ছবি কিন্তু অনেক পছন্দ হইছে…

পরিচালক দর্শকের জন্য ছবিটা বানাইছেন.., ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে নায়িকা নিয়ে ঘুরার জন্য বানান নাই… গাদা গাদা বিদেশী সিনে ম্যাগাজিনের রিভিউ বেচার চেষ্টা করেন নাই… কাহিনীকার Sunny Sanwar তামিল ছবি কিংবা কারও জীবন কপি করেন নাই…

বাংলাদেশ এর মতো স্বল্প পরিসরের কারিগরি রসদ নিয়ে আন্তর্জাতিক মানের ছবি বানানোর চেষ্টা করেছেন…
hats off Dipankar Dipon…

আমার বাংলা সিনেমা না দেখা NSU তে পড়া কর্পোরেট বন্ধুরাও ছবি দেখে আনন্দ পেয়েছে… ‘টিকাটুলির মোড়’ গানটির সঙ্গে তাল মিলিয়েছে… bomb disposal এর পর নিজের অজান্তেই আমরা হলভর্তি দর্শকের সাথে তালি দিয়েছি… অফিসার আশফাক এর অনাগত সন্তানের কথা ভেবে আবেগী হয়েছি… মানসিক ভাবে অসুস্থ জিসান এর ক্রুরতায় শিউরে উঠেছি… দেশের জন্য বাংলাদেশ পুলিশ এর অবসরহীন দায়িত্ববোধ দেখে আপ্লুত হয়েছি…

সত্যিকারের বেশকিছু পুলিশ অফিসার ছিলেন এই ছবিতে, প্রত্যেকের কাছ থেকেই সাবলীল অভিনয় বের করে নিয়েছেন পরিচালক…
পরীক্ষিত অভিনেতা শতাব্দী ওয়াদুদ এর পাশাপাশি এবিএম সুমন ছিলেন দুর্দান্ত…
কথায় কথায় ‘double’ বলা নাম না জানা অভিনেতাও নজর কেড়েছে…

আর জিসান চরিত্রে Taskeen..!!! আমার শৈশবের সরল সাদাসিধা বন্ধুটা এমন অসুস্থ একটা চরিত্রে যা করে দেখালো..! অঞ্জন, বন্ধু তুমি born actor…

সবশেষে পরিচালককে বলতে চাই… দাদা আপনি মুক্তিযুদ্ধের একটা ছবি বানান… দর্শক হিসাবে আমি অপেক্ষায় থাকব…

#dhaka_attack

(অভিনেত্রীর ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)