শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২১, ০৮:৪২ অপরাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

টাকা দিয়ে ফলোয়ার বানাচ্ছেন তারকারা!

image_pdfimage_print

বিনোদন ডেস্ক : সোশ্যাল মিডিয়ায় সেলেব্রিটিদের যে এই লক্ষ-কোটি ফলোয়ার, তার সবটাই কি আসল? না কি আসল-নকলে মিলেমিশে একটি ম্যাজিক সংখ্যা তৈরি করে? তারকাদের নকল ফলোয়ারের কথাটা বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির ওপেন সিক্রেট। তবে সেই গোপন বাক্স এবার হাটে হাঁড়ি ভাঙলো।

সম্প্রতি ভারতের মহারাষ্ট্রের মুম্বাই পুলিশের একটি তদন্তে জানা গেছে, বলিউডের বেশ কিছু সেলেব্রিটি নকল ভক্তসংখ্যা দিয়ে নিজেদের স্বার্থসিদ্ধি করছেন। কেউ ভিডিও’র লাইক বাড়াচ্ছেন, কারও এনডর্সমেন্টে লাভের অঙ্ক বাড়ছে।

এ প্রসঙ্গে গায়ক বাদশাকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদও করেছে। বাদশার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ৭২ লাখ রুপি দিয়ে নকল ফলোয়ারের মাধ্যমে তার মিউজিক ভিডিওর ‘ভিউজ’ বাড়িয়েছেন। বাদশা এ অভিযোগ স্বীকারও করেছেন বলে জানায় পুলিশ।

ইনস্টাগ্রামে প্রিয়াঙ্কার অনুগামী সংখ্যা ছয় কোটির কাছাকাছি আর দীপিকার পাঁচ কোটির সামান্য বেশি। কিছু দিন আগে ইনস্টাগ্রামের প্রভাবশালী তারকার তালিকায় প্রিয়াঙ্কা ভারতীয়দের মধ্যে শীর্ষে ছিলেন।

এই ফলোয়ারের সংখ্যার দৌলতেই তারকাদের ছবি-ভিডিওতে লাইক বেশি হয়, যার প্রভাব সরাসরি পড়ে তাদের ব্র্যান্ড এনডর্সমেন্টের উপরে। শুধু ইনস্টা নয়, টুইটার ও ফেসবুকের ভক্তসংখ্যাও সন্দেহের বাইরে নয়। অনেক তারকা যেমন নিজেই সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট সামলান। অনেকে সংস্থা মারফত কাজ করান।

তবে নিজে পোস্ট করলেও প্রায় সবারই সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার রয়েছে। তেমনই কিছু এজেন্সিও রয়েছে, যারা নকল প্রোফাইল তৈরি করে এবং তা এমনভাবে চালায়, যে চট করে বোঝা মুশকিল সেটি আসল না নকল। টাকার বিনিময়ে তারকারা এই সব ফেক প্রোফাইল কেনেন ও নিজেদের সুবিধার্থে ব্যবহার করেন বলে শোনা যায়।

অনেক সময়ে সংশ্লিষ্ট সোশ্যাল মিডিয়া নিজেদের উদ্যোগেই ফেক প্রোফাইল ডিলিট করে দেয়। তবে কিছু দিন পরে আবার একটি নকল অ্যাকাউন্ট গজিয়ে ওঠে!

নকল প্রোফাইল নিয়ে হঠাৎ করে আলোড়ন ওঠার নেপথ্যে দু’টি ঘটনা আছে বলে মনে করা হচ্ছে। গত বছর বাদশার মিউজিক ভিডিও ‘পাগল হ্যায়’ মুক্তি পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ৭.২ কোটি ভিউজ পায়, যা রেকর্ড। টেলর সুইফ্ট বা বিটিএসের মতো ব্যান্ডের রেকর্ডকেও ভেঙে দেয়। এর পরেই নাকি বাদশার বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়ে।

গতকাল রবিবার (৯ আগস্ট) মুম্বাই পুলিশের ডেপুটি কমিশনার নন্দকুমার ঠাকুর বলেন, গায়ক স্বীকার করেছেন যে, তিনি রেকর্ড তৈরির জন্য একটি এজেন্সিকে দিয়ে ৭২ লাখ রুপির বিনিময়ে তার অ্যালবামে ভিউজ বাড়িয়েছিলেন। তবে শনিবারই বাদশা একটি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছিলেন, তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ মিথ্যা।

অন্যদিকে সেলেব্রিটিদের উপরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রমাগত যে ট্রোলিং চলে, তা নিয়েও বিস্তর অভিযোগ জমা পড়েছে মুম্বাই পুলিশের কাছে। সেই সব অভিযোগের তদন্ত করতে গিয়ে দেখা গেছে, নকল প্রোফাইলের মাধ্যমেই সবচেয়ে বেশি ট্রোলিং চলে। বলিউডের অনেক তারকার প্রোফাইলে নজরদারিও চালানো হয়। সেই সূত্রেই নাকি প্রিয়াঙ্কা ও দীপিকার নাম উঠে এসেছে।

তবে তারা এ ব্যাপারে এখনো কোনো মন্তব্য করেননি। -আনন্দাবাজার পত্রিকা

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!