান্ডের কাছের লোক হিসেবে পরিচিত। শুধু তাই নয়, এসিল্যান্ড তার ইচ্ছেমতো পছন্দের লোকদের সামনের পজিশন বরাদ্দ দিয়ে অন্যদের নদীর মধ্যে বরাদ্দ দিয়েছেন।

ওষুধের দোকানগুলো এক জায়গায় না রেখে তিনজনকে ভাল পজিশনে ও বাকিদের নদীর মধ্যে ও হাটের শেষমাথায় কোনার মধ্যে পজিশন দিয়েছেন।

জনৈক মুফতি মফিজ উদ্দিন নামের এক ব্যক্তিকে দোকান বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। যার কাছে নাকি এসি ল্যান্ড কোরআন শিক্ষা করেছেন। প্রতিদান হিসেবে দোকান বরাদ্দ দিয়েছেন। তিনি কোনোদিন মথুরাপুরে ব্যবসা করেননি।

এলআর ফান্ডের নামে হাতিয়ে নিয়েছেন কয়েক লাখ টাকা। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা এর প্রতিবাদ করলে তাদের সাথে এসিল্যান্ড চরম দুর্ব্যবহার করেছেন।

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা জানান, ভূমি অফিসের কম্পিউটার অপারেটর রুহুল আমিনের ভাই আব্দুল আজিজ পেয়েছেন হাটের প্রধান পজিশন। যার বাড়ি পার্শ্বডাঙ্গা ইউনিয়নের টেংগরজানি গ্রামে। সে এখানে কখনও ব্যবসা করেননি।

ভূমি অফিসের এক কর্মচারী ও তার ভাইয়ের নামে দেয়া হয়েছে হাটের সড়কের সাথে সামনের দু’টি দোকানের বরাদ্দ। যাদের বাড়ি বোঁথড়ে। তারাও কোনোদিন মথুরাপুর হাটে ব্যবসা করেননি।

অথচ ২০ থেকে ৩০ বছর ধরে এই হাটে ব্যবসা করেছেন সুনামের সাথে এমন অনেককে বরাদ্দই দেয়া হয়নি। তাদের আবেদন বাতিল করেছেন, তাদের কোনো কথাই শোনেননি এসিল্যান্ড।

দোকান বরাদ্দে স্বজনপ্রীতি, অনিয়ম হয়েছে এবং স্বচ্ছতা ছিলো না বলে জানান স্থানীয় ইউপি মেম্বার ও আওয়ামী লীগ নেতা আবু বকর সিদ্দিক।

এ বিষয়ে মথুরাপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সরদার আজিজুল হক বলেন, এসিল্যান্ড চরম স্বেচ্ছাচারিতার মাধ্যমে এই দোকান বরাদ্দ দিয়েছেন। তিনি প্রকাশ্যে লটারী করেননি। কারো কথা শোনেন না। যাবার আগে এই কর্মকর্তা হাটের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে সংঘাত লাগানোর কাজ করেছেন।

চেয়ারম্যান বলেন, সে একজনকেই ৭টি দোকান বরাদ্দ দিয়েছেন। বিষয়টি উপজেলা পরিষদের সভায় তোলা হবে।

এ ব্যাপারে সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, ১৪০টি দোকান বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এলাকার লোকজনই এ বরাদ্দ পেয়েছেন। কোন অনিয়ম করা হয়নি। আমি কাউকে চিনি না। ইন্টারনাল লটারীর মাধ্যমে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া সবাইতো সামনে পাবে না। ভেতরে তো নিতেই হবে।

তার অফিসের কর্মচারীর ভাই বরাদ্দ পেয়েছেন কিনা জানতে চাইলে বলেন, তার আত্মীয় নাকি পেয়েছেন। এক পর্যায়ে তিনি বলেন, আমি চাটমোহরের ৩টি হাটে যা করে গেলাম, তা আর কেউ করবে কিনা দেখবেন।

এলাকাবাসী ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা এলাকার রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ এড়াতে এবং প্রকৃত ব্যবসায়ীদের মাঝে দোকান বরাদ্দে পাবনা জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

তারা সরেজমিনে গিয়ে ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে সমস্যার সমাধান করবেন বলে আশা সকলের।

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!