জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় অভিভাবকদের ভূমিকা অপরিসীম : মাকসুদা বেগম

জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় অভিভাবকদের ভূমিকা অপরিসীম : মাকসুদা বেগম

 মাকসুদা বেগম

শহর প্রতিনিধি: জঙ্গিবাদ মোকাবেলা, দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, বৈশ্বিক শ্রম বাজারের প্রকৃতি ও চাহিদার সাথে সামঞ্জস্য রাখতে কারিগরি শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের গুণগত মান উন্নয়ন এবং সম্প্রসারণের মধ্য দিয়ে অনগ্রসর শিক্ষার্থীদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির মাধ্যমে দক্ষ মানব সম্পদ তৈরিতে স্কিলস অ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (স্টেপ) প্রকল্পের প্রশিক্ষণ সম্পর্কে অভিভাবকদের ভূমিকা অপরিসীম।

যা সরকারের ভিশন-২০২১ বাস্তবায়নে তথা দারিদ্র বিমোচন, কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, আত্ম-কর্মসংস্থান, উদ্যোক্তা উন্নয়ন ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির মাধ্যমে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করার ক্ষেত্রে সহায়ক হিসেবে কাজ করছে।

এ লক্ষ্য অর্জনে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোগে মানসম্মত কারিগরি প্রশিক্ষণ সন্তানদের আচার-আচরন ও চলাফেরার ব্যাপারে অভিভাবকদের আরো সচেতন ও আন্তরিক হওয়ার উপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন পাবনার ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মাকসুদা বেগম সিদ্দীকা।

শনিবার (৩০ জুলাই) সকাল ১১ টায় পাথফাইন্ডার ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের ব্যবস্থাপনায় ও স্কিলস অ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (স্টেপ) আয়োজিত “জঙ্গিবাদ মোকাবেলা ও কারিগরি শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়ন এবং সম্প্রসারণে অভিভাবকদের করণীয়” শীর্ষক মতবিনিময় সভা স্থানীয় দোয়েল সেন্টারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলে।

পাথফাইন্ডার ট্রেনিং ইনস্টিটিউট’র অধ্যক্ষ জনাব মো. তোফাজ্জল হোসেন’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পাবনার ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মাকসুদা বেগম সিদ্দীকা, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শামসুল ইসলাম, পাবনা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাষ্ট্রির সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহবুব উল আলম মুকুল, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি আব্দুল মতীন খান ও পাবনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের পাওয়ার ট্রেডের চিফ ইন্সট্রাক্টর আতিকুর রহমান।

বক্তাগন সাম্প্রতিক সময়ে দেশে জঙ্গি হামলায় কিছু বিপথগামী শিক্ষার্থীর জড়িত থাকায় অভিভাবকদের তাদের সন্তানদের বিষয়ে আরো সচেতন ও যত্নবান হওয়ার আহবান জানান।

তারা ধর্মের নামে যারা ভূল বুঝিয়ে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিপথে পরিচালিত করছে তাদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

এক্ষেত্রে মায়েদেরকে তাদের সন্তানরা নিয়মিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত হয় কিনা, কাদের সঙ্গে মেলামেশা করে, তার চলাফেরা ও আচারনের মধ্যে কোন অস্বাভাবিকতা লক্ষণীয় হচ্ছে কিনা সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার পরামর্শ দেন।

বক্তারা দেশের অনগ্রসর জনগোষ্ঠির কল্যাণে কারিগরি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের স্বাবলম্বী করতে স্কিলস অ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (স্টেপ) প্রকল্পের ভুয়শী প্রশংসা করেন। মতবিনিময় সভায় অভিভাবকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্বদেশ রঞ্জন মজুমদার, দিলরুবা ইয়াসমিন, আমিনুর রহমান ও আজিমুদ্দিন।

উল্লেখ্য পাথফাইন্ডার কম্পিউটার ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে স্কিলস অ্যান্ড ট্রেনিং এনহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট (স্টেপ)-এর আওতায় প্রতি সাইকেল/সেশনে ৬ মাস মেয়াদি ৬টি কর্মমূখী ট্রেডে ৩০ জন করে মোট ১৮০ শিক্ষার্থীকে ফ্রি প্রশিক্ষণ ও প্রতি মাসে ৭০০/= টাকা হারে ৬ মাসে ৪,২০০ টাকা বৃত্তি প্রদান করছে।

অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন ইনস্টিটিউট’র সুপরিনটেডেন্ট মো. শফিক আল কামাল, ফাইন্যান্স ইনচার্জ মো. রইচ উদ্দিন, ক্রয় কর্মকর্তা মো. আনোয়ারুল হক শামীম, চিফ ইন্সট্রাক্টর আরাফাত রহমান খান, ইন্সট্রাক্টর অর্চনা দাস, আরিফুর রহমান জাহেদী রাশেদ, আসমা খাতুন, মো. রিপন আলী, রাজিয়া সুলতানা, মতিউর রহমান, পলাশ ঘোষ, সহকারি ইন্সট্রাক্টর শারমিন সুলতানা, কামনা সাহা ও রোজিনা আক্তার লাকী।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ইনস্টিটিউট’র গ্র্যাফিক্স ডিজাইন অ্যান্ড মাল্টিমিডিয়া ট্রেডের শিক্ষার্থী এ্যানি মজুমদার।